ঢাকা,সোমবার,৫ মাঘ ১৪২৭,১৮,জানুয়ারী,২০২১
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * ফের বিসিআই’র পরিচালক হলেন যশোদা জীবন দেবনাথ   * ৫৬ পৌরসভায় আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেলেন যারা   * করোনার টিকা সাধারণ মানুষকে পৌঁছে দেওয়ার সুপারিশ   * রূপনগর খাল দিয়ে নৌকায় তুরাগ নদীতে যেতে চাই: ডিএনসিসি মেয়র   * আজ পৌষ সংক্রান্তি, ঘুড়িতে ছেয়ে যাবে ঢাকার আকাশ   * সরকারি বিদ্যালয়ে লটারি শেষেও শুরু হয়নি ভর্তি   * প্রবীণ আলেম প্রিন্সিপাল মাওলানা শফিকুল্লাহর ইন্তেকাল ও দাফন   * শিশু-কিশোরদের নিয়ে টেলিস্কোপ মেকিং ওয়ার্কশপ   * কুমড়া বড়ি বানানোর সহজ রেসিপি   * রায়ান রেনল্ডসকে নিয়েই তৈরি হচ্ছে ডেডপুল থ্রি  

   জাতীয় -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
করোনার টিকা সাধারণ মানুষকে পৌঁছে দেওয়ার সুপারিশ

অক্সফোর্ড অ্যাস্ট্রাজেনেকার করোনাভাইরাসের টিকা জেলা সরকারি হাসপাতাল এবং উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মাধ্যমে নির্ধারিত অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে সাধারণ মানুষকে পৌঁছে দিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করা হয়েছে।বুধবার (১৩ জানুয়ারি) সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় সংসদের ‘পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটি’র ৮ম বৈঠকে এ সুপারিশ  করা হয়। কমিটির সভাপতি আবুল কালাম আজাদ সভাপতিত্ব করেন।

কমিটির সদস্য পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী এম, এ, মান্নান, মেজর (অবঃ) রফিকুল ইসলাম, বীর উত্তম, হাফিজ আহমদ মজুমদার, বীরেন শিকদার, রওশন আরা মান্নান এবং আদিবা আনজুম মিতা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন বৈঠকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়কে (বিএসএমএমইউ) সেন্টার অব এক্সিলেন্সে পরিণতকরণ প্রকল্প (২য় পর্ব) এর আওতায় দ্রুত বর্জ্য নিষ্কাশন প্ল্যান্ট পুনঃস্থাপনের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করা হয়।

বৈঠকে সারভাইক্যাল ক্যান্সারের ভ্যাকসিন সরকারি ব্যবস্থাপনায় মহিলাদের বিনামূল্যে প্রদানের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করা হয়।

পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব, বাস্তবায়ন, পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগের সচিব, পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের সচিব, স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের সচিব, স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সচিব, গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সচিব, বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর মহাপরিচালকসহ মন্ত্রণালয় এবং  জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।  

করোনার টিকা সাধারণ মানুষকে পৌঁছে দেওয়ার সুপারিশ
                                  

অক্সফোর্ড অ্যাস্ট্রাজেনেকার করোনাভাইরাসের টিকা জেলা সরকারি হাসপাতাল এবং উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মাধ্যমে নির্ধারিত অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে সাধারণ মানুষকে পৌঁছে দিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করা হয়েছে।বুধবার (১৩ জানুয়ারি) সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় সংসদের ‘পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটি’র ৮ম বৈঠকে এ সুপারিশ  করা হয়। কমিটির সভাপতি আবুল কালাম আজাদ সভাপতিত্ব করেন।

কমিটির সদস্য পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী এম, এ, মান্নান, মেজর (অবঃ) রফিকুল ইসলাম, বীর উত্তম, হাফিজ আহমদ মজুমদার, বীরেন শিকদার, রওশন আরা মান্নান এবং আদিবা আনজুম মিতা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন বৈঠকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়কে (বিএসএমএমইউ) সেন্টার অব এক্সিলেন্সে পরিণতকরণ প্রকল্প (২য় পর্ব) এর আওতায় দ্রুত বর্জ্য নিষ্কাশন প্ল্যান্ট পুনঃস্থাপনের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করা হয়।

বৈঠকে সারভাইক্যাল ক্যান্সারের ভ্যাকসিন সরকারি ব্যবস্থাপনায় মহিলাদের বিনামূল্যে প্রদানের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করা হয়।

পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব, বাস্তবায়ন, পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগের সচিব, পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের সচিব, স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের সচিব, স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সচিব, গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সচিব, বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর মহাপরিচালকসহ মন্ত্রণালয় এবং  জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।  

রূপনগর খাল দিয়ে নৌকায় তুরাগ নদীতে যেতে চাই: ডিএনসিসি মেয়র
                                  

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম বলেছেন, রূপনগর আবাসিক এলাকা থেকে রূপনগর খাল দিয়ে সাংবাদিকদেরকে নিয়ে নৌকায় তুরাগ নদীতে যেতে চাই। তিনি বুধবার (১৩ জানুয়ারি) রূপনগর খাল পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে একথা বলেন।

এর আগে তিনি ডিএনসিসি কর্তৃক পরিষ্কার করা রূপনগর খাল পাড় দিয়ে হেঁটে প্রায় এক কিলোমিটার পরিদর্শন করেন। পরে রূপনগর আবাসিক এলাকার একটি সড়কের ওপর বাচ্চাদের সাথে কিছুক্ষণ ক্রিকেট খেলেন। পরে রূপনগর খালের পাড়ে একটি আম গাছের চারা রোপণ করেন।

খাল পুরোপুরি পরিষ্কার হলে এলাকাবাসীর বিভিন্ন সুবিধার কথা তুলে ধরে মেয়র বলেন, এই এলাকায় বেশ কিছু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আছে। এখানে মনিপুর স্কুল, কমার্স কলেজ এবং একটি বিশ্ববিদ্যালয়সহ আরো শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আছে। শিক্ষার্থীদের যাতায়াতের সময় মেইন রোডের ওপর চাপ পড়ে। রূপনগর খালের পাশে ওয়াক ওয়ে এবং সাইকেল লেন করতে পারলে সবাই যাতায়াত করতে পারবে। এজন্য আমরা এখানে ওয়াক ওয়ে এবং সাইকেল লেন করবো। সবুজায়নের জন্য ইতিমধ্যে গাছ লাগানো হয়েছে।

