ঢাকা,সোমবার,১১ মাঘ ১৪২৭,২৫,জানুয়ারী,২০২১
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * ভারতীয় ক্রিকেটারদের লিফটেও উঠতে দিতো না অস্ট্রেলিয়া!   * রোনালদোর পর মেসিরও ‘না’   * গাপটিলের ক্যাচ দেখে চোখ ছানাবড়া সবার   * কক্সবাজারে ডিউরেবল প্লাস্টিকের পরিবেশক সম্মেলন শুরু   * আল-আরাফাহ ব্যাংকের বার্ষিক ব্যবসা উন্নয়ন সম্মেলন   * অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের নতুন কমিটি   * বিদ্যুৎ সহযোগিতা সংক্রান্ত বাংলাদেশ-ভারত স্টিয়ারিং কমিটির সভা   * পরীক্ষা ছাড়া এইচএসসির ফল প্রকাশে আইন পাস   * যত বাধাই আসুক পিছু হটবে না ডিএনসিসি : মেয়র আতিক   * মাদকসেবীদের জীবনের পরিণতি হয় ভয়াবহ : পররাষ্ট্রমন্ত্রী  

   আদালত -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণ মামলায় মজনুর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

রাজধানীর কুর্মিটোলায় (ঢাবি) শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় আসামি মজনুর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। সেই সঙ্গে মজনুকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও ৬ মাসের কারাদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়।

আজ (১৯ নভেম্বর) রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী আফরোজা ফারহানা আহম্মেদ অরেঞ্জ এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।।

গত ১২ নভেম্বর ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৭ এর বিচারক বেগম মোসাম্মৎ কামরুন্নাহার রাষ্ট্র ও আসামি পক্ষের যুক্তি উপস্থাপন শেষে রায় ঘোষণার জন্য ১৯ নভেম্বর দিন ধার্য করেন। ১৩ কার্যদিবসে মামলাটির বিচার কার্যক্রম শেষ হচ্ছে।

গত ৫ জানুয়ারি সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস থেকে ঢাকার কুর্মিটোলা বাস স্টপেজে নামেন ওই ছাত্রী। পরে ওই ছাত্রীকে মুখ চেপে ধরে সড়কের পাশের ঝোঁপের আড়ালে নিয়ে ধর্ষণ করে অজ্ঞাত এক ব্যক্তি। সে সময় অজ্ঞান হয়ে পড়েছিলেন ওই তরুণী। জ্ঞান ফেরার পর তিনি ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে যান চিকিৎসা নিতে। ধর্ষণের ওই ঘটনায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় উত্তাল হয়ে ওঠে। বিভিন্ন সংগঠনও নানা কর্মসূচি পালন করে।

পরদিন সকালে অজ্ঞাত ব্যক্তিকে আসামি করে ওই শিক্ষার্থীর বাবা ক্যান্টনমেন্ট থানায় মামলা করেন। মামলাটি তদন্তের দায়িত্ব পায় ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি উত্তর)। পরে ওই তরুণীর কাছে বর্ণনা শুনে এবং তার কাছ থেকে ধর্ষণকারীর নিয়ে যাওয়া মোবাইল ফোনের সূত্র ধরে ৮ জানুয়ারি মজনুকে গাজীপুর থেকে গ্রেফতার করা হয়। ওই শিক্ষার্থী পরে মজনুকে ‘ধর্ষণকারী’ হিসেবে শনাক্ত করেন।

চলতি বছর ৯ জানুয়ারি আসামি মজনুর সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। রিমান্ড শেষে ১৬ জানুয়া‌রি মজনু আদালতে স্বীকারো‌ক্তিমূলক জবানব‌ন্দি দেন বলে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়। ওই স্বীকারোক্তি তথ্য ভিত্তিতে ভিকটিমের ব্যাগ, মোবাইল ও পাওয়ার ব্যাংক এবং ভিকটিমের ব্যবহৃত একটি জিন্সের প্যান্ট ও একটি জ্যাকেট উদ্ধার করা হয়। পরে ১৬ মার্চ ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে মজনুর বিরুদ্ধে চার্জশিট (অভিযোগপত্র) দাখিল করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা। ২৬ আগস্ট ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৭ এর বিচারক বেগম মোসাম্মৎ কামরুন্নাহার ভার্চুয়াল আদালতে মজনুর বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন। এরপর থেকে তিনি কারাগারেই আছেন।

ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণ মামলায় মজনুর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড
                                  

রাজধানীর কুর্মিটোলায় (ঢাবি) শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় আসামি মজনুর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। সেই সঙ্গে মজনুকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও ৬ মাসের কারাদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়।

আজ (১৯ নভেম্বর) রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী আফরোজা ফারহানা আহম্মেদ অরেঞ্জ এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।।

গত ১২ নভেম্বর ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৭ এর বিচারক বেগম মোসাম্মৎ কামরুন্নাহার রাষ্ট্র ও আসামি পক্ষের যুক্তি উপস্থাপন শেষে রায় ঘোষণার জন্য ১৯ নভেম্বর দিন ধার্য করেন। ১৩ কার্যদিবসে মামলাটির বিচার কার্যক্রম শেষ হচ্ছে।

গত ৫ জানুয়ারি সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস থেকে ঢাকার কুর্মিটোলা বাস স্টপেজে নামেন ওই ছাত্রী। পরে ওই ছাত্রীকে মুখ চেপে ধরে সড়কের পাশের ঝোঁপের আড়ালে নিয়ে ধর্ষণ করে অজ্ঞাত এক ব্যক্তি। সে সময় অজ্ঞান হয়ে পড়েছিলেন ওই তরুণী। জ্ঞান ফেরার পর তিনি ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে যান চিকিৎসা নিতে। ধর্ষণের ওই ঘটনায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় উত্তাল হয়ে ওঠে। বিভিন্ন সংগঠনও নানা কর্মসূচি পালন করে।

