১৩ শাওয়াল ১৪৪১ , ঢাকা, রবিবার, ২৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ৭ জুন , ২০২০
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * মুক্তি পাচ্ছেন বেগম খালেদা জিয়া   * প্রধানমন্ত্রীর দশ নির্দেশনা   * সব ধরনের যাত্রীবাহী নৌযান চলাচল বন্ধ   * টিসিবি এবং ভোক্তা অধিদফতরের সকলের ছুটি বাতিল   * প্রয়োজনে দেশে জরুরি অবস্থা জারির পরামর্শ   * করোনায় বিশ্বজুড়ে মৃতের সংখ্যা ১১ হাজার ছাড়াল!   * ঢাকা স্যানিটেশন ব্যবস্থার উন্নয়নে বিশ্বব্যাংকের অনুমোদন!   * করোনা প্রতিরোধে চীন থেকে বিশেষজ্ঞ আনার পরিকল্পনা সরকারের   * দেশের সকল নির্বাচন স্থগিত ঘোষণা!   * দেশে করোনায় ২য় ‍একজনের মৃত্যু, আক্রান্তের সংখ্যা ২৪!  

   আদালত -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
মুক্তি পাচ্ছেন বেগম খালেদা জিয়া

অনলাইন ডেস্কঃ

সতের বছরের দণ্ড স্থগিত করে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তির সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে তার বয়স ও মানবিক বিবেচনায় সরকার এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। শর্ত সাপেক্ষে তাকে ৬ মাসের জন্য মুক্তি দেওয়া হচ্ছে।আজ মঙ্গলবার আইনমন্ত্রী আনিসুল হক রাজধানীর গুলশানে তার বাসায় সংবাদ সম্মেলন করে এ তথ্য জানান।

মন্ত্রী বলেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় অনুমোদন দিলেই তিনি মুক্তি পাবেন। তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার বয়স বিবেচনায়, মানবিক কারণে তার দণ্ডাদেশ স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। তবে এসময় তিনি বাসায় থেকে চিকিৎসা নেবেন। দেশের বাইরে গমন করতে পারবেন না।

মুক্তি পাচ্ছেন বেগম খালেদা জিয়া
                                  

অনলাইন ডেস্কঃ

সতের বছরের দণ্ড স্থগিত করে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তির সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে তার বয়স ও মানবিক বিবেচনায় সরকার এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। শর্ত সাপেক্ষে তাকে ৬ মাসের জন্য মুক্তি দেওয়া হচ্ছে।আজ মঙ্গলবার আইনমন্ত্রী আনিসুল হক রাজধানীর গুলশানে তার বাসায় সংবাদ সম্মেলন করে এ তথ্য জানান।

মন্ত্রী বলেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় অনুমোদন দিলেই তিনি মুক্তি পাবেন। তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার বয়স বিবেচনায়, মানবিক কারণে তার দণ্ডাদেশ স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। তবে এসময় তিনি বাসায় থেকে চিকিৎসা নেবেন। দেশের বাইরে গমন করতে পারবেন না।

কোর্ট বন্ধের বিষয়ে সকল বিচারপতি সিদ্ধান্ত নেবেন
                                  

অনলাইন ডেস্কঃ

বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনা প্রাদুর্ভাবের মধ্যে দেশের আদালত বন্ধ থাকবে কিনা এ বিষয়ে সব বিচারপতি বসে সিদ্ধান্ত নেবেন বলে জানিয়েছেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন।বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে আজ বুধবার সুপ্রিমকোর্টে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালনের পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন প্রধান বিচারপতি।

তিনি বলেন, করোনা ভাইরাস নিয়ে আমরা সচেতন। আমরা সমস্ত জজ সাহেব বসে সিদ্ধান্ত নেবো যে, এটা নিয়ে কী করা যায়। আপাতত এখন কোর্ট বন্ধ (অবক‍াশকালীন ছুটি) আছে। খোলার আগে আমরা একবার সবাই বসবো। সাধারণ মানুষ ও বিচারপ্রার্থীদের যেন ক্ষতি না হয়, সেদিকেও আমাদের খেয়াল রাখতে হবে। সব কিছু খেয়াল রেখে আমরা সিদ্ধান্ত নেবো।