খাল পাড়ে থাকা সকল অবৈধ স্থাপনা নিজ উদ্যোগে সরিয়ে নেওয়ার আহ্বান জানান ডিএনসিসি মেয়র। অন্যথায় এলাকাবাসীদের সঙ্গে নিয়ে অবৈধ দখল উচ্ছেদ করা হবে বলেও হুঁশিয়ারি দেন তিনি। আগামী মার্চ থেকে ডিএনসিসির হোল্ডিং ট্যাক্স অনলাইনে বাসায় বসেই দেওয়া যাবে বলেও জানান মেয়র আতিকুল ইসলাম। পরিদর্শন শেষে মেয়র পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের মাঝে মাস্ক বিতরণ করেন।

পরিদর্শনকালে অন্যান্যের মধ্যে ৭ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর তফাজ্জল হোসেন টেনু, ৬ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর তাইজুল ইসলাম বাপ্পি ডিএনসিসির প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা কমোডর এম সাইদুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

রূপকথার খাল পরিদর্শন করে দুপুর দেড়টায় মেয়র আতিকুল ইসলাম মোহাম্মদপুর বিআরটিসি বাস ডিপো পরিদর্শন করেন। মোহাম্মদপুর বাসস্ট্যান্ডের এই অংশে যানজট কমানোর জন্য বাস ডিপোর সীমানা প্রাচীর ভেঙ্গে সড়ক প্রশ্বস্ত করা হবে বলে তিনি জানান। বিআরটিসি চেয়ারম্যান মো. এহছানে এলাহী, ৩১ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর শফিকুল ইসলাম সেন্টু ও ৩৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আসিফ আহমেদ এ সময় উপস্থিত ছিলেন। তারপর ৩১ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর শফিকুল ইসলাম সেন্টু ও ৩৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আসিফ আহমেদকে সাথে নিয়ে ডিএনসিসি মেয়র তাজমহল ঈদগাহ মাঠ ও শহীদ পার্ক মাঠ পরিদর্শন করেন। 

আজ পৌষ সংক্রান্তি, ঘুড়িতে ছেয়ে যাবে ঢাকার আকাশ
                                  

১৪২৭ বঙ্গাব্দের ৩০ পৌষ আজ। পৌষের শেষ দিন মানেই পৌষ সংক্রান্তি। এই দিনটিও উৎসবের। এ উৎসব সাকরাইন নামে উদযাপিত হয়। কেবল গ্রামই নয়, এই দিনে নানা আয়োজনে মেতে ওঠে পুরনো ঢাকাও। বিভিন্ন বাসাবাড়িতে পিঠাপুলির আয়োজন করা হয়। ঘুড়ি ওড়ানো, আতশবাজি, পটকা ফোটানো এসব থাকে এ উৎসবে।

মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নুর তাপসের নির্দেশে এই ঘুড়ি উৎসব করছে ডিএসসিসির ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক বিষয়ক স্থায়ী কমিটি।

‘এসো ওড়াই ঘুড়ি, ঐতিহ্য লালন করি’ প্রতিপাদ্যে আয়োজিত উৎসবে ঢাকা দক্ষিণের ৭৫টি সাধারণ ওয়ার্ড ও ২৫টি সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ডের মোট ১০০ জন কাউন্সিলরকে ১০০টি করে ১০ হাজার ঘুড়ি সরবরাহ করেছে ডিএসসিসি। এর বাইরেও প্রতিবারের মতো ব্যাক্তি উদ্যোগেও উড়বে হাজার হাজার ঘুড়ি। বেলা ২টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত সেগুলো উড়বে ঢাকার আকাশে। মাঠ কিংবা বাড়ির ছাদে ছাদে দেখা যাবে ছোট ছোট সমাবেশ।

পৌষ সংক্রান্তি উপলক্ষে হয়তো এখনো কোথাও কোথাও মেলার নজির রয়ে গেছে।  বিভিন্ন নামে অনুষ্ঠিত হয় এসব মেলা। ঢাকার ধামরাইয়ে বংশী নদীর তীরে ‘বুড়াবুড়ির মেলা’ বসার ঐতিহ্য বহু পুরনো। পৌষের কনকনে শীত ও ঘন কুয়াশা উপেক্ষা করে শিশু-কিশোর ও হাজারো নারী-পুরুষ সমবেত হয় এ মেলায়। নানা খাবারের পসরা নিয়ে বসেন দোকানি। দিনভর মেলায় চলে পিঠা উৎসব, ঘুড়ি ওড়ানো, পটকা ফুটানো। 

যুক্তরাজ্যফেরত যাত্রীদের কোয়ারেন্টাইন কমে চার দিন
                                  

যুক্তরাজ্য থেকে ফেরা যাত্রীদের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইনের সময় কমে চার দিন করা হয়েছে। ১৩ জানুয়ারি স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে জারি করা নির্দেশনায় এ সিদ্ধান্ত জানানো হয়েছে। এর আগে বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইনের মেয়াদ ছিল ১৪ দিন।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরামর্শে ১ জানুয়ারি থেকে ১৫ জানুয়ারি পর্যন্ত যুক্তরাজ্য ফেরত প্রত্যেক যাত্রীকে বাধ্যতামূলকভাবে সরকারি কোয়ারেন্টাইন সেন্টার বা নিজ খরচে সরকার নির্ধারিত হোটেলে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশনা দিয়েছিল বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক)।

ব্যবস্থাগুলো হলো : যুক্তরাজ্য থেকে আসা সকল যাত্রীদের সরকার নির্ধারিত হোটেলে কমপক্ষে চার দিনের জন্য বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। হোটেলের সকল খরচ যাত্রী নিজেই বহন করবেন। কোন যাত্রী হোটেলে থাকতে অপারগ হলে সরকারি ব্যবস্থাপনায় নির্ধারিত সেন্টারে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইন করা হবে।

চারদিন পর কোভিড-১৯ পিসিআর পরীক্ষার জন্য নমুনা পাঠানো হবে। কোভিড-১৯ পিসিআর পরীক্ষার ফলাফল নেগেটিভ হলে মোট ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইন সম্পন্ন করার জন্য প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইন থেকে হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হবে। কোভিড-১৯ পিসিআর পরীক্ষার ফলাফল পজিটিভ হলে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইন থেকে সরকার নির্ধারিত হাসপাতালে আইসোলেশনে পাঠানো হবে। হাসপাতালের সকল খরচ যাত্রী নিজেই বহন করবেন।