পরদিন সকালে অজ্ঞাত ব্যক্তিকে আসামি করে ওই শিক্ষার্থীর বাবা ক্যান্টনমেন্ট থানায় মামলা করেন। মামলাটি তদন্তের দায়িত্ব পায় ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি উত্তর)। পরে ওই তরুণীর কাছে বর্ণনা শুনে এবং তার কাছ থেকে ধর্ষণকারীর নিয়ে যাওয়া মোবাইল ফোনের সূত্র ধরে ৮ জানুয়ারি মজনুকে গাজীপুর থেকে গ্রেফতার করা হয়। ওই শিক্ষার্থী পরে মজনুকে ‘ধর্ষণকারী’ হিসেবে শনাক্ত করেন।

চলতি বছর ৯ জানুয়ারি আসামি মজনুর সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। রিমান্ড শেষে ১৬ জানুয়া‌রি মজনু আদালতে স্বীকারো‌ক্তিমূলক জবানব‌ন্দি দেন বলে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়। ওই স্বীকারোক্তি তথ্য ভিত্তিতে ভিকটিমের ব্যাগ, মোবাইল ও পাওয়ার ব্যাংক এবং ভিকটিমের ব্যবহৃত একটি জিন্সের প্যান্ট ও একটি জ্যাকেট উদ্ধার করা হয়। পরে ১৬ মার্চ ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে মজনুর বিরুদ্ধে চার্জশিট (অভিযোগপত্র) দাখিল করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা। ২৬ আগস্ট ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৭ এর বিচারক বেগম মোসাম্মৎ কামরুন্নাহার ভার্চুয়াল আদালতে মজনুর বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন। এরপর থেকে তিনি কারাগারেই আছেন।

অস্ত্র মামলায় নূর হোসেনের যাবজ্জীবন, চাঁদাবাজিতে খালাস
                                  

নারায়ণগঞ্জের আলোচিত সাত খুন মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি সন্ত্রাসী নূর হোসেনকে এক অস্ত্র মামলায় যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে অপর এক চাঁদাবাজি মামলায় খালাস পেয়েছেন তিনি। বুধবার (৬ জানুয়ারি) দুপুরে জেলা ও দায়রা জজ দ্বিতীয় আদালতের বিচারক সাবিনা ইয়াসমিন এ রায় ঘোষণা করেন। আদালতের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর জাসমীন আহমেদ বিষয়টি নিশ্চিত করেন।তিনি জানান, ২০১৪ সালের ৩ আগস্ট নূর হোসেনের বিরুদ্ধে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় একটি অস্ত্র মামলা করে পুলিশ। ওই মামলায় ছয়জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করেন আদালত। সাক্ষ্য প্রমাণের ভিত্তিতে মামলার একমাত্র আসামি নূর হোসেনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন আদালত।

অ্যাডভোকেট জাসমীন আহমেদ আরও বলেন, একই আদালতে চলমান আরও এক চাঁদাবাজি মামলার রায় ঘোষণা করা হয়েছে। আকরাম নামে এক ব্যক্তির কাছ থেকে চার লাখ টাকা চাঁদাবাজির অভিযোগে করা ওই মামলায় নূর হোসেনকে খালাস দেয়া হয়েছে। একই সঙ্গে এ মামলার অন্য সাত আসামিকেও খালাস দেয়া হয়েছে।

নারায়ণগঞ্জ কোর্ট পুলিশের পরিদর্শক মো. আসাদুজ্জামান জানান, সকালে কাশিমপুর কারাগার থেকে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি নূর হোসেনকে নারায়ণগঞ্জের আদালতে নেয়া হয়। তার বিরুদ্ধে চলমান দুটি অস্ত্র ও চাঁদাবাজি মামলার রায় ঘোষণা করা হয়। রায় ঘোষণার পর তাকে আবারও কাশিমপুর কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়।

১৫ দিনের মধ্যে সব হাসপাতালের যন্ত্রপাতি মেরামত করতে লিগ্যাল নোটিশ
                                  

মানুষের স্বাস্থ্য সুরক্ষা ও নিরাপত্তার লক্ষ্যে দেশের সরকারি হাসপাতালগুলোতে মানুষের সঠিক রোগ নির্ণয়ের জন্য প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি অন্তর্ভুক্ত করা এবং অকেজো সকল যন্ত্রপাতি মেরামত করে সচল করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রতি লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

নোটিশে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব, স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক (ডিজি) এবং কেন্দ্রীয় মেডিকেল স্টোর ডিপোর পরিচালককে বিবাদী করা হয়েছে। জনস্বার্থে রোববার (২৭ ডিসেম্বর) ডাকযোগে লিগ্যাল নোটিশটি পাঠিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মো. জে আর খান রবিন ও শাম্মী আক্তার। আইনজীবী মো. জে আর খান রবিন নিজেই নোটিশ পাঠানোর বিষয়টি জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেছেন।

নোটিশ পাওয়ার ১৫ দিনের মধ্যে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা না নিলে প্রতিকার চেয়ে সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগে রিট দায়ের করা হবে বলেও নোটিশে উল্লেখ করা হয়েছে।