নিম্ন আদালতের বিষয়ে প্রধান বিচারপতি বলেন, নিম্ন আদালতও সুপ্রিমকোর্টের আন্ডারে। সুতরাং, আমরা এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবো। কারণ হাজার হাজার লাখ লাখ বিচারপ্রার্থীর কথা মাথায় রাখতে হবে। এ রকমভাবে কোর্ট যদি পরিপূর্ণভাবে বন্ধ করে দেওয়া হয়, তাহলে মানুষের ভোগান্তি অনেক বেড়ে যেতে পারে। কারণ মানুষ অনেক জরুরি বিষয় নিয়ে কোর্টে আসে। এর আগে আজ সকালে প্রধান বিচারপতি সুপ্রিমকোর্টের সামনে ফোয়ারার পাশে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি উদ্বোধন করেন। এ সময় সুপ্রিমকোর্টের উভয় বিভাগের বিচারপতিগণ উপস্থিত ছিলেন। বাসস

ফাহাদ হত্যা মামলার নথি দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে
                                  

অনলাইন ডেস্কঃ

বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যা মামলার নথিপত্র ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে পৌঁছেছে। ট্রাইব্যুনালে এ মামলার অভিযোগ গঠনের শুনানি হবে ৬ এপ্রিল। মামলা‌টি স্থানান্ত‌রের বিষ‌য়ে সরকা‌রি গে‌জে‌টের পর আজ বুধবার ঢাকার মহানগর দায়রা জজ কেএম ইমরুল কায়েশ এ আদেশ দেন।স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগ মামলাটি ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-১ এ স্থানান্তরর দেয়। দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে যেকোনো মামলা ৯০ কার্যদিবসের মধ্যে নিষ্পত্তি করার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। ওই সময়ের মধ্যে নিষ্পত্তি করা না গেলে আরও ৪৫ দিন সময় নিতে পারে ট্রাইব্যুনাল। এর আগে ১৭ ফেব্রুয়ারি মামলাটি দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে নেওয়ার আবেদন করেছিলেন মামলার বাদী আবরারের বাবা বরকত উল্লাহ।

গত বছরের ৬ অক্টোবর রাতে শেরেবাংলা হলে নিজের কক্ষ থেকে আবরারকে ডেকে নিয়ে বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা করে। পরের দিন তার বাবা বরকতুল্লাহ বাদী হয়ে ১৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। ১৩ নভেম্বর আবরার হত্যায় ২৫ জনকে আসামি করে আদালতে চার্জশিট দেয় ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

মামলার চার্জশিটভুক্ত আসামিরা হলেন— মেহেদী হাসান রাসেল, মুহতাসিম ফুয়াদ, অনিক সরকার, মেহেদী হাসান রবিন, ইফতি মোশররফ সকাল, মনিরুজ্জামান মনির, মেফতাহুল ইসলাম জিয়ন, অমিত সাহা, মাজেদুল ইসলাম, মুজাহিদুর রহমান, তাবাখারুল ইসলাম তানভীর, হোসেন মোহাম্মদ তোহা, মো. জিসান, আকাশ হোসেন, শামীম বিল্লাহ, এ এস এম নাজমুস সাদাত, এহতেশামুল রাব্বি তানিম, মো. মোর্শেদ, মোয়াজ আবু হুরায়রা, মুনতাসির আল জেমি, মিজানুর রহমান, শামসুল আরেফিন রাফাত, ইশতিয়াক আহমেদ মুন্না মোশতুবা রাফি এবং এস এম মাহমুদ সেতু। এরমধ্যে জিসান, তানিম, মোরশেদ, মোশতুবা রাফি পলাতক। ওইদিনই তাদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়।

‍আসামি মজনুর বিরুদ্ধে ডিবির চার্জশিট
                                  

অনলাইন ডেস্কঃ

রাজধানীর কুর্মিটোলায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) এক ছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় করা মামলায় আসামি মজনুর বিরুদ্ধে চার্জশিট দিয়েছে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। মামলায় সাক্ষী করা হয়েছে ১৬ জনকে। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ডিবি পুলিশের পরিদর্শক আবু বক্কর সোমবার বেলা ১১টা ৫২ মিনিটে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