সিরাজুল আলম খান হাসপাতালে ভর্তি
                                  

স্বাধীনতা সংগ্রাম ও সশস্ত্রযুদ্ধের প্রধান সংগঠক এবং ‘নিউক্লিয়াস-বিএলএফ’র প্রতিষ্ঠাতা সিরাজুল আলম খান অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। বুধবার (১৩ জানুয়ারি) রাতে রাজধানীর জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউটে তাকে ভর্তি করা হয়। সেখানে পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে চিকিৎসকদের পরামর্শে রাত ১২টায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। সিরাজুল আলম খানের ছোট ভাই ফেরদৌস আলম খান গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, সন্ধ্যায় অসুস্থ বোধ করলে সিরাজুল আলম খানকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তিনি বর্তমানে হাসপাতালের সিসিইউতে চিকিৎসাধীন আছেন। ৮০ বছর বয়সী সিরাজুল আলম খান উচ্চ রক্তচাপসহ নানা শারীরিক জটিলতায় ভুগছেন।

এর আগে ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে শ্বাসকষ্টজনিত কারণে দুবাই হাসপাতালে ভর্তি হন সাবেক এই ছাত্রনেতা ও রাজনীতিবিদ। নিউইয়র্ক থেকে দেশে ফেরার পথে বিমানে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে হাসপাতালের ইমার্জেন্সিতে নেয়া হয় এবং সেখান থেকে সিসিইউতে নেয়া হয়। ফলোআপ চিকিৎসার জন্য ২০১৯ সালের ৩১ জুলাই নিউইয়র্ক যান সিরাজুল আলম খান।

শ্রমিক লীগ নেতা মোতাহারের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক
                                  

জাতীয় পাটকল শ্রমিক লীগ সভাপতি এবং জাতীয় শ্রমিক লীগের সাবেক কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা সরদার মোতাহার উদ্দিনের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। বুধবার (৬ জানুয়ারি) এক শোক বার্তায় প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এই বীর মুক্তিযোদ্ধা সবসময় শ্রমিকদের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য সংগ্রাম করেছেন।’

বঙ্গবন্ধু পরিবার ক্রীড়ানুরাগী পরিবার : নৌ প্রতিমন্ত্রী
                                  

বঙ্গবন্ধু পরিবারের মতো ক্রীড়ানুরাগী পরিবার পৃথিবীতে দ্বিতীয়টি নেই বলে মন্তব্য করেছেন নৌ পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী। তিনি বলেন, পৃথিবীতে অনেক রাজনৈতিক পরিবার আছে, কিন্তু বঙ্গবন্ধু পরিবারের মতো ক্রীড়ানুরাগী পরিবার আরেকটি খুঁজে পাওয়া যাবে না। বুধবার (৬ জানুয়ারি) ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল ডিগ্রি কলেজ মাঠে খেলোয়াড় কল্যাণ সমিতি আয়োজিত বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট ফাইনাল খেলার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন- বঙ্গবন্ধু নিজেও খেলোয়াড় ছিলেন, তার পরিবারের শেখ কামাল শেখ জামালসহ অনেকেই খেলোয়াড় ছিলেন বলেই বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গনে অভূতপূর্ব জাগরণ সৃষ্টি হয়েছে। প্রতিমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু ঢাকা ওয়ান্ডারার্সের হয়ে ফার্স্ট ডিভিশন খেলেছেন। শেখ কামাল তিনিও খেলোয়াড় ছিলেন। তিনি সাংস্কৃতিক অনুরাগী ছিলেন। আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও ক্রীড়া অনুরাগী। যিনি আমাদের খেলোয়াড়দের অনুপ্রাণিত করতে মাঠে চলে যান। বঙ্গবন্ধুর পরিবার যেভাবে ক্রীড়া অনুরাগী এবং ক্রীড়ার সঙ্গে যুক্ত, সারাবিশ্বে দ্বিতীয় এমন কোন রাজনৈতিক পরিবার নেই।

অনুষ্ঠানে খেলোয়াড় কল্যাণ সমিতির সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য অধ্যাপক ইয়াসীন আলী’র সভাপতিত্বে  ঠাকুরগাঁও-৩ আসনের সংসদ সদস্য জাহিদুর রহমান, জেলা প্রশাসক ড. কে এম কামরুজ্জামান সেলিম, পুলিশ সুপার জাহাঙ্গীর হোসেন, সংরক্ষিত আসনের সাবেক সংসদ সদস্য সেলিনা জাহান লিটা, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক দীপক কুমার রায়, সাংগঠনিক সম্পাদক মাজাহারুল ইসলাম সুজন, বাফুফে সদস্য আরিফ হোসেন মুনসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা ও জনপ্রতিনিধিগণ উপস্থিত ছিলেন।

এইদিন নির্ধারিত সময়ে অমিমাংসিত থাকায় খেলা গড়ায় টাইব্রেকারে। নীলফামারী আশির উদ্দীন ফুটবল একাডেমি ৪-৩ গোলে রাণীশংকৈল খেলোয়াড় কল্যাণ সমিতিকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে। প্রতিমন্ত্রী চ্যাম্পিয়ন ও রানার্সআপ দুই দলের খেলোয়াড়দের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন। এর আগে প্রতিমন্ত্রী আলী আকবর মেমোরিয়াল অটিস্টিক প্রতিবন্ধী স্কুলের অভিভাবক সমাবেশ প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। 

বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের নতুন সচিবের দায়িত্বগ্রহণ
                                  

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের নতুন সচিব মো. মোকাম্মেল হোসেন দায়িত্বগ্রহণ করেছেন। বৃহস্পতিবার (৭ জানুয়ারি) তি‌নি এ দা‌য়িত্ব নেন। পরে তিনি মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের সঙ্গে এক পরিচিতি সভায় অংশ নেন। মন্ত্রণালয় ও এর অধীনস্থ দফতর ও সংস্থার সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীরা নতুন সচিবকে অভিনন্দন জানিয়েছেন।

