ঢাকা,সোমবার,১১ মাঘ ১৪২৭,২৫,জানুয়ারী,২০২১
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * ভারতীয় ক্রিকেটারদের লিফটেও উঠতে দিতো না অস্ট্রেলিয়া!   * রোনালদোর পর মেসিরও ‘না’   * গাপটিলের ক্যাচ দেখে চোখ ছানাবড়া সবার   * কক্সবাজারে ডিউরেবল প্লাস্টিকের পরিবেশক সম্মেলন শুরু   * আল-আরাফাহ ব্যাংকের বার্ষিক ব্যবসা উন্নয়ন সম্মেলন   * অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের নতুন কমিটি   * বিদ্যুৎ সহযোগিতা সংক্রান্ত বাংলাদেশ-ভারত স্টিয়ারিং কমিটির সভা   * পরীক্ষা ছাড়া এইচএসসির ফল প্রকাশে আইন পাস   * যত বাধাই আসুক পিছু হটবে না ডিএনসিসি : মেয়র আতিক   * মাদকসেবীদের জীবনের পরিণতি হয় ভয়াবহ : পররাষ্ট্রমন্ত্রী  

   আর্ন্তজাতিক -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
বাগদাদে আত্মঘাতী বোমা হামলার দায় স্বীকার আইএসের

ইরাকের বাগদাদে বৃহস্পতিবার দুটি আত্মঘাতী বোমা হামলার দায় স্বীকার করেছে সশস্ত্র ইসলামী সংগঠন আইএস (ইসলামিক স্টেট)। হামলায় অন্তত ৩২ জন নিহত ও একশ জন আহত হয়েছেন। খবর বিবিসির। আইএসের সংবাদ সংস্থা আমাকে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, এই হামলার লক্ষ্য ছিল শিয়া মুসলিমরা। গত তিন বছরের মধ্যে বাগদাদে এটিই ছিল সবচেয়ে বড় আত্মঘাতী বোমা হামলা ঘটনা। হামলাকারীরা বাগদাদের তায়ারান স্কয়ারে একটি ব্যবহৃত কাপড়ের দোকানে বোমার বিস্ফোরণ ঘটায়। হামলার কয়েক ঘণ্টা পরে মেসেজ সার্ভিস অ্যাপ টেলিগ্রামের মাধ্যমে দায় স্বীকার করে আইএস।

২০১৭ সালে ইরাকি সরকারের কাছে আইএস পরাজিত হওয়ার পর থেকে বাগদাদে আত্মঘাতী হামলার ঘটনা খুবই বিরল। সংগঠনটি এক সময় পূর্ব ইরাক থেকে পশ্চিম সিরিয়া পর্যন্ত ৮৮ হাজার বর্গ কিলোমিটার জায়গা নিয়ন্ত্রণ করতো এবং সেখানকার অধিবাসীদের ওপর বর্বরতা চালাতো।

গত বছর আগস্টে জাতিসংঘ জানায়, যুদ্ধে হেরে যাওয়ার পরেও আইএসের অন্তত ১০ হাজার যোদ্ধা ইরাক ও সিরিয়ায় সক্রিয় রয়েছে। আইএসের ‘স্লিপার সেল’ প্রধানত গ্রামাঞ্চলে এখনো স্বল্প মাত্রায় সশস্ত্র কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছে এবং নিরাপত্তা বাহিনীই তাদের লক্ষ্যবস্তু।

ইরাকের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার প্রথম হামলাকারী দ্রুত তায়ারান স্কয়ারের কাপড়ের বাজারে ঢুকে পড়ে বং নিজেকে অসুস্থ বলে দাবি করতে থাকে। বাজারের এক বিক্রেতা বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেন, ‘তিনি (হামলাকারী) হাতের ডেটোনেটরে চাপ দেন। এটি সঙ্গে সঙ্গে বিস্ফোরিত হয় ও মানুষজন খণ্ড-বিখণ্ড হয়ে যায়।’ মন্ত্রণালয় জানায়, প্রথম হামলায় আহতদের সাহায্যে অন্যরা এগিয়ে এলে দ্বিতীয় হামলাকারী তার বোমাটি বিস্ফোরিত করে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, করোনাভাইরাসের কারণে প্রায় এক বছর নিষেধাজ্ঞা থাকার পর তায়ারান স্কয়ার আবার ব্যস্ত হয়ে উঠেছিল। বাগদাদে সর্বশেষ আত্মঘাতী বোমা হামলা ঘটেছিল ২০১৮ সালে। তায়ারান স্কয়ারেই চালানো ওই হামলায় ৩৫ জন নিহত হয়েছিলেন।

বাগদাদে আত্মঘাতী বোমা হামলার দায় স্বীকার আইএসের
                                  

ইরাকের বাগদাদে বৃহস্পতিবার দুটি আত্মঘাতী বোমা হামলার দায় স্বীকার করেছে সশস্ত্র ইসলামী সংগঠন আইএস (ইসলামিক স্টেট)। হামলায় অন্তত ৩২ জন নিহত ও একশ জন আহত হয়েছেন। খবর বিবিসির। আইএসের সংবাদ সংস্থা আমাকে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, এই হামলার লক্ষ্য ছিল শিয়া মুসলিমরা। গত তিন বছরের মধ্যে বাগদাদে এটিই ছিল সবচেয়ে বড় আত্মঘাতী বোমা হামলা ঘটনা। হামলাকারীরা বাগদাদের তায়ারান স্কয়ারে একটি ব্যবহৃত কাপড়ের দোকানে বোমার বিস্ফোরণ ঘটায়। হামলার কয়েক ঘণ্টা পরে মেসেজ সার্ভিস অ্যাপ টেলিগ্রামের মাধ্যমে দায় স্বীকার করে আইএস।

২০১৭ সালে ইরাকি সরকারের কাছে আইএস পরাজিত হওয়ার পর থেকে বাগদাদে আত্মঘাতী হামলার ঘটনা খুবই বিরল। সংগঠনটি এক সময় পূর্ব ইরাক থেকে পশ্চিম সিরিয়া পর্যন্ত ৮৮ হাজার বর্গ কিলোমিটার জায়গা নিয়ন্ত্রণ করতো এবং সেখানকার অধিবাসীদের ওপর বর্বরতা চালাতো।