 

গত ৫ জানুয়ারি সন্ধ্যা সাড়ে ৫টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসে রওনা দেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ওই ছাত্রী। সন্ধ্যা ৭টার দিকে তিনি রাজধানীর কুর্মিটোলা বাসস্ট্যান্ডে নামেন। এরপর একজন অজ্ঞাত ব্যক্তি তার মুখ চেপে ধরে সড়কের পেছনে নির্জন স্থানে নিয়ে যান। সেখানে ধর্ষণের পাশাপাশি তাকে নির্যাতনও করা হয়। তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে ক্ষতচিহ্ন পাওয়া যায়। ধর্ষণের একপর্যায়ে তিনি অজ্ঞান হয়ে পড়েন। পরে রাত ১০টার দিকে জ্ঞান ফিরলে নিজেকে একটি নির্জন জায়গায় আবিষ্কার করেন ওই ছাত্রী। পরে সিএনজি নিয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে যান। রাত ১২টার দিকে ওই ছাত্রীকে ঢামেক হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি করান তার সহপাঠীরা। পরের দিন সকালে অজ্ঞাত ব্যক্তিকে আসামি করে ছাত্রীর বাবা ক্যান্টনমেন্ট থানায় মামলা করেন। মামলাটি তদন্ত করছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি উত্তর)।

মানহানির মামলায় স্থায়ী জামিন পেলেন খালেদা
                                  

অনলাইন ডেস্কঃ

নড়াইলের মানহানির অভিযোগে করা এক মামলায় স্থায়ী জামিন পেয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া।বৃহস্পতিবার (১২ মার্চ) বিচারপতি আবু জাফর সিদ্দিকী ও এ এস এম আবদুল মোবিনের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। ‍এসময় খালেদা জিয়ার পক্ষে ছিলেন আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলী ও ব্যারিস্টার কায়সার কামাল।

মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের সংখ্যা নিয়ে মন্তব্য করায় মানহানির অভিযোগে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ২০১৫ সালের ২৪ ডিসেম্বর নড়াইল সদর আমলি আদালতে মামলাটি করেন জেলার নড়াগাতী থানার চাপাইল গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তান রায়হান ফারুকী ইমাম। পরে ২০১৮ সালের ৫ আগস্ট এ মামলায় নড়াইলের আদালতে খালেদা জিয়ার জামিন নামঞ্জুর হয়। এরপর ওই মামলায় জামিন চেয়ে খালেদা জিয়া একই বছরের ৯ আগস্ট হাইকোর্টে আবেদন করেছিলেন।

জিয়া চ্যারিটেবল ও অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় সাজাপ্রাপ্ত হয়ে ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে কারাভোগ করছেন খালেদা জিয়া। স্বাস্থ্যগত ও মানবিক কারণ দেখিয়ে বেগম জিয়ার পক্ষে দুই বার জামিন আবেদন করলেও উচ্চ আদালতে তা বাতিল হয়ে যায়। বর্তমানে তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

জয় বাংলা - কে জাতীয় স্লোগান ঘোষণা হাইকোর্টের
                                  

অনলাইন ডেস্কঃ

রাষ্ট্রীয় সব অনুষ্ঠানে - জয় বাংলা স্লোগান বাধ্যতামূলক ঘোষণা করলো হাইকোর্ট। আজ মঙ্গলবার বিচারপতি এফআরএম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের ডিভিশন এ ঘোষণা দেন। ‍এতে বলা হয়েছে, রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ পর্যায় থেকে সর্বস্তরের রাষ্ট্রীয় অনুষ্ঠানে  - জয় বাংলা স্লোগান বলতে ও দিতে হবে। আদালত আরো বলেন, সামনে ১৬ ডিসেম্বর আছে বা পরবর্তী সময়ে যেসব জাতীয় দিবস আছে, প্রতিটি দিবসে রাষ্ট্রীয় অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রের শীর্ষপর্যায় থেকে শুরু করে সর্বস্তরের প্রত্যেক দায়িত্বশীল ব্যক্তিকে ভাষণ বা বক্তব্যের শুরু ও শেষে - জয় বাংলা, স্লোগান দিতে হবে।