মো. মোকাম্মেল হোসেন দশম বিসিএস প্রশাসন ক্যাডারের সদস্য। এর আগে তিনি জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (এপিডি) হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। গত ২৪ ডিসেম্বর তাকে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব হিসেবে পদায়ন করা হয়। বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের আগের সিনিয়র সচিব মো. মহিবুল হক তার চুক্তির মেয়াদ পূর্ণ করে অবসরে গেছেন।

কর্মজীবনে মোকাম্মেল হোসেন বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ে সহকারী সচিব ও যুগ্ম-সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। এর আগে তিনি মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়, খাদ্য মন্ত্রণালয়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, সড়ক ও যোগাযোগ মন্ত্রণালয়, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় এবং অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগে দায়িত্ব পালন করেছেন।

তিনি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিবের একান্ত সচিব হিসাবেও দায়িত্ব পালন করেছেন। মোকাম্মেল হোসেন দেশের বাইরে সিঙ্গাপুরে বাংলাদেশ হাইকমিশনে প্রথম সচিব (শ্রম) হিসেবে এবং জেদ্দাস্থ বাংলাদেশ কনসুলেট জেনারেল কার্যালয়ে কাউন্সেলর (শ্রম) পদে দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এসডিজি কো-অর্ডিনেটর অফিসে অতিরিক্ত সচিব (এসডিজি) পদেও দায়িত্ব পালন করেন।

মোকাম্মেল হোসেন ১৯৬৪ সালের ১ জানুয়ারি ঢাকায় জন্মগ্রহণ করেন। তিনি মোহাম্মদপুর সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় হতে ১৯৭৯ সালে এসএসসি এবং ১৯৮১ সালে ঢাকা কলেজ হতে এইচএসসি পাশ করেন। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় হতে ১৯৮৪ সালে অর্থনীতিতে সম্মানসহ স্নাতক ডিগ্রি এবং ১৯৮৫ সালে একই বিষয়ে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন। পরবর্তীতে সিঙ্গাপুরের নানিয়াং টেকনোলজিকাল বিশ্ববিদ্যালয় হতে এমবিএ ডিগ্রি অর্জন করেন। এছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের মেসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি (এমআটি) হতে ইন্টারন্যাশনাল অ্যাডভান্সড ম্যানেজমেন্ট প্রোগ্রাম এবং নর্থ ক্যারলিনার ডিউক বিশ্ববিদ্যালয় হতে পেশাগত উন্নয়ন দক্ষতাবিষয়ক কোর্স সম্পন্ন করেন।

তিনি জেদ্দাস্থ বাংলাদেশ কনসুলেট জেনারেল কার্যালয়ে কাউন্সেলর (শ্রম) পদে দায়িত্ব পালনকালে শ্রেষ্ঠ লেবার কাউন্সেলর হিসাবে ‘স্পেশাল পারফরমেন্স অ্যাওয়ার্ড’ লাভ করেন। সরকারি দায়িত্ব পালনের অংশ হিসেবে মোকাম্মেল হোসেন যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, সিঙ্গাপুর, সৌদি আরব, নিউজিল্যান্ড, স্পেনসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশ সফর করেছেন।

‘১০ হাজারের বেশি কর্মী থাকলে দূতাবাসে শ্রম উইং খোলা হবে’
                                  

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘যেসব দেশে ১০ হাজারেরও বেশি অভিবাসী রয়েছেন সেসব দেশে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসে পর্যায়ক্রমে শ্রম উইং খোলা হবে। যেন যেকোনও সমস্যা হলে তারা সেখানে যেতে পারেন ও সমস্যার সমাধান করতে পারেন। এছাড়া বিভিন্ন দেশে নিজস্ব চ্যান্সেরি ভবন নির্মাণ করা হচ্ছে, যাতে কর্মীরা সেখানে বসতে পারেন এবং সহজেই সমস্যার সমাধান পেতে পারেন।’

বুধবার (৬ জানুয়ারি) আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস উপলক্ষে অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় রাজধানীর আগাঁরগাওয়ে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

তিনি বলেন, ‘এ লক্ষ্যে প্রতিটি উপজেলায় একটি করে কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র স্থাপনের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। আগের ৭০টিসহ আরও নতুন ৪০টি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র স্থাপনের কাজ সম্পন্ন হয়েছে। আরও ১০০টি নির্মাণের প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে।’

দেশের অর্থনীতিকে সচল রাখা ও ফরেন রিজার্ভ বৃদ্ধি করার ক্ষেত্রে প্রবাসী কর্মীরা গুরত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে মন্তব্য করে তিনি অভিবাসনের সাথে জড়িত সংশ্লিষ্ট সকলকে অধিকতর দায়িত্বশীল হওয়ার আহ্বান জানান।

প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন মন্ত্রণালয়ের সচিব ড.আহমেদ মুনিরুছ সালেহীন। অনুষ্ঠানে প্রবাসী কর্মীদের সন্তানদের শিক্ষাবৃত্তির চেক প্রদান ও সিআইপি (এনআরবি) সনদ প্রদান করা হয়।

নতুন গ্যাস সংযোগ আর নয়, অগ্রিম টাকাও ফেরত দেবে তিতাস
                                  

তিন বছর আগে ডেমরার কোনাপাড়ায় ছয়তলা একটি বাড়ির নির্মাণকাজ শুরু করেছিলেন আফজাল হোসেন। সেই নির্মাণাধীন বাড়ির জন্য তখন গ্যাস সংযোগ চেয়ে তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডে আবেদন করেন তিনি। সে সময় ডিমান্ড নোটের টাকাও জমা দিয়েছিলেন আফজাল। কিন্তু এখনো গ্যাস সংযোগ পাননি। উল্টো তিতাস এলাকায় আর কোনো নতুন সংযোগ না দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে জ্বালানি বিভাগ।

আফজাল জানান, দুই বছর আগে বাড়ি নির্মাণের কাজ শেষ হয়েছে। কিন্তু গ্যাস সংযোগ না থাকায় ফ্ল্যাট ভাড়া দিতে পারছেন না। কবে গ্যাস দেয়া হবে, তাও স্পষ্ট করে বলছে না তিতাস কর্তৃপক্ষ। অথচ ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়ে ওই বাড়ি তৈরি করা হয়েছে। ব্যাংকের সুদের টাকা দিতে না পারলে তারা বাড়িই নিয়ে যাবে।