নোটিশের বিষয়ে আইনজীবী মো. জে আর খান রবিন বলেন, সংবিধানের ১৫(ক) ও ১৮(১) অনুচ্ছেদে স্বাস্থ্যসেবা ও জনস্বাস্থ্যের কথা উল্লেখ থাকলেও মূলত অনুচ্ছেদ ৩১ ও ৩২ অনুযায়ী মানুষের জীবন ও স্বাস্থ্যসেবা মৌলিক অধিকার। এটি নিশ্চিত করার দায়িত্ব একমাত্র রাষ্ট্রের। কিন্তু বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত খবর থেকে জানা যায়, বাংলাদেশের অধিকাংশ সরকারি হাসপাতালে সঠিক রোগ নির্ণয়ের জন্য প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি নেই এবং বিদ্যমান যন্ত্রপাতির অধিকাংশই অকেজো। এগুলো মেরামত করে সচল করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ অর্থ বরাদ্দ দিলেও তা যথাযথ কাজে ব্যবহার করা হয় না। এতে একদিকে দেশের সাধারণ মানুষ চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে অন্যদিকে সরকারও আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। আইনজীবী আরও জানান, সরকারের সংশ্লিষ্টরা এ বিষয়ে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ না করায় জনস্বার্থে এই নোটিশ পাঠানো হয়।

স্ত্রী-মেয়ে-শ্যালিকাসহ পাপুলের ৬১৭ ব্যাংক হিসাব জব্দ
                                  

মানবপাচারের অভিযোগে কুয়েতে গ্রেফতার লক্ষ্মীপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য কাজী শহিদ ইসলাম পাপুল, তার স্ত্রী, মেয়ে ও শ্যালিকার ৬১৭টি ব্যাংক হিসাব জব্দের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। রোববার (২৭ ডিসেম্বর) দুদকের আবেদনের প্রেক্ষিতে ঢাকা মহানগর হাকিম কেএম ইমরুল কায়েস এ নির্দেশ দেন।

রাজধানীতে মাদকদ্রব্যসহ গ্রেপ্তার ৪৯
                                  

রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযান চালিয়ে ৪৯ জনকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)। রোববার (২৭ ডিসেম্বর) ডিএমপির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, শনিবার (২৬ ডিসেম্বর) সকাল ৬টা থেকে আজ সকাল ৬টা পর্যন্ত রাজধানীর বিভিন্ন থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়। অভিযানের সময় ১৬ হাজার ৮৭৩ পিস ইয়াবা, ২৪ গ্রাম ৪০ হেরোইন, ১২ কেজি ১২০ গ্রাম গাঁজা ও ৬১ বোতল ফেন্সিডিল জব্দ করা হয়। গ্রেপ্তার ব‌্যক্তিদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে ৩৭টি মামলা করা হয়েছে।  

ফারুকী হত্যা মামলার প্রতিবেদন ২৭ জানুয়ারি
                                  

নুরুল ইসলাম ফারুকী হত্যা মামলায় তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের তারিখ পিছিয়ে আগামী ২৭ জানুয়ারি ধার্য করেছেন আদালত। মঙ্গলবার (২২ ডিসেম্বর) এ মামলায় তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের তারিখ ধার্য ছিল। কিন্তু এদিন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডির সিরিয়াস ক্রাইম স্কোয়াডের অতিরিক্ত বিশেষ পুলিশ সুপার রাজীব ফরহান প্রতিবেদন দাখিল করতে পারেননি। এজন্য ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট রাজেশ চৌধুরী প্রতিবেদন দাখিলের নতুন এ তারিখ ধার্য করেন।  তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য এখন পর্যন্ত ৪৯ বার সময় নিয়েছে তদন্ত সংস্থা।

২০১৪ সালের ২৮ আগস্ট রাত ৯টার দিকে রাজধানীর পূর্ব রাজাবাজারের বাসায় মাওলানা নুরুল ইসলাম ফারুকীকে কুপিয়ে ও গলাকেটে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা।  রাতেই তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত ফারুকী চ্যানেল আইয়ের ধর্মীয় অনুষ্ঠান ‘কাফেলা’ ও ‘শান্তির পথে’, মাই টিভির লাইভ অনুষ্ঠান ‘সত্যের সন্ধানে’র উপস্থাপক ছিলেন।  

পুলিশ কর্মকর্তার বাসা থেকে গৃহকর্মীর লাশ উদ্ধার
                                  

কেরানীগঞ্জের কলাতিয়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক আশিকুজ্জামানের বাসা থেকে সোনিয়া আক্তার জান্নাত (১৬) নামে এক গৃহকর্মীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

সোমবার (২১ ডিসেম্বর) রাতে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পুরান ঢাকার স্যার সলিমুল্লাহ মেডিক‌্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। মঙ্গলবার (২২ ডিসেম্বর) সকালে কেরানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোজাম্মেল হোসেন রাইজিংবিডিকে এ তথ‌্য নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ জানায়, সোনিয়া আক্তারের বাড়ি গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানীতে। তার বাবার নাম শাকিল মিয়া। তিন বছর আগে সে ওই বাসায় কাজে যোগ দেয়। এক মাস আগে তার মা এই বাসায় বেড়াতে আসেন। গতকাল বিকেলে সোনিয়া লুকিয়ে মোবাইলে কারও সঙ্গে কথা বলছিল। এটা তার মা দেখে ফেলেন। এই নিয়ে তার সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয়। এরপর সে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত‌্যা করে। সুরতহাল রিপোর্টে বলা হয়, তার শরীরের কোথাও কোনো জখমের চিহ্ন ছিল না। 

বন্ধুর মেয়েকে ধর্ষণ: যাবজ্জীবন কারাদণ্ড
                                  

রাজধানীর বনানীতে বন্ধুর মেয়েকে ধর্ষণের মামলায় সবুজ মিয়া নামের এক ব্যক্তিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। সোমবার (৭ ডিসেম্বর) ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক বেগম মোছা. কামরুন্নাহার এ রায় ঘোষণা করেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ২০১৭ সালের ১ আগস্ট ভুক্তভোগীর বাবা-মা কাজের জন্য বাড়ির বাইরে ছিলেন। তিনি বাড়িতে গৃহস্থালি কাজ করছিলেন৷ আসামি সবুজ ভুক্তভোগীর বাবার সঙ্গে বন্ধুত্বের সূত্র ধরে তাদের বাসায় আসা-যাওয়া করত। ঘটনার দিন সবুজ ভুক্তভোগীর ঘরে এসে শুয়ে ছিল। এ সময় থালা-বাসন পরিষ্কার করতে ওই মেয়ে বাইরে যেতে চাইলে জোর করে ওড়না দিয়ে হাত-পা বেঁধে তাকে ধর্ষণ করে আসামি। ধর্ষণের ঘটনা কাউকে জানালে হত‌্যার হুমকিও দেয় সবুজ।