গত বছর আগস্টে জাতিসংঘ জানায়, যুদ্ধে হেরে যাওয়ার পরেও আইএসের অন্তত ১০ হাজার যোদ্ধা ইরাক ও সিরিয়ায় সক্রিয় রয়েছে। আইএসের ‘স্লিপার সেল’ প্রধানত গ্রামাঞ্চলে এখনো স্বল্প মাত্রায় সশস্ত্র কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছে এবং নিরাপত্তা বাহিনীই তাদের লক্ষ্যবস্তু।

ইরাকের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার প্রথম হামলাকারী দ্রুত তায়ারান স্কয়ারের কাপড়ের বাজারে ঢুকে পড়ে বং নিজেকে অসুস্থ বলে দাবি করতে থাকে। বাজারের এক বিক্রেতা বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেন, ‘তিনি (হামলাকারী) হাতের ডেটোনেটরে চাপ দেন। এটি সঙ্গে সঙ্গে বিস্ফোরিত হয় ও মানুষজন খণ্ড-বিখণ্ড হয়ে যায়।’ মন্ত্রণালয় জানায়, প্রথম হামলায় আহতদের সাহায্যে অন্যরা এগিয়ে এলে দ্বিতীয় হামলাকারী তার বোমাটি বিস্ফোরিত করে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, করোনাভাইরাসের কারণে প্রায় এক বছর নিষেধাজ্ঞা থাকার পর তায়ারান স্কয়ার আবার ব্যস্ত হয়ে উঠেছিল। বাগদাদে সর্বশেষ আত্মঘাতী বোমা হামলা ঘটেছিল ২০১৮ সালে। তায়ারান স্কয়ারেই চালানো ওই হামলায় ৩৫ জন নিহত হয়েছিলেন।

ট্রাম্পকে ফোন করার কোনো পরিকল্পনা নেই বাইডেনের
                                  

সাবেক মার্কিন ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ফোন করার কোনো পরিকল্পনা প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের নেই বলে জানিয়েছে হোয়াইট হাউস। বুধবার ট্রাম্প বাইডেনের উদ্দেশ্যে একটি ‘অত্যন্ত উদার’ একটি চিঠি লিখেছেন বলে উল্লেখ করেন বাইডেন। এ প্রেক্ষিতে ট্রাম্পকে ফোন করার পরিকল্পনা বর্তমান প্রেসিডেন্টের আছে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি জেন সাকি বৃহস্পতিবার সাংবাদিকদের বলেন, ‘কল করার কোনো পরিকল্পনা নেই।’ বাইডেনের অভিষেক অনুষ্ঠানে ট্রাম্প উপস্থিত ছিলেন না, যা যুক্তরাষ্ট্রের বিদায়ী প্রেসিডেন্টদের জন্য এক বিরল ঘটনা।

সাকি বলেন, ‘তিনি (বাইডেন) যা বলতে চেয়েছেন তা হল সাবেক প্রেসিডেন্টের অনুমতি ছাড়া তার ব্যক্তিগত চিঠি তিনি প্রকাশ করতে চান না। তবে আমি বলবো না ফোন কলের মাধ্যমে তিনি এই অনুমতি চাইবেন, ব্যক্তিগত যে চিঠিটি পাঠানো হয়েছে সেটির ওপর তিনি শুধু শ্রদ্ধাশীল থাকার চেষ্টা করছিলেন।’

ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের প্রথাগত অনেক নিয়মই রক্ষা করেননি। এর মধ্যে রয়েছে বাইডেনের অভিষেক অনুষ্ঠানে উপস্থিত না থাকা ও তাকে প্রাতিষ্ঠানিকভাবে অভিনন্দন না জানানো। তবে প্রথা অনুযায়ী উত্তরসূরীর জন্য ট্রাম্প নোট রেখে যাবেন কিনা সেটি বুধবার পর্যন্ত অস্পষ্ট ছিল। চিঠি সম্পর্কে বুধবার ওভাল অফিসে বাইডেন বলেন, ‘প্রেসিডেন্ট (ট্রাম্প) অত্যন্ত উদার একটি চিঠি লিখেছেন। তবে যেহেতু এটি ব্যক্তিগত, তাই তার সঙ্গে কথা বলার আগে আমি এ সম্পর্কে কিছু বলব না। তবে এটি উদার ছিল।’

ইন্দোনেশিয়া-ফিলিপাইনে ফের শক্তিশালী ভূমিকম্প
                                  

আবারো শক্তিশালী ভূমিকম্পে কেঁপে উঠলো ইন্দোনেশিয়ার সুলাওয়েসি প্রদেশ ও ফিলিপাইন। রিখটার স্কেলে যেটার মাত্রা ছিল ৭.১। ভূমিকম্পের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে ইন্দোনেশিয়ার আগ্নেয়গিরি কর্তৃপক্ষ। তবে কোনো সুনামি সতর্কতা জারি করা হয়নি। খবর ইন্ডিপিডেন্ট ও আনাদোলু এজেন্সির।

দেশটির আবহাওয়া, জলবায়ু, জিওফিজিক্যাল এজেন্সি জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) স্থানীয় সময় রাত ৭টা ২৩ মিনিটে এই ভূমিকম্প অনুভূত হয়। যেটার ভরকেন্দ্র ছিল সুলাওয়েসি প্রদেশের ১৩৪ কিলোমিটার উত্তর-পূর্ব দিকের মেলোঙ্গুয়ানি শহর। ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল ছিল ভূপৃষ্ঠের ১৫৪ কিলোমিটার গভীরে।

এই কম্পন ফিলিপাইনেও অনুভূত হয়েছে। সেখানে এটার মাত্রা ছিল ৬.৮। সুলাওয়েসি প্রদেশে এই কম্পনের পর মানুষ আতঙ্কিত হয়ে ঘর ছেড়ে বাইরে অবস্থান নেয়। গেল সপ্তাহে শক্তিশালী ভূমিকম্পে ইন্দোনেশিয়ার মামুজু ও মাজনে শহরে ৯০ জনের মৃত্যু হয়েছিল। আহত হয়েছিল ৭ শতাধিক। ৩০ হাজার মানুষকে ঘরবাড়ি ছেড়ে আশ্রয়কেন্দ্রে আশ্রয় নিতে হয়েছিল।

বাইডেন-কমলার অভিষেকে উপস্থাপনা করবেন টম হ্যাঙ্কস
                                  

যুক্তরাষ্ট্রের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও নবনির্বাচিত ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসের অভিষেক অনুষ্ঠানে উপস্থাপনা করবেন হলিউডের কিংবদন্তি অভিনেতা টম হ্যাঙ্কস। এছাড়া ৯০ মিনিটের এই অনুষ্ঠানে গান পরিবেশন করবেন জনপ্রিয় শিল্পী জন বন জোভি, জাস্টিন টিম্বারলেক ও ডেমি লোভাটো। মার্কিন সংবাদমাধ্যমের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা এএফপি এ খবর