জয় বাংলা - কে জাতীয় স্লোগান ঘোষণা চেয়ে ২০১৭ সালে হাইকোর্টে রিট করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ড. বশির আহমেদ। ঐ বছরের ৪ ডিসেম্বর হাইকোর্ট রিটের ওপর রুল জারি করে। রুলে জয় বাংলা কে কেন জাতীয় স্লোগান ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চাওয়া হয়। চলতি বছর ঐ রুলের ওপর শুনানি শুরু হয়। শুনানিতে অ্যাটর্নি জেনারেলসহ সুপ্রিম কোর্টের সিনিয়র আইনজীবীরা - জয় বাংলাকে জাতীয় স্লোগান করার পক্ষে তাদের মত তুলে ধরেন।

বৈধ সন্তান নিরূপণ সংক্রান্ত ধারা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টের রিট
                                  

অনলাইন ডেস্কঃ

বৈধ সন্তান নিরূপণ সংক্রান্ত সাক্ষ্য আইনের ১১২ ধারা অসাংবিধানিক ঘোষণা করার নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে আজ সোমবার রিট দায়ের করা হয়েছে। আজ হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় সুপ্রিমকোর্টের অ্যাডভোকেট ইশরাত হাসান রিটটি দায়ের করেন।রিটে ১১২ ধারা কেন অসাংবিধানিক ঘোষণা করা হবে না, এই মর্মে রুল জারির আর্জি জানানো হয়েছে। এ ছাড়া রিটে ১১২ ধারা সংশোধনের নির্দেশনার আবেদনও রয়েছে। আইন মন্ত্রণালয়ের সচিব এবং লেজিসলেটিভ ও ড্রাফটিং বিভাগের সচিবকে রিটে বিবাদী করা হয়েছে।

সাক্ষ্য আইনের ১১২ ধারায় বলা হয়েছে, যখন কোনো সন্তান তার বাবা-মায়ের বৈধ বিবাহের ফলে অথবা ডিভোর্সের ২৮০ দিনের মধ্যে জন্মগ্রহণ করে এবং উক্ত সন্তানের মা যদি অবিবাহিত থাকেন তবে উক্ত সন্তান, উক্ত ব্যক্তির বৈধ সন্তান হিসেবে চূড়ান্তভাবে প্রমাণিত হবে। কোনো সময়ে বিবাহিত পক্ষদ্বয়ের পরস্পরের মধ্যে মিলনের পথ উন্মুক্ত ছিল না। তবে জন্মের বিষয় দ্বারা অবশ্যই চূড়ান্তভাবে প্রমাণিত হবে যে, সে তার মায়ের সাথে বিবাহিত ওই ব্যক্তির সন্তান।

রিটকারী ইশরাত হাসান বলেন, সন্তানের পিতৃত্ব ও মাতৃত্ব পরীক্ষা হতেই পারে। কিন্তু বৈধতা বা অবৈধ ঘোষণা দেয়ার ব্যাপারটি একেবারেই অবান্তর। এর মাধ্যমে বৈধ ও অবৈধ সন্তানের মধ্যে পার্থক্য সৃষ্টি হয়। কোনো সন্তান যদি আদালতের মাধ্যমে বৈধ প্রমাণিত না হয় তবে তাকে সারাজীবন অবৈধ সস্তানের উপাধি নিয়ে নিগৃহীত হতে হবে, সমাজের কাছে ছোট হতে হবে যা একেবারেই কাম্য নয়। ধর্ষণের ফলে সন্তান জন্ম গ্রহণ করতে পারে। মুক্তিযুদ্ধের সময় এ রকম অসংখ্য ঘটনার নজির রয়েছে। তিনি বলেন, এই আইন সংবিধানের ২৭, ২৮ ও ৩২ অনুচ্ছেদের সঙ্গে সাংঘর্ষিক এবং এটি অদ্ভুত ও বৈষম্যমূলক। এছাড়া মানবাধিাকর সংক্রান্ত বৈশ্বিক ঘোষনার পরিপন্থী। এ কারণেই বিষয়টি নিয়ে রিট করা হয়েছে। - খবর বাসস