প্রতিবেশী এক নারী সবুজকে বাড়ি থেকে বের হয়ে যেতে বলে। এ সময় সে ধর্ষণের শিকার মেয়েটির কাছে ঘটনার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি সব খুলে বলেন। এ সময় ওই নারী প্রতিবেশীদের সহযোগিতায় সবুজকে আটক করে পিটুনি দিলে সে ধর্ষণের কথা স্বীকার করে। ভুক্তভোগীর মা-বাবা বাড়িতে ফিরলে সবুজকে পুলিশে সোপর্দ করা হয়। পরদিন তার মা বাদী হয়ে বনানী থানায় সবুজ মিয়াকে আসামি করে ধর্ষণের মামলা দায়ের করেন৷ ২০১৮ সালের ২৯ মার্চ বনানী থানার এসআই আশরাফুল আলম আসামির বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করেন। মামলাটির বিচার চলাকালে আদালত ১১ সাক্ষীর মধ্যে সাতজনের সাক্ষ্য গ্রহণ করেন। 

সনদ জালিয়াতি: এনসিসি ব্যাংক কর্মকর্তার কারাদণ্ড
                                  

সনদ জালিয়াতির মামলায় এনসিসি ব্যাংকের সাবেক জুনিয়র অফিসার সিদ্দিকুর রহমানকে ৮ বছর কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। সোমবার (৭ ডিসেম্বর) ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৪ এর বিচারক শেখ নাজমুল আলম এই রায় দেন।

দণ্ডবিধির ৪৬৮ ধারায় আসামিকে ৫ বছর কারাদণ্ড ও ২৫ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও তিনমাসের কারাদণ্ড এবং ৪৭১ ধারায় তিন বছর কারাদণ্ড, ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও তিন মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়ছে।
দুদকের কৌঁশুলী মীর আহাম্মদ আলী সালাম জানান, দুটি অভিযোগের দণ্ড একসঙ্গে চলবে বলে আদালত রায়ে বলেছেন। তাই তাকে ৫ বছর সাজাই খাটতে হবে।

রায় ঘোষণার সময় আসামি সিদ্দিককে আদালতে হাজির করা হয়। এরপর সাজা পরোয়ানা দিয়ে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।

অভিযোগ থেকে জানা যায়, সিদ্দিকুর রহমান এসএসসি পাস। পরে তিনি ফরিদপুরের সরকারি ইয়াসিন কলেজ থেকে এইচএসসির এবং জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন সরকারি রাজেন্দ্র কলেজ থেকে ব্যবস্থাপনা বিভাগে এমকম অনার্স ও মাস্টার্সের সার্টিফিকেট দাখিল করে এনসিসি ব্যাংকে জুনিয়র অফসার হিসেবে ২০০৯ সালের ১ জানুয়ারি চাকরি নেন। চাকরিতে থাকাকালে একটি দুর্নীতি মামলার তদন্ত চলাকালে তার সার্টিফিকেট জালিয়াতির বিষয়টি ধরা পড়ে।

এরপর দুদক উপপরিচালক ফজললু হক বাদী হয়ে ২০১৭ সালের ১৫ নভেম্বর তার বিরুদ্ধে মতিঝিল থানা জাল জালিয়াতি ও প্রতারণার মামলা করেন। ২০১৮ সালের ১৮ এপ্রিল মামলায় চার্জশিট দাখিল করা হয়। ২০১৮ সালের ১২ ডিসেম্বর মামলায় সিদ্দিকের বিরুদ্ধে চার্জগঠন করে বিচার শুরু হয়। মামলাটির বিচার চলাকালে আদালত ১০ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ করেন। 

বাবুনগরী-মামুনুলদের মামলা তদন্তে পিবিআই
                                  

ভাস্কর্য নিয়ে সমালোচনা ও হুমকি দেওয়ায় হেফাজতে ইসলামের আমির জুনায়েদ বাবুনগরী ও খেলাফত মজলিস নেতা মাওলানা মামুনুল হকসহ ৩ জনের বিরুদ্ধে করা রাষ্ট্রদ্রোহের ২ মামলা পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। 

সোমবার (৭ ডিসেম্বর) ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সত্যব্রত শিকদারের আদালত মামলা দুটি গ্রহণ করে পিবিআইকে অভিযোগের বিষয়ে তদন্ত করে আগামী ৭ জানুয়ারি প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন। রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী সহকারী পাবলিক প্রসিকিউটর আজাদ রহমান এ তথ্য জানান।

এর আগে বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের নির্বাহী সভাপতি অ্যাডভোকেট আবদুল মালেক ওরফে মশিউর মালেক এবং মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের সভাপতি আমিনুল ইসলাম বুলবুল দুই মামলা করেন।

মশিউর মালেকের মামলায় মাওলানা মামুনুল হককে একমাত্র আসামি করা হয়। আমিনুল ইসলাম বুলবুলের মামলায় জুনায়েদ বাবুনগরী, মাওলানা মামুনুল হক এবং সৈয়দ ফয়জুল করিমকে আসামি করা হয়েছে।

মামলায় মামুনুল হক সম্পর্কে বলা হয়, গত ১৩ নভেম্বর বিএমএ মিলনায়তনে বাংলাদেশ যুব  খেলাফত মজলিসের ঢাকা মহানগর শাখার সমাবেশে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণের বিরোধিতা করে মামুনুল হক বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য গড়তে দেওয়া হবে না।  প্রয়োজনে লাশের পর লাশ পড়বে।  আবার শাপলা চত্ত্বর হবে।’ সমাবেশে যুব মজলিসের কর্মীদের এজন্য প্রস্তুত থাকতে বলেন তিনি।