জানিয়েছে। এ সম্পর্কে টুইটারে একটি পোস্ট দিয়েছেন ডেমি লোভাটো। সেখানে তিনি লিখেছেন, ‘আমি খুব গর্বের সঙ্গে ঘোষণা করছি যে, জো বাইডেন ও কমলা হ্যারিসের বিশেষ অনুষ্ঠানে আমি তাদের সঙ্গে যোগ দেব।’

২০০৯ সালে বারাক ওবামা যখন প্রথমবার প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন তখন তার অভিষেক অনুষ্ঠানে গান গেয়েছিলেন অ্যারেথা ফ্রাঙ্কলিন। দ্বিতীয়বার নির্বাচিত হওয়ার অভিষেকে ছিলেন জনপ্রিয় গায়িকা বিয়ন্সে। বিনোদন জগতে ট্রাম্পের অজনপ্রিয়তার কারণে ২০১৭ সালে তার অভিষেক অনুষ্ঠানে গান গেয়েছিলেন অপেক্ষাকৃত কম পরিচিত শিল্পীরা। দেশজ গানের শিল্পী টবি কেইথ ছিলেন সেই অনুষ্ঠানে।

ট্রাম্পকে আবারও অভিশংসন
                                  

যুক্তরাষ্ট্রের পার্লামেন্ট ভবন ক্যাপিটলে ‘সহিংসতায় উসকানি’ দেয়ার অভিযোগে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে অভিশংসন করেছে দেশটির প্রতিনিধি পরিষদ। অভিশংসনে রিপাবলিকান দলের সদস্যরাও ডেমোক্র্যাটদের পক্ষে যোগ দিয়েছেন। ২৩২-১৯৭ ভোটে ট্রাম্পকে অভিশংসন করা হয়। খবর বিবিসির।

এর ফলে যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে ট্রাম্পই হলেন একমাত্র প্রেসিডেন্ট যাকে দুইবার অভিশংসন করা হল। এর আগে ২০১৯ সালে ট্রাম্প প্রথমবারের মতো প্রতিনিধি পরিষদে অভিশংসনের সম্মুখীন হন। অভিশংসনের ফলে সিনেটে ট্রাম্পকে বিচারের মুখোমুখি হতে হবে। যদি বিচারে দোষী সাব্যস্ত হন, তাহলে নিজের কার্যালয় তাকে ত্যাগ করতে হতে পারে। তবে আগামী এক সপ্তাহের মধ্যেই ট্রাম্পকে ক্ষমতা হস্তান্তর করতে হবে, এর আগে সিনেট অধিবেশন আবার হবে না। তাই ক্ষমতা ছাড়ার আগে হোয়াইট হাউস ছাড়তে হচ্ছে না ট্রাম্পকে।

ডেমোক্র্যাট নিয়ন্ত্রিত হাউসে বুধবার কয়েক ঘণ্টার বিতর্ক শেষে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। এসময় ক্যাপিটল ভবনের ভেতরে ও বাইরে জাতীয় নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা পাহাড়া দিচ্ছিলেন। এদিকে, বাইডেনের অভিষেকের দিন রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসিসহ ৫০টি অঙ্গরাজ্যে সশস্ত্র বিক্ষোভের আশঙ্কার কথা জানিয়েছে মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআই।

অভিশংসনের পরে ট্রাম্প একটি ভিডিও বার্তা দিয়েছেন। এতে তিনি তার সমর্থকদের শান্ত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন, যদিও অভিশংসিত হওয়ার বিষয়টি তিনি ভিডিওতে উল্লেখ করেননি। ভিডিওতে ট্রাম্প বলেন, ‘আমাদের দেশে সহিংসতা ও ধ্বংসযজ্ঞের কোনো স্থান নেই। আমার সত্যিকার কোনো সমর্থক কখনোই রাজনৈতিক সহিংসতাকে সমর্থন করতে পারে না।’

অভিশংসনে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে রাজনৈতিক অভিযোগ আনা হয়েছে, কোনো অপরাধমূলক অভিযোগ নয়। গত ৬ জানুয়ারি হোয়াইট হাউসের বাইরে একটি র‍্যালিতে ভাষণে ক্যাপিটল ভবনে হামলায় তিনি উসকানি দিয়েছেন এমন অভিযোগ আনা হয়েছে অভিশংসনে। অভিশংসনের নিবন্ধে বলা হয়, ‘ট্রাম্প বারবার মিথ্যা বিবৃতি দিয়েছেন যে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ফলাফলে জালিয়াতি হয়েছে এবং এই ফলাফল গ্রহণযোগ্য নয়।’

সেখানে আরও বলা হয়, ‘প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্র ও এর সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোর নিরাপত্তা গুরুতরভাবে ব্যহত করেছেন, গণতান্ত্রিক পদ্ধতির সততাকে হুমকির মুখে ফেলেছেন, শান্তিপূর্ণভাবে ক্ষমতা হস্তান্তর ব্যহত করেছেন এবং সরকারের সমতুল্য একটি শাখাকে বিপন্ন করেছেন।’

অভিশংসনের নিবন্ধ সিনেটের কাছে হস্তান্তর করা হবে এবং সিনেট একটি বিচারের মাধ্যমে নির্ধারণ করবে প্রেসিডেন্ট দোষী কিনা। ট্রাম্পকে দোষী সাব্যস্ত করতে হলে সিনেটের দুই তৃতীয়াংশ ভোট দরকার হবে। এর মানে হল ডেমোক্র্যাটদের সঙ্গে অন্তত ১৭ জন রিপাবলিকানকেও ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ভোট দিতে হবে।

ট্রাম্পের টুইটার-ফেসবুক অ্যাকাউন্টের ওপর নিষেধাজ্ঞা
                                  

যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেস ভবন ক্যাপিটলে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমর্থকদের হামলার ঘটনায় ট্রাম্পের টুইটার ও ফেসবুক অ্যাকাউন্টের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে। ফেসবুক ঘোষণা করেছে, তারা আগামী ২৪ ঘণ্টা ডোনাল্ড ট্রাম্পের ফেসবুক পেজ থেকে কোনো পোস্ট অনুমোদন করবে না।