মাস্কের দাম অস্বভবিক বৃদ্ধি - ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার পরামর্শ হাইকোর্টের
                                  

অনলাইন ডেস্কঃ

বিশ্বে করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার সঙ্গে সঙ্গে দেশে মাস্কের দামও বাড়াতে থাকে। সম্প্রতি তিন ব্যক্তি করোনায় আক্রান্ত হলে মাস্কের দাম দ্বিগুণের থেকে বেশি বেড়ে যায়।এমন অবস্থায় কেউ মাস্কসহ প্রয়োজনীয় সরঞ্জামের দাম বাড়াতে এবং অবৈধ মজুত করতে না পারে, সেজন্য ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার পরামর্শ দিয়েছেন হাইকোর্ট। সোমবার বিচারপতি এফআরএম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কেএম কামরুল কাদেরের হাইকোর্ট বেঞ্চ এই পরামর্শ দেন।

আদালত বলেন, করোনা ভাইরাস ছড়ানোর পর মাস্ক ব্যবহারের কথা বলা হচ্ছে। এখন মানুষের মধ্যে একটা সচেতনতা তৈরি হয়েছে। সেই সুযোগে এটা নিয়ে বাজারে পেঁয়াজের মতো কোনও ব্যবসা হয় কিনা, সেটা খেয়াল রাখতে হবে। প্রয়োজনে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করতে হবে। যাতে কেউ যেন বেশি দাম না নিতে পারে, মজুত না করতে পারে। এ সময় আদালতে থাকা জ্যেষ্ঠ আইনজীবী মওদুদ আহমদ বলেন, মাস্ক নিয়ে বলবো, এখন ১০ টাকার মাস্ক ১২০ টাকা নিচ্ছে। এটা নিয়ে একটা নির্দেশনা দিন। সরকার ইচ্ছা করলে মাস্ক ফ্রি দিতে পারে।

জবাবে আদালত বলেন, ১০ টাকায় ১৬ কোটি মাস্ক দেওয়ার মতো অবস্থা নেই। একটা হতে পারে, যারা সন্দেহের মধ্যে আছে বা আক্রান্ত, হাসপাতালে যায় তাদের জন্য ব্যবস্থা করা যায় কিনা। সচেতনতার বিষয়ে আদালত বলেন, প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়াতে এমনভাবে সচেতনতামূলক বিষয় প্রচার করতে হবে, যাতে মানুষের দৃষ্টিগোচর হয়।

শিশু সায়মা হত্যার আসামি হারুনের মৃত্যুদণ্ড
                                  

অনলাইন ডেস্কঃ

রাজধানীর ওয়ারীর নার্সারির ছাত্রী সামিয়া আফরিন সায়মাকে (৬) ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনার আসামি হারুন আর রশিদের মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। সোমবার (৯ মার্চ) ঢাকার ১ নম্বর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক কাজী আব্দুল হান্নান এ রায় ঘোষণা করেন। রায়ে মামলার একমাত্র আসামির সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড হওয়ায় সন্তোষ প্রকাশ করেছেন সায়মার মা সানজিদা আক্তার ও বাবা আব্দুস সালাম। তারা এই রায় দ্রুত বাস্তবায়নের দাবি জানান সরকারের কাছে।

 

শিশু সায়মার মা সানজিদা আক্তার বলেন, আমার মেয়েকে হত্যায় হারুনের মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেয়ায় আমি সন্তুষ্ট। সরকার যেন এ রায় দ্রুত বাস্তবায়ন করে। সায়মার বাবা আব্দুস সালাম বলেন, হারুনের মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেয়ায় আমি খুশি। এই রায় যেন দ্রুত বাস্তবায়ন হয় এই দাবি করছি সরকারের কাছে।