মামলায় সৈয়দ ফয়জুল করিম সম্পর্কে বলা হয়, গত ১৩ নভেম্বর এ আসামি যাত্রাবাড়ির গেন্ডারিয়ায় তৌহিদী জনতার ব্যানারে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যের বিরুদ্ধে ‘আন্দোলন করবো, সংগ্রাম করবো, জিহাদ করবো।  রক্ত দিতে চাইনা, দিলে বন্ধ হবে না। রাশিয়ার লেলিনের ৭২ ফুট মূর্তি যদি ক্রেন দিয়ে তুলে সাগরে নিক্ষেপ করতে পারে তাহলে শেখ সাহেবের মূর্তি আজকে হোক কালকে হোক তুলে বুড়িগঙ্গায় নিক্ষেপ করবেন’, বলে উস্কানিমূলক বক্তব্য দেন।

মামলায় বাবু নগরী সম্পর্কে বলা হয়, এ আসামি মামুনুল হক ও ফয়জুল করিমের পরামর্শ ক্রমে গত ২৭ নভেম্বর হাটহাজারীতে বলেছেন, মদিনা সনদে যদি দেশ চলে তাহলে কোনো ভাস্কর্য থাকতে পারে না। ভাস্কর্য নির্মাণ থেকে সড়ে না দাঁড়ালে আরেকটি শাপলা চত্ত্বরের ঘটনা ঘটবে এবং ভাস্কর্য ছুঁড়ে ফেলবেন। 

 

মামলায় বলা হয়, আসামিদের এ ধরনের বক্তব্য রাষ্ট্রদ্রোহিতার শামিল।  ধর্মকে কাজে লাগিয়ে আসামিরা রাজনৈতিক ফায়দা লুটতে সাধারণ মুসলমানদের ক্ষেপিয়ে তুলে প্রকারান্তরে রাষ্ট্র ও সমাজের মধ্যে ঘৃণা ও শত্রুতার মনোভাব সৃষ্টি করেছেন।  আসামিদের উস্কানিমূলক বক্তব্যে উদ্বুব্ধ হয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনের সামনের মধুদার ভাস্কর্য এবং কুষ্টিয়ায় বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভেঙে ফেলা হয়েছে। 

শিশু সামিউল হত্যা মামলার রায় মঙ্গলবার
                                  

রাজধানীর মোহাম্মদপুরের নবোদয় হাউজিংয়ে শিশু খন্দকার সামিউল আজিম ওয়াফি (৫) হত্যা মামলার রায় ঘোষণা করা হবে আগামীকাল মঙ্গলবার (৮ ডিসেম্বর)। ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৪ এর বিচারক শেখ নাজমুল আলম রায় ঘোষণা করবেন।

গত ২৩ নভেম্বর যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে আদালত রায়ের তারিখ ধার্য করেন। রায়ে আসামিদের মৃত্যুদণ্ড প্রত্যাশা করছেন সংশ্লিষ্ট আদালতের স্পেশাল পাবলিক প্রসিকিউটর ফারুক উজ্জামান ভূঁইয়া (টিপু)।

মামলাটিতে শিশু সামিউলের মা আয়েশা হুমায়রা এশা জামিনে ছিলেন। গত ২৩ নভেম্বর তিনি আদালতে হাজির হননি। আদালত জামিন বাতিল করে তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন। এশার প্রেমিক শামসুজ্জামান আরিফ ওরফে বাক্কু (৪৩) পলাতক আছেন।

জানা যায়, প্রেমিক শামসুজ্জামান আরিফ ওরফে বাক্কুর সঙ্গে মায়ের অনৈতিক কর্মকাণ্ড দেখে ফেলায় ২০১০ সালের ২৩ জুন শিশু সামিউলকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়। এরপর লাশ গুম করতে ফ্রিজে ঢোকানো হয়। পরে লাশটি বস্তায় ঢুকিয়ে ২৪ জুন রাস্তায় ফেলে দেওয়া হয়। 

সামিউল নবোদয় হাউজিংয়ের গ্রিনউড ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের ইংরেজি মাধ‌্যমে প্লে গ্রুপে পড়ত। ২৪ জুন সামিউলের লাশ আদাবরের নবোদয় হাউজিং এলাকা থেকে বস্তাবন্দি অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় নিহত শিশুর বাবা কে এ আজম বাদী হয়ে ওই দিনই আদাবর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এশা ও বাক্কু হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার বিষয়ে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আদাবর থানার ওসি কাজী শাহান হক ২০১২ সালের ২৫ অক্টোবর এশা ও বাক্কুর বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। ২০১২ সালের ১ ফেব্রুয়ারি আদালত আসামিদের বিরুদ্ধে  চার্জ গঠন করেন। মামলাটির বিচার চলাকালে আদালত ২২ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করেন। 

ফেসবুকের মামলার শুনানি ১৪ ডিসেম্বর
                                  

বাংলাদেশে ‘ফেসবুক ডটকম ডট বিডি’র মালিকানা নির্ধারণে ফেসবুক কর্তৃপক্ষের করা মামলার গ্রহণযোগ্যতার বিষয়ে শুনানির তারিখ পিছিয়ে আগামী ১৪ ডিসেম্বর ধার্য করেছেন আদালত। মঙ্গলবার (১ ডিসেম্বর) ঢাকার জেলা জজ মোহাম্মদ শওকত আলী চৌধুরীর আদালতে এ বিষয়ে শুনানি হওয়ার কথা ছিল। তবে বাংলাদেশে ফেসবুকের মূল আইনজীবী অসুস্থ থাকায় শুনানি পেছানোর জন্য আবেদন করা হয়। আদালত আবেদন মঞ্জুর করে আগামী ১৪ ডিসেম্বর শুনানির পরবর্তী তারিখ ধার্য করেছেন।