টুইটারও ট্রাম্পের অ্যাকাউন্ট ১২ ঘণ্টার জন্য লক করে দিয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ডেমোক্র্যাট নেতা জো বাইডেনের জয়কে স্বীকৃতি দিতে কংগ্রেসের যৌথ অধিবেশনে এ হামলার ঘটনা ঘটে। এতে এক নারী নিহত হয়েছেন। এদিকে, কংগ্রেস ভবনে হামলার ঘটনায় নিন্দা জানিয়েছেন বিশ্ব নেতারা।  

আমেরিকার কংগ্রেস ভবনে হামলা, নিহত ৪
                                  

প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জো বাইডেনের জয় আনুষ্ঠানিকভাবে অনুমোদন করার জন্য অধিবেশন চলার সময় ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমর্থকরা আমেরিকার আইনসভা কংগ্রেস ভবনে হামলা করেছে। এ ঘটনায় চার জন নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (৭ জানুয়ারি) বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আমেরিকার আইন-প্রণেতারা যখন নভেম্বরের রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে জো বাইডেনের জয় আনুষ্ঠানিকভাবে অনুমোদন করার জন্য অধিবেশনে বসেন তখনই ট্রাম্পের শত শত সমর্থক কংগ্রেস ভবন ক্যাপিটলে ঢুকে পড়ে। হামলাকারীরা ভাঙচুর চালায়। তারা পুলিশের ওপর হামলা করে। পুলিশ তাদের সরাতে পুরো ভবন অবরুদ্ধ করে ফেলে। পুলিশ পাহারা দিয়ে আইনপ্রণেতাদের নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেয়।

এদিকে, জো বাইডেন ঘটনাকে একটি ‘বিদ্রোহ’ বলে আখ্যায়িত করেন বলেছেন, ‘ট্রাম্পকে এখনই কোনো জাতীয় টিভি চ্যানেলে গিয়ে এই হিংসা থেকে মানুষকে বিরত থাকতে আহ্বান করা উচিত।’ তবে ট্রাম্প একটি ভিডিও বার্তায় তার সমর্থকদের বাড়ি ফিরে যেতে অনুরোধ করেছেন।

এ ঘটনার পর যৌথ অধিবেশন স্থগিত হয়ে যায়। তবে রাতে আবার তা শুরুর ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। এর আগে জর্জিয়ার দুটি সিনেটের আসন জিতে যায় ডেমোক্র্যাটরা। এর ফলে সিনেট ডেমোক্র্যাটদের নিয়ন্ত্রণে চলে এলো। ডেমোক্রেটিক পার্টির দুই প্রার্থী রাফায়েল ওয়ারনক ও জন ওসফ সিনেটে নির্বাচিত হয়েছেন।

ক্যাপিটলে হামলার পর বিশ্বনেতারা এর তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন। খোদ রিপাবলিকান পার্টির একাধিক গুরুত্বপূর্ণ নেতা এ ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করছেন। নেব্রাস্কার রিপাবলিকান সিনেটর বেন স্যাসি বলেছেন, ‘এটা একটা কুৎসিত দিন।’   

ট্রাম্প না মানলেও বাইডেনের জয় নিশ্চিত করছে কংগ্রেস
                                  

ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমর্থকদের বিক্ষোভ সত্ত্বেও বুধবার নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের জয়কে নিশ্চয়তা দিতে যাচ্ছেন মার্কিন আইনপ্রণেতারা। কংগ্রেসের একটি যৌথ সেশনে আজ ইলেক্টোরাল ভোটগুলো গণনা করে ফলাফল নিশ্চিত করা হবে। খবর বিবিসির। ফলাফল বদলাতে ট্রাম্পের প্রচেষ্টার প্রতি সমর্থন জানিয়েছেন কিছু রিপাবলিকান। সেশনে তারা আনুষ্ঠানিকভাবে বিরোধীতা করবেন বলে প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন। যদিও তাদের এই প্রস্তাব সফল হবে না তা প্রায় নিশ্চিত।এদিকে ট্রাম্পের পরাজয়কে বৈধতা দেয়ার বিরুদ্ধে ওয়াশিংটন ডিসিতে জড়ো হয়ে বিক্ষোভ শুরু করেছেন তার সমর্থকরা। তাদের বিক্ষোভের বিরুদ্ধে পাল্টা বিক্ষোভ শুরু হবে বলেও ধারণা করা হচ্ছে।

গতকাল মঙ্গলবার টুইটারে ট্রাম্প জানিয়েছেন, তিনি ‘সেভ আমেরিকা র‍্যালি’তে বক্তব্য রাখবেন। ৩ নভেম্বরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জালিয়াতির অভিযোগ এনে তিনি ফলাফল মেনে নিতে অস্বীকৃতি জানিয়ে আসছেন। তবে নিজের দাবির পক্ষে কোনো প্রমাণ হাজির করতে পারেননি ট্রাম্প। আগামী ২০ জানুয়ারি নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের অভিষেক হওয়ার কথা রয়েছে।

বুধবার মার্কিন কংগ্রেসের দুটি কক্ষ- প্রতিনিধি পরিষদ ও সিনেট যৌথভাবে একটি সেশন আয়োজন করবে। সেখানে তারা যুক্তরাষ্ট্রের ৫০টি অঙ্গরাজ্যের ইলেক্টোরাল ভোটের রেকর্ড সম্বলিত সনদগুলো খুলবেন।

যুক্তরাষ্ট্রের নিয়ম অনুযায়ী, ভোটাররা তাদের ব্যালটে ‘ইলেক্টর’দের ভোট দেন। এই ইলেক্টররা কয়েক সপ্তাহ পরে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রার্থী নির্বাচন করেন। গত বছরের নির্বাচনে জো বাইডেন ৩০৬টি ও ডোনাল্ড ট্রাম্প ২৩২টি ইলেক্টোরাল ভোট পেয়েছেন। কংগ্রেসের দুটি কক্ষের উভয় দলের প্রতিনিধিরা বুধবার ফলাফল পাঠ করবেন ও আনুষ্ঠানিকভাবে ভোট গণনা করবেন। এদিকে কংগ্রেসের এই পদক্ষেপের বিরুদ্ধে এদিন হাজার হাজার ট্রাম্প সমর্থক ওয়াশিংটন ডিসিতে বিক্ষোভ করবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। এদের মধ্যে কট্টর ডানপন্থী কর্মীরাও রয়েছেন। মঙ্গলবার থেকেই তারা বিক্ষোভ শুরু করেছেন।