যদিও টাকা জমা দিয়ে কেউ কেউ আশা করেছিলেন, ভবিষ্যতে হয়তো সরকার আবার গ্যাস সংযোগ দিলে তারা আগ্রাধিকার পাবেন। এখন সে সম্ভাবনাটাও শেষ হয়ে গেছে।

জানা যায়, গ্যাস-সংকটের কারণে ২০০৯ সালের ২১ এপ্রিল থেকে সারাদেশে নতুন আবাসিক গ্যাস সংযোগ বন্ধের নির্দেশ দেয় জ্বালানি বিভাগ। ২০১১ সালের ৩ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রীর জ্বালানি বিষয়ক উপদেষ্টার নেতৃত্বে নতুন গ্যাস সংযোগের জন্য একটি কমিটি গঠন করা হয়। সেই কমিটিতে যাচাই-বাছাই করে নতুন সংযোগ দেয়া হতো। ২০১৩ সালের শেষ দিকে কিছু সংযোগ দেয়া হয়েছিল। তবে ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচনের পর জ্বালানি বিভাগ থেকে মৌখিকভাবে আবাসিকে গ্যাস সংযোগ দিতে মানা করা হয়।

গত বছরের ২১ মে আনুষ্ঠানিকভাবে বিজ্ঞপ্তি জারি করে তিতাসের আবাসিক, বাণিজ্যিক এবং সিএনজি সংযোগ দেয়া বন্ধ করে দেয় জ্বালানি বিভাগ। সবশেষ গত ৩০ ডিসেম্বর রাজধানীর কারওয়ান বাজারে তিতাসের প্রধান কার্যালয়ে নতুন গ্যাস সংযোগের বিষয়ে জানতে গিয়েছিলেন মোহাম্মদপুর বছিলার বাসিন্দা কামরান পারভেজ। আলাপকালে তিনি জাগো নিউজকে জানান, বছিলায় তার একটি চারতলা নতুন বাড়িতে আটটি ফ্ল্যাট রয়েছে। তিতাসের সংযোগ না পাওয়ায় সবাইকে ঝুঁকিপূর্ণ সিলিন্ডার ব্যবহার করতে হচ্ছে। সংসারে খরচও বেশি হচ্ছে। তাই গ্যাস সংযোগের জন্য চেষ্টা করছেন তিনি। কিন্তু তিনি কোনোভাবেই সংযোগ পাচ্ছেন না।

রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান তিতাস বৃহত্তর ঢাকা, ময়মনসিংহ ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া অঞ্চলে গ্যাস সঞ্চালন ও বিতরণ ব্যবস্থা নিয়ন্ত্রণ করে থাকে। গ্যাস মজুদ কম থাকায় নতুন সংযোগ দেয়া না হলেও এই এলাকায় প্রায় পৌনে তিন লাখ গ্রাহক অবৈধভাবে সংযোগ নিয়েছেন। এখন এসব অবৈধ লাইন বিচ্ছিন্ন, রাজধানীতে গ্যাস লাইন সংস্কার, গ্যাস অপচয় রোধে মিটার স্থাপনে গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

এ বিষয়ে জানতে তিতাসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) আলী ইকবাল নুরুল্লাহর মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল দেয়া হলেও তার সাড়া মেলেনি। তবে তিতাসের জনসংযোগ কর্মকর্তা মির্জা মাহবুব হোসেন বলেন, ‘২০১৯ সাল থেকেই আবাসিকে গ্যাসের সংযোগ দেয়া বন্ধ রয়েছে। ভবিষ্যতে গ্যাসের সরবরাহ বা মজুত বাড়লে নতুন সংযোগ দেয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে পারে জ্বালানি বিভাগ।’

২০২০ সালে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৪৯৬৯
                                  

২০২০ সালে সড়ক দুর্ঘটনায় ৪ হাজার ৯৬৯ জন নিহত হয়েছেন আর আহত হয়েছেন ৫ হাজার ৮৫ জন আহত হয়েছেন। এ সময় মোট ৪০৯২টি সড়ক দুর্ঘটনা ঘটেছে। বুধবার (৬ জানুয়ারি) জাতীয় প্রেসক্লাবে সড়ক দুর্ঘটনার এ পরিসংখ্যান উপস্থাপন করেন নিরাপদ সড়ক চাইয়ের (নিসচা) প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান ইলিয়াস কাঞ্চন।এসময় জানানো হয়, ২০২০ সালে রেলপথের দুর্ঘটনায় ১২৯ জন নিহত ও ৩১ জন আহত হন আর নৌপথের দুর্ঘটনায় ২১২ জন নিহত ও ১০০ জন আহত বা নিখোঁজ হন।

নিসচার প্রকাশিত তথ্যে উঠে এসেছে, গত বছরের জানুয়ারি মাসে বেশি ৪৪৭টি দুর্ঘটনা ঘটে। এতে ৪৯৫ জন নিহত ও ৮২৩ জন আহত হন। আর এপ্রিল ও মে মাসে সবচেয়ে কম যথাক্রমে ১৩২ ও ১৯৬টি দুর্ঘটনা ঘটে। এর পেছনের কারণ হিসেবে বলা হয়, করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে দেশে লকডাউন থাকায় দুর্ঘটনা কম হয়েছে। ইলিয়াস কাঞ্চন লিখিত বক্তব্যে জানান- ঢাকা, চট্টগ্রাম ও ময়মনসিংহ এলাকায় বেশি দুর্ঘটনা ঘটেছে। আর পার্বত্য চট্টগ্রাম (রাঙামাটি, খাগড়াছড়ি ও বান্দরবান) এলাকায় কম দুর্ঘটনা ঘটে।

তিনি দাবি করেন, এসব এলাকায় চালকরা তুলনামূলক কম গতিতে নিয়ন্ত্রণে রেখে যানবাহন চালানোর কারণে দুর্ঘটনা কম হয়েছে। আর সড়ক দুর্ঘটনার পেছনের কারণ হিসেবে তিনি উল্লেখ করেন- সড়কের সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা ও মনিটরিংয়ের অভাব, টাস্কফোর্স কর্তৃক প্রদত্ত ১১১টি সুপারিশনামা বাস্তবায়ন না হওয়া, চালকদের মধ্যে প্রতিযোগিতা ও বেপরোয়া গাড়ি চালানোর প্রবণতা, দৈনিক চুক্তিভিত্তিক গাড়ি চালানো, লাইসেন্স ছাড়া চালক নিয়োগ, পথচারীদের মধ্যে সচেতনতার অভাব, ট্রাফিক আইন ভঙ্গ করে ওভারটেকিং করা, বিরতি ছাড়াই দীর্ঘসময় ধরে গাড়ি চালানো, ফিটনেসবিহীন গাড়ি চালানো বন্ধে আইনের প্রয়োগ না থাকা, সড়ক ও মহাসড়কে মোটরসাইকেল ও তিন চাকার গাড়ি বৃদ্ধি, মহাসড়কের নির্মাণ ত্রুটি, একই রাস্তায় বৈধ ও অবৈধ এবং দ্রুত ও শ্লথ যানবাহন চলাচল এবং রাস্তার পাশে হাটবাজার ও দোকানপাট থাকা।