বাদীপক্ষের আরেক আইনজীবী এসএম আরিফুল ইসলাম বলেছেন, ‘আজ মামলার গ্রহণযোগ্যতা ও ডোমেইন হস্তান্তর সংক্রান্ত সব কার্যক্রমের ওপর নিষেধাজ্ঞা চেয়ে করা আবেদনের ওপর শুনানি হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ফেসবুকের মূল আইনজীবী ব্যারিস্টার মোকছেদুল ইসলাম অসুস্থ। তাই আমরা শুনানির জন্য সময় আবেদন করেছিলাম। আদালত সে আবেদন মঞ্জুর করেছেন।’

গত ২২ নভেম্বর ঢাকার জেলা জজ আদালতে এ মামলা দায়ের করা হয়। মামলায় ডোমেইনটির ক্রেতা এ ওয়ান সফটওয়্যার এবং এসকে শামসুল ইসলামকে বিবাদী করা হয়। ডোমেইনটি যাতে হস্তান্তর করতে না পারে, সে বিষয়ে নিষেধাজ্ঞার আবেদন করা হয়েছে।

বিশ্বব‌্যাপী জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ‌্যম ফেসবুকের মূল ডোমেইন ‘ফেসবুক ডটকম‘। তবে এর সঙ্গে প্রত্যেক দেশের নিজস্ব নামের এক্সটেনশন যোগ করেও ব্যবহার করা যায় ফেসবুক। বাংলাদেশে ‘ফেসবুক ডটকম ডট বিডি’ দিয়ে ফেসবুকে ঢোকা যায়। তবে ২০১০ সালের ১৪ জানুয়ারি বাংলাদেশে শুধু ফেসবুক ডটকম নামেই ফেসবুকের মূল ডোমেইনটি টেলি যোগাযোগ কর্তৃপক্ষের (বিটিসিএল) কাছ থেকে পেটেন্টসহ কিনে নেয় ফেসবুক কর্তৃপক্ষ।

পরে এ ওয়ান সফটওয়্যারের কাছ থেকে এই ডোমেইন কেনার চেষ্টা করে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। তবে এই ডোমেইনটির দাম চাওয়া হয়েছে ৬ মিলিয়ন ইউএস ডলার, বাংলাদেশি মুদ্রায় তা প্রায় ৫১ কোটি টাকা। ডোমেইনটি বিক্রির জন্য বিজ্ঞাপনও দেওয়া হয়েছে।

এ অবস্থায় দফায় দফায় আইনি নোটিশ দিয়েও ডোমেইনটি কিনতে পারেনি ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। তাই  ‘ফেসবুক ডটকম ডট বিডি‘ ডোমেইন পেতে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ আইনি লড়াইয়েই নামে। 

মুক্তি পাচ্ছেন বেগম খালেদা জিয়া
                                  

অনলাইন ডেস্কঃ

সতের বছরের দণ্ড স্থগিত করে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তির সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে তার বয়স ও মানবিক বিবেচনায় সরকার এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। শর্ত সাপেক্ষে তাকে ৬ মাসের জন্য মুক্তি দেওয়া হচ্ছে।আজ মঙ্গলবার আইনমন্ত্রী আনিসুল হক রাজধানীর গুলশানে তার বাসায় সংবাদ সম্মেলন করে এ তথ্য জানান।

মন্ত্রী বলেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় অনুমোদন দিলেই তিনি মুক্তি পাবেন। তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার বয়স বিবেচনায়, মানবিক কারণে তার দণ্ডাদেশ স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। তবে এসময় তিনি বাসায় থেকে চিকিৎসা নেবেন। দেশের বাইরে গমন করতে পারবেন না।

কোর্ট বন্ধের বিষয়ে সকল বিচারপতি সিদ্ধান্ত নেবেন
                                  

অনলাইন ডেস্কঃ

বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনা প্রাদুর্ভাবের মধ্যে দেশের আদালত বন্ধ থাকবে কিনা এ বিষয়ে সব বিচারপতি বসে সিদ্ধান্ত নেবেন বলে জানিয়েছেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন।বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে আজ বুধবার সুপ্রিমকোর্টে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালনের পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন প্রধান বিচারপতি।

তিনি বলেন, করোনা ভাইরাস নিয়ে আমরা সচেতন। আমরা সমস্ত জজ সাহেব বসে সিদ্ধান্ত নেবো যে, এটা নিয়ে কী করা যায়। আপাতত এখন কোর্ট বন্ধ (অবক‍াশকালীন ছুটি) আছে। খোলার আগে আমরা একবার সবাই বসবো। সাধারণ মানুষ ও বিচারপ্রার্থীদের যেন ক্ষতি না হয়, সেদিকেও আমাদের খেয়াল রাখতে হবে। সব কিছু খেয়াল রেখে আমরা সিদ্ধান্ত নেবো।

নিম্ন আদালতের বিষয়ে প্রধান বিচারপতি বলেন, নিম্ন আদালতও সুপ্রিমকোর্টের আন্ডারে। সুতরাং, আমরা এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবো। কারণ হাজার হাজার লাখ লাখ বিচারপ্রার্থীর কথা মাথায় রাখতে হবে। এ রকমভাবে কোর্ট যদি পরিপূর্ণভাবে বন্ধ করে দেওয়া হয়, তাহলে মানুষের ভোগান্তি অনেক বেড়ে যেতে পারে। কারণ মানুষ অনেক জরুরি বিষয় নিয়ে কোর্টে আসে। এর আগে আজ সকালে প্রধান বিচারপতি সুপ্রিমকোর্টের সামনে ফোয়ারার পাশে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি উদ্বোধন করেন। এ সময় সুপ্রিমকোর্টের উভয় বিভাগের বিচারপতিগণ উপস্থিত ছিলেন। বাসস