অ্যাসোসিয়েটেড প্রেসকে এক বিক্ষোভকারী বলেন, ‘আমি এখানে প্রেসিডেন্টকে সমর্থন জানাতে এসেছি। আমি জানিনা এ মুহূর্তে তিনি আর কী করতে পারবেন কিন্তু তিনি কী বলবেন তা আমি শুনতে চাই।’ বিক্ষোভে ট্রাম্প সমর্থকদের বন্দুক বহন না করতে সতর্ক করে দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

আবারও কঠোর লকডাউনে যুক্তরাজ্য
                                  

করোনাভাইরাসের নতুন ধরনের সংক্রমণ রোধে আবারও লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে যুক্তরাজ্যে। স্থানীয় সময় সোমবার প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন টেলিভিশনে দেয়া এক ভাষণে লকডাউনের এই ঘোষণা দেন। বুধবার থেকে কার্যকর হতে হওয়া এই লকডাইন ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি পর্যন্ত বহাল থাকতে পারে বলে জানিয়েছেন তিনি।

বরিস জনসন বলেন, ‘এটা পরিষ্কার যে করোনার নতুন ধরন নিয়ন্ত্রণে রাখতে আমাদের আরও অনেক কিছু করতে হবে। তার মানে হলো সরকার আবারও আপনাদের ঘরে থাকার নির্দেশ দিচ্ছে।’সিএনএন জানিয়েছে, এবারের লকডাউনেও প্রথমবারের মতো কড়াকড়ি নিয়মের মধ্য দিয়ে দেশবাসীকে যেতে হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘করোনা মহামারি শুরু হওয়ার পর থেকে এবার আমাদের হাসপাতালগুলোর ওপর সবচেয়ে বেশি চাপ পড়ছে। বিশ্বের অনেক দেশই সংক্রমণ রুখতে কড়া পদক্ষেপ গ্রহণ করে। পরিস্থিতির দাবি মেনে এই মিউট্যান্ট ভাইরাসকে নিয়ন্ত্রণে আনতে আমাদেরও একসঙ্গে পদক্ষেপ নিতে হবে। এবার কড়া লকডাউন দেয়া হচ্ছে। যাতে এই নতুন ভাইরাস স্ট্রেইনটি নিয়ন্ত্রণে আসে।’

লকডাউন অবস্থায় মানুষজনকে জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বাইরে বের হতে দেয়া হবে না বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, “জরুরি কেনাকাটা, শরীরচর্চা ও চিকিৎসা সংক্রান্ত কাজে বাইরে বের হওয়া যাবে। এছাড়া `ঘরে কেউ নির্যাতনে শিকার হলে` সেক্ষেত্রে বাইরে বের হওয়া যাবে।"

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোও লকডাউনের আওতায় থাকবে বলে জানিয়েছেন বরিস জনসন। মার্চের আগে যে স্কুল খোলার কোনোরকম সম্ভাবনা নেই, তাও স্পষ্ট করেছেন তিনি। তবে মার্চেও যে স্কুল খুলবে তা জোর দিয়ে বলতে পারেননি তিনি। পারিপার্শ্বিক অবস্থা বিবেচনা করেই স্কুল খোলার বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে জানান তিনি। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘যদি দেখা যায় করোনায় মৃত্যু কমে এসেছে, ভ্যাকসিন ভালো কাজে দিয়েছে, তাহলেই ফেব্রুয়ারির পর স্কুল খুলতে পারে।’

খেলাধুলার বিষয়ে তিনি বলেন, বাইরের মাঠগুলো বন্ধ থাকবে। আগের লকডাউনের মতো এবার ইনডোর খেলাধুলার কেন্দ্রগুলো বন্ধ হবে না। এছাড়া সম্ভ্রান্ত খেলাধুলা ও ধর্মীয় উপাসনালয় সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা সাপেক্ষে খোলা রাখা যাবে।

বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন দেয়া শুরু করেছে যুক্তরাজ্য। কিন্তু করোনার নতুন ধরনের উৎপত্তি সেখানে সমস্যার সৃষ্টি করেছে। যুক্তরাজ্যের বেশ কয়েকটি অঞ্চলে সেই ধরন দ্রুত ছড়ানোর ঘটনা ঘটে। তারপরই ইউরোপে কার্যত একঘরে হয়ে পড়ে যুক্তরাজ্য।

৩ বছর পর কাতারের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিলো সৌদি আরব
                                  

অবশেষে কুয়েতের মধ্যস্ততায় তিন বছরেরও অধিক সময় পর কাতারের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিলো সৌদি আরব। স্থানীয় সময় সোমবার (৪ জানুয়ারি) সন্ধ্যা থেকে তুলে নেওয়া হয় এ নিষেধাজ্ঞা। খবর আল জাজিরার।

এর মধ্য দিয়ে কাতারের জন্য সৌদি আরব ও তার মিত্র দেশগুলোর আকাশ, সীমান্ত ও নৌপথ পুনরায় খুলে দেওয়া হল। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কুয়েতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আহমেদ নাসের আল সাবাহ।তিনি বলেছেন, ‘কুয়েতের আমির শেখ নাওয়াফের প্রস্তাবের ওপর ভিত্তি করে, কাতারের জন্য সীমান্ত, আকাশ ও নৌপথ খুলে দেওয়ার বিষয়ে আমরা একমত হয়েছি। আজ (সোমবার) সন্ধ্যা থেকেই এটি কার্যকর হবে।’

এটি কেবল কাতারের জন্য স্বস্তিদায়ক নয়, এটি প্রবাসী বাংলাদেশি ব্যবসায়ীদের জন্যও স্বস্তিদায়ক। এই সমস্যার সমাধান হওয়ায় কাতারের বাংলাদেশি ব্যবসায়ীরা ব্যবসায় আরও বেশি লাভবান হতে পারবেন।

সন্ত্রাসবাদে সমর্থনের অভিযোগ এনে ২০১৭ সালে কাতারের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করে সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব অমিরাত, বাহরাইন এবং মিসর। সৌদি আরব নেতৃত্বাধীন জোটের আরোপিত এই নিষেধাজ্ঞাকে বরাবরই অগ্রহণযোগ্য এবং ভিত্তিহীন বলে আসছিল কাতার এবং এটা তুলে নেওয়ার পক্ষে দাবি ছিল তাদের। আর সেটাতে সমর্থন দিয়ে আসছিল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। অবশেষে ট্রাম্প প্রশাসন দায়িত্ব ছাড়ার আগেই এই বিষয়টির সুরাহা হল। 