সড়ক আইনের সঠিক বাস্তবায়ন হলে সড়ক নিরাপদ হয়ে উঠবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। সংগঠনটির যুগ্ম মহাসচিব লিটন এরশাদের সঞ্চালনায় এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন মহাসচিব সৈয়দ এহসানুল হক কামাল, সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম আজাদ ও সদস্য আজাদ প্রমুখ।

তাপমাত্রা আরও বাড়বে, শৈত্যপ্রবাহ আসছে ৭ দিন পর
                                  

পৌষের শেষ সময়ে তাপমাত্রা আরও কিছুটা বেড়েছে। আগামী ৬-৭ দিন শীত কমার এই ধারা অব্যাহত থাকতে পারে। এরপরই শৈত্যপ্রবাহ শুরু হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর। বুধবার (৬ জানুয়ারি) সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে নওগাঁর বদলগাছীতে ১১ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ঢাকার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৫ দশমিক ৩ থেকে বেড়ে হয়েছে ১৫ দশমিক ৫ ডিগ্রি। দেশের অন্যান্য অঞ্চলেও তাপমাত্রা বেড়েছে। গত মঙ্গলবার দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছিল শ্রীমঙ্গলে ১০ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বুধবার পৌষের ২২ তারিখ। প্রায় সারাদেশের মেঘহীন গভীর নীল আকাশে রোদের খেলা। পৌষের এই সময়ে শীত না বেড়ে কেন কমছে- জানতে চাইলে আবহাওয়াবিদ আব্দুর রহমান খান জাগো নিউজকে বলেন, ওয়েস্টারলির (পশ্চিমা লঘুচাপ) প্রভাবে শীতকালে এক ধরনের বৃষ্টি হয়। এরপর তাপমাত্রাটা বেশি কমে যায়। কিন্তু এবার প্রকৃতিকে সেই বৃষ্টি হওয়ার মতো পরিস্থিতি তৈরি হয়নি।

তিনি আরও বলেন, ভূমধ্যসাগরে পশ্চিমা লঘুচাপের সৃষ্টি হয়। এরপর এটি পাকিস্তান, আফগানিস্তান, ভারত ও হিমালয়ের পাদদেশ দিয়ে আমাদের দেশে আসে। একটা ফ্লো আমাদের এদিকে থাকে। এবার সেটা স্ট্রংলি হয়নি। দিল্লি পর্যন্ত গেলেও বাংলাদেশে আসেনি। তাই শীতে এবার বৃষ্টি নেই।

jagonews24

এই আবহাওয়াবিদ বলেন, রংপুর অঞ্চলে হালকা মেঘ দেখা যাচ্ছে, সেখানে হালকা বৃষ্টির পূর্বাভাস দেয়া হয়েছে। তবে বৃষ্টি না হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি দেখা যাচ্ছে। এবার শীতে তুলনামূলক তাপমাত্রা একটু বেশি বলেও জানান আবহাওয়াবিদ আব্দুর রহমান। তিনি আরও বলেন, আগামী সপ্তাহের শেষের দিকে ১২ বা ১৩ জানুয়ারির পর থেকে দু-এক জায়গায় বিশেষ করে উত্তরাঞ্চল থেকে শৈত্যপ্রবাহ শুরু হতে পারে। মোটামুটি এক সপ্তাহের পর থেকে তাপমাত্রা কমে শৈত্যপ্রবাহ শুরু হবে। ওই সময় পর্যন্ত তাপমাত্রা একটু একটু করে বাড়বে। হঠাৎ কমে গিয়ে আবার বেড়ে যেতে পারে। কিন্তু তেমন কোনো পরিবর্তন হবে না। বুধবার সকাল ৯টা থেকে আগামী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারাদেশের আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে। তবে রংপুর বিভাগের দু-এক জায়গায় হালকা বা গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত সারাদেশে হালকা থেকে মাঝারি ধরনের কুয়াশা পড়তে পারে। এ সময় সারাদেশে রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে। দেশের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে দিনের তাপমাত্রা সামান্য কমতে পারে এবং অন্যত্র তা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

দক্ষ হয়ে বিদেশ যাওয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর
                                  

দক্ষ হয়ে বিদেশে যাওয়ার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, অন্ধের মতো বিদেশ ছুটলে দালালদের খপ্পরে পড়তে হয়। বুধবার (৬ জানুয়ারি) সকালে আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে তিনি এ আহ্বান জানান। প্রধানমন্ত্রী গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ‌্যমে অনুষ্ঠানে যোগ দেন। শেখ হাসিনা বলেন, ‘প্রবাসীদের কল‌্যাণে বর্তমান সরকার কাজ করছে। ফিরে আসা প্রবাসীদেরও আত্মকর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করে দিতে হবে।’ 

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘‘এবারের অভিবাসী দিবসের প্রতিবাদ‌্য নির্ধারণ করা হয়েছে ‘মুজিববর্ষের আহ্বান, দক্ষ হয়ে বিদেশ যান।’ খুব চমৎকার একটি প্রতিবাদ‌্য নির্ধারণ করা হয়েছে। বিদেশ যখন যাবেন, কোন কাজে যাচ্ছেন সেটা নির্ধারণ করতে হবে। তার ওপর প্রশিক্ষণ নিতে হবে। আর এই দক্ষতা অর্জনের জন‌্য আমরা কিন্তু যথেষ্ট সুযোগ সৃষ্টি করে দিচ্ছি। দেশের বিভিন্ন জায়গায় ট্রেনিং সেন্টার করে দিচ্ছি।’’