ফাহাদ হত্যা মামলার নথি দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে
                                  

অনলাইন ডেস্কঃ

বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যা মামলার নথিপত্র ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে পৌঁছেছে। ট্রাইব্যুনালে এ মামলার অভিযোগ গঠনের শুনানি হবে ৬ এপ্রিল। মামলা‌টি স্থানান্ত‌রের বিষ‌য়ে সরকা‌রি গে‌জে‌টের পর আজ বুধবার ঢাকার মহানগর দায়রা জজ কেএম ইমরুল কায়েশ এ আদেশ দেন।স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগ মামলাটি ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-১ এ স্থানান্তরর দেয়। দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে যেকোনো মামলা ৯০ কার্যদিবসের মধ্যে নিষ্পত্তি করার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। ওই সময়ের মধ্যে নিষ্পত্তি করা না গেলে আরও ৪৫ দিন সময় নিতে পারে ট্রাইব্যুনাল। এর আগে ১৭ ফেব্রুয়ারি মামলাটি দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে নেওয়ার আবেদন করেছিলেন মামলার বাদী আবরারের বাবা বরকত উল্লাহ।

গত বছরের ৬ অক্টোবর রাতে শেরেবাংলা হলে নিজের কক্ষ থেকে আবরারকে ডেকে নিয়ে বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা করে। পরের দিন তার বাবা বরকতুল্লাহ বাদী হয়ে ১৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। ১৩ নভেম্বর আবরার হত্যায় ২৫ জনকে আসামি করে আদালতে চার্জশিট দেয় ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

মামলার চার্জশিটভুক্ত আসামিরা হলেন— মেহেদী হাসান রাসেল, মুহতাসিম ফুয়াদ, অনিক সরকার, মেহেদী হাসান রবিন, ইফতি মোশররফ সকাল, মনিরুজ্জামান মনির, মেফতাহুল ইসলাম জিয়ন, অমিত সাহা, মাজেদুল ইসলাম, মুজাহিদুর রহমান, তাবাখারুল ইসলাম তানভীর, হোসেন মোহাম্মদ তোহা, মো. জিসান, আকাশ হোসেন, শামীম বিল্লাহ, এ এস এম নাজমুস সাদাত, এহতেশামুল রাব্বি তানিম, মো. মোর্শেদ, মোয়াজ আবু হুরায়রা, মুনতাসির আল জেমি, মিজানুর রহমান, শামসুল আরেফিন রাফাত, ইশতিয়াক আহমেদ মুন্না মোশতুবা রাফি এবং এস এম মাহমুদ সেতু। এরমধ্যে জিসান, তানিম, মোরশেদ, মোশতুবা রাফি পলাতক। ওইদিনই তাদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়।

‍আসামি মজনুর বিরুদ্ধে ডিবির চার্জশিট
                                  

অনলাইন ডেস্কঃ

রাজধানীর কুর্মিটোলায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) এক ছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় করা মামলায় আসামি মজনুর বিরুদ্ধে চার্জশিট দিয়েছে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। মামলায় সাক্ষী করা হয়েছে ১৬ জনকে। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ডিবি পুলিশের পরিদর্শক আবু বক্কর সোমবার বেলা ১১টা ৫২ মিনিটে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

 

গত ৫ জানুয়ারি সন্ধ্যা সাড়ে ৫টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসে রওনা দেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ওই ছাত্রী। সন্ধ্যা ৭টার দিকে তিনি রাজধানীর কুর্মিটোলা বাসস্ট্যান্ডে নামেন। এরপর একজন অজ্ঞাত ব্যক্তি তার মুখ চেপে ধরে সড়কের পেছনে নির্জন স্থানে নিয়ে যান। সেখানে ধর্ষণের পাশাপাশি তাকে নির্যাতনও করা হয়। তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে ক্ষতচিহ্ন পাওয়া যায়। ধর্ষণের একপর্যায়ে তিনি অজ্ঞান হয়ে পড়েন। পরে রাত ১০টার দিকে জ্ঞান ফিরলে নিজেকে একটি নির্জন জায়গায় আবিষ্কার করেন ওই ছাত্রী। পরে সিএনজি নিয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে যান। রাত ১২টার দিকে ওই ছাত্রীকে ঢামেক হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি করান তার সহপাঠীরা। পরের দিন সকালে অজ্ঞাত ব্যক্তিকে আসামি করে ছাত্রীর বাবা ক্যান্টনমেন্ট থানায় মামলা করেন। মামলাটি তদন্ত করছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি উত্তর)।