ইংল্যান্ডে দ্বিতীয় দফা লকডাউন
                                  

করোনাভাইরাসে নতুন রূপ জেকে বসেছে যুক্তরাজ্যে। প্রতিদিন গড়ে অর্ধলক্ষাধিক মানুষ আক্রান্ত হচ্ছে। পরিস্থিতি সামনে আরো ভয়াবহ হতে পারে। সেটা সামাল দিতে স্থানীয় সময় সোমবার (৪ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় দেশটির প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন ইংল্যান্ডে দ্বিতীয় দফা লকডাউন ঘোষণা করেছেন। খবর বিবিসির। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে গেল মার্চে প্রথম দফা লকডাউন ঘোষণা করেছিল যুক্তরাজ্য। দশ মাস পর আবার তারা লকডাউন ঘোষণা করলো। এবারের পরিস্থিতি আরো নাজুক। শুধু ইংল্যান্ড নয়, স্কটল্যান্ড ও নর্দার্ন আয়ারল্যান্ডও লকডাউন ঘোষণা করবে।

যুক্তরাজ্যে এ পর্যন্ত ২৬ লাখ মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। প্রাণ হারিয়েছে ৭৫ হাজারের অধিক মানুষ। গেল এক সপ্তাহ ধরে সেখানে দৈনিক ৫০ হাজারের অধিক মানুষ নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছে।  

আরও এক সপ্তাহ সৌদিতে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট নিষিদ্ধ
                                  

আরও এক সপ্তাহের জন্য আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করল সৌদি আরব। সৌদি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, আন্তর্জাতিক ফ্লাইটের স্থগিতাদেশ আরও ৭ দিন বাড়ানো হয়েছে। একইসঙ্গে আকাশ, স্থল ও সমুদ্রবন্দর দিয়ে সৌদি আরবে প্রবেশের সকল কার্যক্রম আরও ৭ দিনের জন্য স্থগিত করা হয়েছে।

সৌদি প্রেস এজেন্সি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। ইউরোপসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে করোনার সেকেন্ড ওয়েভ শুরু হওয়ায় সংক্রমণ ও মৃত্যু বৃদ্ধির আশঙ্কায় ২১ ডিসেম্বর আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে সৌদি আরব। সাত দিনের মেয়াদ শেষ হওয়ার শেষ দিনে আরও সাত দিনের জন্য নিষেধাজ্ঞা বৃদ্ধি করা হলো।

নতুন নিষেধাজ্ঞার ফলে যারা (বাংলাদেশি যাত্রী) আগে থেকে সৌদি আরব যাওয়ার টিকিট কিনে রেখেছিলেন তারা বিপাকে পড়েছেন। বিশেষ করে যাদের ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে বা যাচ্ছে তারা সবচেয়ে বেশি দুশ্চিন্তায় পড়েছেন

উহানে করোনা নিয়ে রিপোর্ট করার দায়ে সাংবাদিকের ৪ বছরের জেল
                                  

চীনের উহানে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শুরুর পর এ নিয়ে প্রতিবেদন করার দায়ে সাংবাদিক ঝ্যাং ঝানেকে (৩৭) চার বছরের জেল প্রদান করা হয়েছে। ওই প্রতিবেদন প্রকাশের জের ধরে গত মে মাসে “ঝগড়া এবং সমস্যায় প্ররোচনা দেওয়ার” অভিযোগে তাকে গ্রেপ্তার করে দেশটির আইন শৃঙ্খলা বাহিনী। সোমবার (২৮ ডিসেম্বর) এ তথ্য নিশ্চিত করেছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ান। সোমবার দুপুরে বিচার শুরুর ঘন্টাখানেক পরেই ঝ্যাং ঝানের আইনজীবী জানান যে চীনের ওই নারী সাংবাদিকের চার বছরের জেল হয়েছে।

গত সপ্তাহে রিলিজ হওয়া অভিযোগপত্রে বলা হয়, ঝ্যাং ঝান লেখনী, ভিডিও ও অন্যান্য ইন্টারনেট মাধ্যম যেমন উইচ্যাট, টুইটার ও ইউটিউব ব্যবহার করে মিথ্যা তথ্য ছড়িয়েছেন। পাশাপাশি তিনি বিদেশী গণমাধ্যম – ফ্রি রেডিও এশিয়া, ইপোচ টাইমস এবং অন্যান্য মাধ্যমে কোভিড-১৯ নিয়ে ইন্টার্ভিউ দিয়েছিলেন। এদিকে দেশটিতে পশ্চিমাদেশগুলোর নজর এড়াতে ক্রিসমাসের সময়ে ক্র্যাকডাউন চলাকালীন তাইওয়ানে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টায় আটক হংকয়ের ১০ বিক্ষোভকারীদের বিচার শুরু হয়েছে। 

এবার সিডনিতে নববর্ষের আতশবাজি দেখতে হবে ঘরে বসেই
                                  

খ্রিস্টিয় বর্ষবরণ উৎসব পালনে অস্ট্রেলিয়ার সিডনি বিশ্বের অন্যতম উল্লেখযোগ্য এক শহর। সিডনির বিখ্যাত অপেরা হাউসে প্রতিবছর প্রচুর লোক জড়ো হয়ে নববর্ষের আতশবাজির জন্য কাউন্টডাউন করে থাকে। তবে এ বছর করোনা মহামারির কারণে সেখানে নববর্ষের বড় জমায়েত নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ খবর জানিয়েছে।

ডিসেম্বরের মাঝামাঝি সিডনির উত্তরের সৈকত সংলগ্ন শহরতলীতে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পায়। সোমবার আরও ৫ জন আক্রান্ত হওয়ায় সেখানে মোট আক্রান্ত দাঁড়িয়েছে ১২৫ এ। প্রায় আড়াই লাখ জনসংখ্যার এই অঞ্চলে এখন কঠোর লকডাউন চলছে যা ৯ জানুয়ারি পর্যন্ত কার্যকর থাকবে।

এক সংবাদ সম্মেলনে বেরেজিকলিয়ান বলেন, ‘নববর্ষের উৎসবে অধিক সংক্রমণের ঝুঁকি আছে এমন কোনো অনুষ্ঠান আমরা করতে চাইনা যা পরে পুরো অঙ্গরাজ্য জুড়ে ছড়িয়ে পড়বে।’ তিনি আরও বলেন, বাসা থেকে আতশবাজি দেখাটাই সবচেয়ে নিরাপদ হবে।

শুধুমাত্র অনুমতিপ্রাপ্ত অধিবাসীরাই নববর্ষের উৎসবে শহরের কেন্দ্রে অবস্থিত অতিথিসেবার স্থানগুলোতে যেতে পারবেন। এছাড়া পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত, পুরো সিডনি জুড়ে বাসাবাড়িতে সর্বোচ্চ ১০ জন নিয়ে উৎসব আয়োজন করা যাবে।