প্রতিটি উপজেলায় একটি করে কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র গড়ে তোলা হবে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘ইতিমধ‌্যে আমরা নতুন করে ১০০টি কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র গড়ে তোলার প্রকল্প হাতে নিয়েছি।’ করোনার কারণে যারা দেশে ফিরে এসেছে তাদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘আপনারা ঋণ নিয়ে ব‌্যবসা-বাণিজ‌্য করতে পারেন। হতাশ না হয়ে নিজেরা নিজের দেশে কাজ করেন।’

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ‘মুজিববর্ষে প্রতিটি ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেবো। ইতিমধ‌্যে ৯৯ ভাগ মানুষ বিদ্যুৎ পেয়েছে। আর সেই সাথে দেশের একটি মানুষও গৃহহীন থাকবে না। যাদের ভূমি নেই, ঘর নেই তাদের আমরা ঘর করে দেবো। যাতে আত্মমর্যাদার সঙ্গে তারা বাঁচতে পারে।’  

ফাইভ-জি বাস্তবায়নের আগে শ্রমিকদের প্রযুক্তি জ্ঞান জরুরি
                                  

পঞ্চম প্রজন্মের দ্রুতগতির ইন্টারনেট প্রযুক্তি চালু হলে, বর্তমান পাটকল ও চিনিকল শ্রমিকদের প্রায় ৯৫ শতাংশ কাজ হারাবে বলে মনে করে বাংলাদেশ মুঠোফোন গ্রাহক অ্যাসোসিয়েশন।  তাই ফাইভ-জি বাস্তবায়নের আগে রাষ্ট্রীয় শিল্প কারখানার শ্রমিকদের প্রযুক্তিতে প্রশিক্ষিত করা প্রয়োজন।

মঙ্গলবার (৫ জানুয়ারি) গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে সংগঠনের সভাপতি মহিউদ্দিন আহমেদ বলেন, সরকার চলতি বছর পঞ্চম প্রজন্মের ইন্টারনেট চালু করতে যাচ্ছে।  এরই মধ্যে দুই হাজার ৬০০ ও সাড়ে তিন হাজার ব্র্যান্ডের তরঙ্গের ব্লক ও মূল্য নির্ধারণ করার লক্ষ্যে ফাইভ-জি কমিটি কাজ করছে। সরকারের লক্ষ্য ফাইভ-জি আপাতত ব্যবহার করা হবে শিল্প ও কলকারখানায়। চতুর্থ শিল্প বিপ্লব মোকাবিলায় সরকার সব শিল্প-কারখানায় ফাইভ-জি সংযোগ দিতে চায়।  এ লক্ষ্যে এরই মধ্যে আইওটি ডিভাইস নির্মাণ প্রতিষ্ঠান তাদের উৎপাদন কার্যক্রম শুরু করতে যাচ্ছে।

তবে বিবৃতিতে বলা হয়, ফাইভ-জি বাস্তবায়নের ফলে এই শিল্প কারখানাগুলোর উৎপাদন ৫০ শতাংশ বাড়বে।  তবে প্রয়োজন হবে প্রযুক্তিতে দক্ষ শ্রমিকের। কিন্তু বর্তমানে যে শ্রমিক ভাইয়েরা কাজ করছেন তাদের মধ্যে প্রায় ৯৫ শতাংশ আধুনিক প্রযুক্তির জ্ঞান সম্পন্ন নয়।  
শ্রমিকদের প্রযুক্তিতে শিক্ষিত করার পাশাপাশি। কাঁচামাল তৈরির ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র শিল্প কারখানা তৈরি করা। এসব শিল্প কারখানায় অনেক শ্রমিকের কর্মসংস্থান সম্ভব। 

ভাসানটেকে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে অভিযান
                                  

রাজধানীর ভাসানটেকে সড়কে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে অভিযান শুরু করেছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি)। মঙ্গলবার (৫ জানুয়ারি) দুপুর ১২টায় ভাসানটেক বাজার থেকে এই অভিযান শুরু হয় বলে ডিএনসিসির জনসংযোগ কর্মকর্তা এ এস এম মামুন জানান।

তিনি জানান, ভাসানটেকের পকেট গেট পর্যন্ত এই অভিযান চলবে। দুপুরে ডিএনসিসির মেয়র মো. আতিকুল ইসলামের উচ্ছেদ অভিযান পরিদর্শনে আসার কথা রয়েছে।এর আগে সোমবার (৪ জানুয়ারি) মিরপুরের ইব্রাহিমপুর খাল পাড়ের অবৈধ স্থাপনা অপসারণ করে ডিএনসিসি।

খাল উদ্ধারে অভিযান শুরু করেছে ডিএনসিসি
                                  

রাজধানী মধ্যে অবস্থিত বিভিন্ন খাল পরিস্কার ও খালপাড় থেকে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে অভিযানে নেমেছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি)। সোমবার (৪ জানুয়ারি) কার্যক্রমের প্রথম দিনে রাজধানীর ইব্রাহিমপুর খাল পরিষ্কার এবং খালপাড় থেকে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান শুরু করা হয়েছে। অভিযানে ডিএনসিসি`র মেয়র আতিকুল ইসলাম সরাসরি অংশ নিয়ে সার্বিক কার্যক্রম তদারকি করছেন।

অভিযান বিষয়ে মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, নদী যেভাবে দখলমুক্ত হয়েছে সেভাবে আমাদের খালগুলোও দখলমুক্ত করা হবে। বর্জ্য অপসারণের পাশাপাশি আমরা খালের পাড় বাঁধাবো, গাছ লাগাবো ও ওয়াকওয়ে নির্মান করবো। কিভাবে মানুষ খালের জায়গা দখল করেছে সেটা দেখাই যাচ্ছে। এসব কোনোভাবেই প্রশ্রয় দেওয়া হবে না। আমরা এলাকাবাসীকে বলে যাচ্ছি সিএস দাগ অনুযায়ী আমাদেরকে এসব ক্লিয়ার করে দিতে হবে, আমরা মহানগরীর জরিপের কাগজ কিন্তু দেখবো না। 