   Page 1 of 14
     আদালত
ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণ মামলায় মজনুর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড
.............................................................................................
অস্ত্র মামলায় নূর হোসেনের যাবজ্জীবন, চাঁদাবাজিতে খালাস
.............................................................................................
১৫ দিনের মধ্যে সব হাসপাতালের যন্ত্রপাতি মেরামত করতে লিগ্যাল নোটিশ
.............................................................................................
স্ত্রী-মেয়ে-শ্যালিকাসহ পাপুলের ৬১৭ ব্যাংক হিসাব জব্দ
.............................................................................................
রাজধানীতে মাদকদ্রব্যসহ গ্রেপ্তার ৪৯
.............................................................................................
ফারুকী হত্যা মামলার প্রতিবেদন ২৭ জানুয়ারি
.............................................................................................
পুলিশ কর্মকর্তার বাসা থেকে গৃহকর্মীর লাশ উদ্ধার
.............................................................................................
বন্ধুর মেয়েকে ধর্ষণ: যাবজ্জীবন কারাদণ্ড
.............................................................................................
সনদ জালিয়াতি: এনসিসি ব্যাংক কর্মকর্তার কারাদণ্ড
.............................................................................................
বাবুনগরী-মামুনুলদের মামলা তদন্তে পিবিআই
.............................................................................................
শিশু সামিউল হত্যা মামলার রায় মঙ্গলবার
.............................................................................................
ফেসবুকের মামলার শুনানি ১৪ ডিসেম্বর
.............................................................................................
মুক্তি পাচ্ছেন বেগম খালেদা জিয়া
.............................................................................................
কোর্ট বন্ধের বিষয়ে সকল বিচারপতি সিদ্ধান্ত নেবেন
.............................................................................................
ফাহাদ হত্যা মামলার নথি দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে
.............................................................................................
‍আসামি মজনুর বিরুদ্ধে ডিবির চার্জশিট
.............................................................................................
মানহানির মামলায় স্থায়ী জামিন পেলেন খালেদা
.............................................................................................
জয় বাংলা - কে জাতীয় স্লোগান ঘোষণা হাইকোর্টের
.............................................................................................
বৈধ সন্তান নিরূপণ সংক্রান্ত ধারা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টের রিট
.............................................................................................
মাস্কের দাম অস্বভবিক বৃদ্ধি - ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার পরামর্শ হাইকোর্টের
.............................................................................................
শিশু সায়মা হত্যার আসামি হারুনের মৃত্যুদণ্ড
.............................................................................................
শিশু সায়মা হত্যা মামলার রায় আগামীকাল
.............................................................................................
জি কে শামীমের জামিন বাতিল
.............................................................................................
তারেকসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা গ্রহনের দিন ধার্য
.............................................................................................
ডেমরার চাঞ্চল্যকর দুই শিশু ধর্ষণ ও হত্যা মামলায় ২ জনের মৃত্যুদণ্ডাদেশ
.............................................................................................
আদালত অঙ্গন দালাল মুক্ত করার নির্দেশ হাইকোর্টের
.............................................................................................
বঙ্গবন্ধু ও আওয়ামী লীগকে কটূক্তি মামলার খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগের শূনানি ৫ এপ্রিল
.............................................................................................
বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রজ্ঞাপনের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট
.............................................................................................
খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন খারিজ হাইকোর্টের
.............................................................................................
পিকে হালদারসহ ২০ জনের ব্যাংক হিসাব ও পাসপোর্ট জব্দের আদেশ বহাল
.............................................................................................
নানীর বাণী বইটি প্রকাশনা ও বিক্রি নিষিদ্ধ করল হাইকোর্ট
.............................................................................................
ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ধারার বৈধতা নিয়ে হাইকোর্টের রুল
.............................................................................................
ব্যবসা করতে হলে দেশের সকল নিয়ম কানুন মেনেই করতে হবে- প্রধান বিচারপতি
.............................................................................................
জোরদার করা হচ্ছে হাইকোর্ট ‍এলাকার নিরাপত্তা
.............................................................................................
সোমবারের মধ্যে গ্রামীনফোনকে টাকা পরিশোধের নির্দেশ ‍আদালতের
.............................................................................................
ব্রেস্ট ফিডিং কর্নার স্থাপনে দুই মাস সময় দিলো হাইকোর্ট
.............................................................................................
আবরার হত্যা মামলার অভিযোগ গঠনের শুনানি ১৮ মার্চ
.............................................................................................
বড়পুকুরিয়া দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন আগামী ২৯ মার্চ
.............................................................................................
জাতীয় দিবসে ইংরেজির পাশাপাশি বাংলা তারিখ ব্যবহারে হাইকোর্টের রুল
.............................................................................................
প্রসিকিউটর পদ থেকে অব্যাহতি চান ব্যারিস্টার সুমন
.............................................................................................
ফিটনেস বিহিন সব ধরনের গাড়ি নিষিদ্ধ করল হাইকোর্ট
.............................................................................................
শরিয়ত বয়াতিকে কেন জামিন দেয়া হবে না - জানতে চেয়ে হাইকোর্টের রুল
.............................................................................................
রাজধানীসহ দেশের সব ক্লাবে জুয়া খেলা নিষিদ্ধ
.............................................................................................
ডিআইজি ও দুদকের পরিচালকের বিরুদ্ধে আদালতের চার্জশিট গ্রহণ
.............................................................................................
সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী ফোরামের আংশিক প্যানেল ঘোষণা
.............................................................................................
গর্ভজাত শিশুর লিঙ্গ শনাক্ত রোধে নীতিমালা তৈরি করতে রুল হাইকোর্টের
.............................................................................................
কারাগারে ১১৭ জন চিকিৎসক নিয়োগের নির্দেশ হাইকোর্টের
.............................................................................................
ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণের তদন্ত প্রতিবেদন আগামী ২৩ ফেব্রুয়ারি
.............................................................................................
ডেসটিনির এমডি রফিকুল আমিনকে ৩ বছরের কারাদণ্ড
.............................................................................................
জাহালমের ক্ষতিপূরণের মামলা চলবে
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
সম্পাদক ও প্রকাশক : মো : মাহবুবুর রহমান ।
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মো: হাবিবুর রহমান । সম্পাদক কর্তৃক বিএস প্রিন্টিং প্রেস ৫২/২ টয়েনবি সার্কুলার রোড, সুত্রাপুর ঢাকা খেকে মুদ্রিত
ও ৬০/ই/১ পুরানা পল্টন (৭ম তলা) থেকে প্রকাশিত বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৫১,৫১/ এ রিসোর্সফুল পল্টন সিটি (৪র্থ তলা), পুরানা পল্টন, ঢাকা -১০০০।
ফোনঃ-০২-৯৫৫০৮৭২ , ০১৭১১১৩৬২২৬

Web: www.bhorersomoy.com E-mail : dbsomoy2010@gmail.com
   All Right Reserved By www.bhorersomoy.com Developed By: Dynamic Solution IT & Dynamic Scale BD