জনস্বাস্থ্য নির্দেশ অমান্য করার দায়ে বড়দিনের পর থেকে এখন পর্যন্ত নিউ সাউথ ওয়েলস পুলিশ সিডনিতে ১৫টি নোটিস দিয়েছে। শনিবার ১১ জন মিলে পার্টি করার দায়ে উত্তর বন্ডির এক বাড়িতে নোটিস দেয়া হয়।

দ্রুত সীমান্ত বন্ধ করা, লকডাউন, ব্যাপক মাত্রায় পরীক্ষা ও সামাজিক দূরত্ব মেনে চলার কারণে মহামারির প্রথম ঢেউয়ে পরিস্থিতি বেশি খারাপ হওয়া থেকে অস্ট্রেলিয়া সার্বিকভাবে এড়িয়ে যেতে পেরেছিল। দেশটিতে করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা মাত্র ২৮ হাজার ৩শ ও মারা গেছেন ৯০৮ জন।

বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে পড়ছে নতুন ধরনের করোনাভাইরাস
                                  

যুক্তরাজ্যে করোনাভাইরাসের যে নতুন ধরনটি পাওয়া গেছে সেটি এখন বিশ্বের আরও কয়েকটি দেশেও শনাক্ত হয়েছে। ইউরোপীয় দেশগুলোর বাইরে এই ভাইরাসটি সম্প্রতি পাওয়া গেছে কানাডা ও জাপানেও।

গত কয়েকদিনে স্পেন, সুইজারল্যান্ড, সুইডেন ও ফ্রান্সে যাদের শরীরে এই নতুন ধরনের ভাইরাস শনাক্ত করা হয়েছে তাদের সঙ্গে যুক্তরাজ্য থেকে আসা মানুষজনের সংস্পর্শের বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে। তবে কানাডার অন্টারিওতে এক দম্পতির শরীরে এই ভাইরাস শনাক্ত হলেও তারা কিভাবে আক্রান্ত হয়েছেন তা এখনও জানা যায়নি। তাদের অন্য দেশে ভ্রমণ বা ঝুঁকিতে থাকা ব্যক্তিদের সংস্পর্শে আসার ইতিহাসও পাওয়া যায়নি।

এদিকে, অনাবাসিক নাগরিকদের আগামী একমাসের জন্য দেশে আসা নিষিদ্ধ করে দিয়েছে জাপান সরকার। সোমবার থেকে এই নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হবে। যুক্তরাজ্য থেকে আসা পাঁচজন যাত্রীর শরীরে নতুন ধরনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এছাড়া আরও দু`জনের দেহে নতুন ধরনের ভাইরাসটি পাওয়া গেছে। তারা স্থানীয়ভাবে সংক্রমিত হয়েছেন। এদিকে রোববার থেকে ইউরোপের দেশগুলো তাদের নাগরিকদের ফাইজারের কোভিড-১৯ টিকা দিতে শুরু করেছে। প্রথম ধাপে দেশগুলোর বয়স্ক নাগরিকরাই টিকা পাবেন।

এটি আগেকার ভাইরাসের চেয়ে আরও বেশি সহজে এবং দ্রুতগতিতে মানুষের মধ্যে ছড়াতে পারে বলে জানা গেছে।করোনাভাইরাসের এই নতুন মিউটেশনটি বেশি সংক্রামক হলেও বিজ্ঞানীরা বলেছেন, এটি অধিকতর বিপজ্জনক এমন কোন প্রমাণ এখনো পাওয়া যায়নি এবং করোনাভাইরাসের যে টিকা দেয়া শুরু হয়েছে তা এর বিরুদ্ধেও একই রকম কার্যকর হবে।

গত কয়েক সপ্তাহে বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে করোনাভাইরাসের তিনটি নতুন ধরন শনাক্ত হয়েছে। বলা হচ্ছে, নতুন ধরনগুলো মূল ভাইরাসটির চেয়ে অনেক বেশি সংক্রামক। তবে এটি বেশি প্রাণঘাতী বা ভ্যাকসিনের সঙ্গে ভিন্ন প্রতিক্রিয়া দেখাবে, এমন কোনও প্রমাণ এখনও পাওয়া যায়নি। তারপরও, বাড়তি সতর্কতাস্বরূপ বেশ কিছু দেশ সীমান্তে কড়াকড়ি আরোপ করেছে।

ভাইরাসের রূপান্তর নতুন কিছু নয়। এটি বহুদিন ধরে মানুষের মধ্যে সংক্রমিত হওয়ার পথে ক্রমাগত পরিবর্তিত হয়। একারণে করোনাভাইরাসের নতুন ধরন আবিষ্কারে অবাক হননি গবেষকরা। তবে ভাইরাসের রূপান্তর কোথায় ঘটবে, কোন ধরনের রূপান্তরে সেটি বেশি প্রাণঘাতী বা সংক্রামক হয়ে উঠবে, অথবা প্রচলিত চিকিৎসা ব্যবস্থার বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়বে- এসব ধারণা করা বেশ কঠিন।

মিশরে করোনা হাসপাতালে অগ্নিকাণ্ডে ৭ জনের মৃত্যু
                                  

মিশরে করোনা রোগীদের চিকিৎসা চলছে এমন একটি হাসপাতালে অগ্নিকাণ্ডে অন্তত সাত জনের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার রাজধানী কায়রোর ওই  হাসপাতালে এই অগ্নিকাণ্ড ঘটেছে বলে স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে। কায়রো থেকে ৩০ কিলোমিটার উত্তর-পূর্বে অবস্থিত এল ওবুর এলাকায় মিসর আল আমাল হাসপাতালে অগ্নিকাণ্ড ঘটে। বৈদ্যুতিক ত্রুটির কারণে এ ঘটনা ঘটেছে বলে প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে।