   Page 1 of 60
     জাতীয়
করোনার টিকা সাধারণ মানুষকে পৌঁছে দেওয়ার সুপারিশ
.............................................................................................
রূপনগর খাল দিয়ে নৌকায় তুরাগ নদীতে যেতে চাই: ডিএনসিসি মেয়র
.............................................................................................
আজ পৌষ সংক্রান্তি, ঘুড়িতে ছেয়ে যাবে ঢাকার আকাশ
.............................................................................................
যুক্তরাজ্যফেরত যাত্রীদের কোয়ারেন্টাইন কমে চার দিন
.............................................................................................
সিরাজুল আলম খান হাসপাতালে ভর্তি
.............................................................................................
শ্রমিক লীগ নেতা মোতাহারের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক
.............................................................................................
বঙ্গবন্ধু পরিবার ক্রীড়ানুরাগী পরিবার : নৌ প্রতিমন্ত্রী
.............................................................................................
বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের নতুন সচিবের দায়িত্বগ্রহণ
.............................................................................................
‘১০ হাজারের বেশি কর্মী থাকলে দূতাবাসে শ্রম উইং খোলা হবে’
.............................................................................................
নতুন গ্যাস সংযোগ আর নয়, অগ্রিম টাকাও ফেরত দেবে তিতাস
.............................................................................................
২০২০ সালে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৪৯৬৯
.............................................................................................
তাপমাত্রা আরও বাড়বে, শৈত্যপ্রবাহ আসছে ৭ দিন পর
.............................................................................................
দক্ষ হয়ে বিদেশ যাওয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর
.............................................................................................
ফাইভ-জি বাস্তবায়নের আগে শ্রমিকদের প্রযুক্তি জ্ঞান জরুরি
.............................................................................................
ভাসানটেকে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে অভিযান
.............................................................................................
খাল উদ্ধারে অভিযান শুরু করেছে ডিএনসিসি
.............................................................................................
ক্যামেরা দেখলেই মাস্ক খুলে ফেলা ঠিক না : প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
চট্টগ্রামে ৫ মণ জাটকা জব্দ, এতিমখানায় বিতরণ
.............................................................................................
করোনা ভ্যাকসিন প্রয়োগ নীতিমালা চূড়ান্ত
.............................................................................................
আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলেও পুলিশ প্রশংসনীয় ভূমিকা পালন করছে
.............................................................................................
যুক্তরাজ্য থেকে ফিরলেই ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইন
.............................................................................................
হজ-ওমরাহ ব্যবস্থাপনায় আইন হচ্ছে
.............................................................................................
সাইকেল লেন থেকে পুলিশবক্স উচ্ছেদ করল ডিএনসিসি
.............................................................................................
দুই বোন মিলে নাম দেন ‘ধ্রুবতারা’
.............................................................................................
হুইপ সামশুল হক চৌধুরী করোনায় আক্রান্ত
.............................................................................................
অনলাইন ব্যবস্থাপনার আওতায় বুড়িমারী স্থলবন্দর
.............................................................................................
অভ্যন্তরীণ ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় যোগাযোগ স্থাপিত হবে ‘ধ্রুবতারায়’
.............................................................................................
যুক্তরাজ্যে ছড়ানো করোনা আর বাংলাদেশের করোনা আলাদা: ড. বিজন
.............................................................................................
২৫ শতাংশ শুল্কে চাল আমদানির সিদ্ধান্ত
.............................................................................................
বিশ্বব্যাংককে চ্যালেঞ্জ করে পদ্মা সেতু দৃশ্যমান করেছি: নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী
.............................................................................................
সেনাবাহিনীর সদস‌্যদের জন‌্য উচ্চশিক্ষার ব‌্যবস্থা করেছি
.............................................................................................
গ্রেপ্তার হতে পারেন অর্জুন রামপাল
.............................................................................................
যুক্তরাজ্যের সঙ্গে এখনই ফ্লাইট বন্ধ হচ্ছে না
.............................................................................................
একনেকে ৩৩০৮ কোটি টাকার ৫ প্রকল্প অনুমোদন
.............................................................................................
প্রবাসী মেধাবীদের দেশে ফেরাতে চায় সরকার
.............................................................................................
পাঁচ অঞ্চলে বইছে শৈত্যপ্রবাহ
.............................................................................................
রাজধানীতে গৃহবধূর মৃত্যু
.............................................................................................
সিআইপি নির্বাচিত হলেন ৩৮ প্রবাসী বাংলাদেশি
.............................................................................................
২৬ মার্চের মধ্যে বুদ্ধিজীবীদের পূর্ণাঙ্গ তালিকা প্রকাশ
.............................................................................................
বায়তুল মোকাররমে কাসেমীর জানাজা সম্পন্ন
.............................................................................................
শহীদ বুদ্ধিজীবীদের প্রতি রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা
.............................................................................................
বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙচুরকারীদের চরম মূল্য দিতে হবে: ওবায়দুল কাদের
.............................................................................................
রাজাকারের তালিকার বিধান রেখে মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল আইন অনুমোদন
.............................................................................................
প্রত্যেক জেলায় বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য স্থাপনের দাবি
.............................................................................................
স্বাধীনতার বিরোধীরা ভাস্কর্য ভাঙচুর করেছে
.............................................................................................
পদ্মা সেতুর ৪০তম স্প্যান বসছে শুক্রবার
.............................................................................................
আমিরাতের ভিসা নিষেধাজ্ঞায় কতটা লাভবান হবেন বাংলাদেশিরা
.............................................................................................
পার্বত্য শান্তিচুক্তির ২৩ বছর
.............................................................................................
নভেম্বরে ৩৫৩ নারী ও শিশু নির্যাতনের শিকার
.............................................................................................
আটকে পড়া প্রবাসীদের কাতারে ফেরানোর অনুরোধ
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
সম্পাদক ও প্রকাশক : মো : মাহবুবুর রহমান ।
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মো: হাবিবুর রহমান । সম্পাদক কর্তৃক বিএস প্রিন্টিং প্রেস ৫২/২ টয়েনবি সার্কুলার রোড, সুত্রাপুর ঢাকা খেকে মুদ্রিত
ও ৬০/ই/১ পুরানা পল্টন (৭ম তলা) থেকে প্রকাশিত বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৫১,৫১/ এ রিসোর্সফুল পল্টন সিটি (৪র্থ তলা), পুরানা পল্টন, ঢাকা -১০০০।
ফোনঃ-০২-৯৫৫০৮৭২ , ০১৭১১১৩৬২২৬

Web: www.bhorersomoy.com E-mail : dbsomoy2010@gmail.com
   All Right Reserved By www.bhorersomoy.com Developed By: Dynamic Solution IT & Dynamic Scale BD