   Page 1 of 63
     আর্ন্তজাতিক
বাগদাদে আত্মঘাতী বোমা হামলার দায় স্বীকার আইএসের
.............................................................................................
ট্রাম্পকে ফোন করার কোনো পরিকল্পনা নেই বাইডেনের
.............................................................................................
ইন্দোনেশিয়া-ফিলিপাইনে ফের শক্তিশালী ভূমিকম্প
.............................................................................................
বাইডেন-কমলার অভিষেকে উপস্থাপনা করবেন টম হ্যাঙ্কস
.............................................................................................
ট্রাম্পকে আবারও অভিশংসন
.............................................................................................
ট্রাম্পের টুইটার-ফেসবুক অ্যাকাউন্টের ওপর নিষেধাজ্ঞা
.............................................................................................
আমেরিকার কংগ্রেস ভবনে হামলা, নিহত ৪
.............................................................................................
ট্রাম্প না মানলেও বাইডেনের জয় নিশ্চিত করছে কংগ্রেস
.............................................................................................
আবারও কঠোর লকডাউনে যুক্তরাজ্য
.............................................................................................
৩ বছর পর কাতারের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিলো সৌদি আরব
.............................................................................................
ইংল্যান্ডে দ্বিতীয় দফা লকডাউন
.............................................................................................
আরও এক সপ্তাহ সৌদিতে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট নিষিদ্ধ
.............................................................................................
উহানে করোনা নিয়ে রিপোর্ট করার দায়ে সাংবাদিকের ৪ বছরের জেল
.............................................................................................
এবার সিডনিতে নববর্ষের আতশবাজি দেখতে হবে ঘরে বসেই
.............................................................................................
বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে পড়ছে নতুন ধরনের করোনাভাইরাস
.............................................................................................
মিশরে করোনা হাসপাতালে অগ্নিকাণ্ডে ৭ জনের মৃত্যু
.............................................................................................
করোনায় আক্রান্ত এসওয়াতিনির প্রধানমন্ত্রীর মৃত্যু
.............................................................................................
যে ফ্রিজে রাখা হবে ফাইজারের করোনার টিকা
.............................................................................................
বেতার তরঙ্গের বিকিরণে সম্ভবত অসুস্থ হয়েছিল মার্কিন দূতাবাস কর্মীরা
.............................................................................................
বদলে গেছে সৌদি জীবনযাত্রা
.............................................................................................
স্কলারশিপে তুরস্কে পড়ার সুযোগ
.............................................................................................
আন্তর্জাতিক ভ্রমণে বিধিনিষেধ বাড়াল কানাডা
.............................................................................................
নির্বাচনে ফল পাল্টে দেওয়ার মতো অনিয়ম হয়নি: যুক্তরাষ্ট্রের অ্যাটর্নি জেনারেল
.............................................................................................
প্রেসিডেন্টের ক্ষমার জন্য হোয়াইট হাউজে ঘুষের ঘটনা নিয়ে তদন্ত
.............................................................................................
জার্মানিতে ফুটপাতে গাড়ি উঠে নিহত ৫, চালক ছিলেন মদ্যপ
.............................................................................................
মহামারি সত্ত্বেও অভিবাসনের বৈশ্বিক চুক্তিটি পথ দেখাচ্ছে: গুতেরেস
.............................................................................................
হাইপারসোনিক ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্রের উন্নয়ন ঘটাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র-অস্ট্রেলিয়া
.............................................................................................
ভারতে আন্দোলনরত কৃষকদের পাশে কানাডার প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
আন্দোলনে অবরুদ্ধ দিল্লি, আজই কৃষক নেতাদের সঙ্গে বসবেন কৃষিমন্ত্রী
.............................................................................................
প্রতিশোধ নেওয়ার প্রত্যয়ে ইরানের শীর্ষ পরমাণু বিজ্ঞানীর দাফন সম্পন
.............................................................................................
বাইডেনের হোয়াইট হাউস কমিউনিকেশন্স টিমে সবাই নারী
.............................................................................................
মেয়ের বিয়ে মেনে নিলেন জাপানের ক্রাউন প্রিন্স
.............................................................................................
ভারতের করোনার টিকার বিরুদ্ধে স্বেচ্ছাসেবকের মামলা
.............................................................................................
অরক্ষিত ইরান
.............................................................................................
কুকুরের সঙ্গে খেলতে গিয়েই বিপত্তি
.............................................................................................
বিশ্বে করোনায় আক্রান্তের সংখ‌্যা ছাড়ালো সোয়া ৬ কোটি
.............................................................................................
‘করোনার উৎপত্তি চীন থেকে হয়নি বলা অনেক বেশি অনুমানমূলক’
.............................................................................................
করোনার উৎপত্তি ভারত ও বাংলাদেশে, দাবি চীনা গবেষকদের
.............................................................................................
যুক্তরাষ্ট্রে দ্রুত গতিতে বাড়ছে কর্মহীন মানুষের সংখ্যা
.............................................................................................
যুক্তরাষ্ট্রে এক দিনে ২৪০০ জনের মৃত্যু
.............................................................................................
আমরা ভাইরাসের সঙ্গে যুদ্ধ করছি, একে অপরের সঙ্গে নয়: বাইডেন
.............................................................................................
নৈশকালীন কারফিউ জারি করতে পারে ভারত
.............................................................................................
অবশেষে বাইডেনকে অভিনন্দন জানালেন চীনা প্রেসিডেন্ট
.............................................................................................
কবে কারা পাচ্ছে করোনার টিকা
.............................................................................................
১৩ মুসলিম দেশের নাগরিকদের ভিসা বন্ধ করেছে আমিরাত
.............................................................................................
অ্যাঙ্গেলা মের্কেলের কার্যালয়ের ফটকে গাড়ি হামলা
.............................................................................................
২০ ডলারের কমে মিলবে রাশিয়ার টিকা
.............................................................................................
বিনামূল্যে নারীদের স্যানিটারি প্যাড দেবে স্কটল্যান্ড সরকার
.............................................................................................
লকডাউন শিথিলের পথে ফ্রান্স
.............................................................................................
নেতৃত্ব দিতে প্রস্তুত বাইডেন
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
সম্পাদক ও প্রকাশক : মো : মাহবুবুর রহমান ।
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মো: হাবিবুর রহমান । সম্পাদক কর্তৃক বিএস প্রিন্টিং প্রেস ৫২/২ টয়েনবি সার্কুলার রোড, সুত্রাপুর ঢাকা খেকে মুদ্রিত
ও ৬০/ই/১ পুরানা পল্টন (৭ম তলা) থেকে প্রকাশিত বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৫১,৫১/ এ রিসোর্সফুল পল্টন সিটি (৪র্থ তলা), পুরানা পল্টন, ঢাকা -১০০০।
ফোনঃ-০২-৯৫৫০৮৭২ , ০১৭১১১৩৬২২৬

Web: www.bhorersomoy.com E-mail : dbsomoy2010@gmail.com
   All Right Reserved By www.bhorersomoy.com Developed By: Dynamic Solution IT & Dynamic Scale BD