উল্লেখ্য, গত বছরের ৫ জুলাই সন্ধ্যারয় শিশু সায়মাকে ধর্ষনের পরে গলায় ওর্না পেচিয়ে শ্বাস রোধ করে হত্যা করে আসামি হারূন। পরে আনুমানিক সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে নবনির্মিত একটি ভবনের নবম তলার খালি ফ্ল্যাটের ভেতর সায়মাকে মৃত অবস্থায় দেখতে পান পরিবারের সদস্যরা। খবর পেয়ে রাত ৮টার দিকে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে মরদেহ উদ্ধার করে। ঘটনার পরের দিন সায়মার বাবা আব্দুস সালাম বাদী হয়ে ওয়ারী থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা করেন।

শিশু সায়মা হত্যা মামলার রায় আগামীকাল
                                  

অনলাইন ডেস্কঃ

রাজধানীর ওয়ারীর সিলভারডেল স্কুলের নার্সারির ছাত্রী সামিয়া আফরিন সায়মাকে (৭) ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনায় দায়ের করা মামলার রায় আগামীকাল সোমবার।গত বৃহস্পতিবার ঢাকার ১নং নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক কাজী আব্দুল হান্নান রাষ্ট্র ও আসামি পক্ষের যুক্তি উপস্থাপন শেষে রায় ঘোষনার জন্য এ দিন ধার্য করেন।

চলতি বছরের ২ জানুয়ারি ঢাকার ১নং নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক কাজী আব্দুল হান্নান আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন। এর আগে গত ৫ নভেম্বর ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে ধর্ষক হারুন অর রশিদকে আসামি করে চার্জশিট দাখিল করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডিবির পুলিশ পরিদর্শক (নিরস্ত্র) ওয়ারী জোনাল টিম মো. আরজুন।

মামলার একমাত্র আসামি হারুন অর রশিদকে গত ৭ জুলাই তার বাড়ি কুমিল্লার তিতাস থানার ডাবরডাঙ্গা এলাকা থেকে গ্রেফতার করে ডিবি পুলিশ। পরের দিন হাকিম সরাফুজ্জামান আনসারীর আদালতে জবানবন্দি দেয় হারুন। জবানবন্দি রেকর্ড শেষে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত। বর্তমানে তিনি কারাগারে।

জি কে শামীমের জামিন বাতিল
                                  

অনলাইন ডেস্কঃ

অস্ত্র আইনের মামলায় জি কে শামীমকে ছয় মাসের যে জামিন দেওয়া হয়েছিলো তা বাতিল করেছে আদালত।রবিবার দুপুরে বিচারপতি এ কে এম আসাদুজ্জামান ও বিচারপতি এস এম মুজিবুর রহমান সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। এর আগে ৪ ও ৬ ফেব্রুয়ারি মাদক এবং অস্ত্র মামলায় হাইকোর্ট থেকে অন্তর্বর্তীকালীন জামিন পান ক্যাসিনোবিরোধী অভিযানে গ্রেফতার প্রভাবশালী ঠিকাদার এস এম গোলাম কিবরিয়া শামীম ওরফে জি কে শামীম।

এক মাস আগে দুইটি মামলায় জামিন পেলেও এ বিষয়ে কিছুই জানতো না রাষ্ট্রপক্ষ। নিম্ন আদালতে জামিননামা দাখিলের পরই বিষয়টি প্রকাশ পায়। এরপরই জি কে শামীমের জামিন বাতিল চেয়ে হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট বেঞ্চে আবেদন করে রাষ্ট্রপক্ষ। গত বছরের সেপ্টেম্বরে ঢাকায় ক্যাসিনোবিরোধী অভিযান শুরু করে র‌্যাব। ঐ অভিযানে জি কে শামীমসহ যুবলীগের শীর্ষ কয়েকজন নেতা ক্যাসিনোকাণ্ডে সম্পৃক্ত থাকার অভিযোগে গ্রেফতার হন। শামীমকে নিকেতন অফিস থেকে গ্রেফতারের পরদিন ২১ সেপ্টেম্বর তার বিরুদ্ধে গুলশান থানায় অস্ত্র, মাদক, অর্থ পাচার ও অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে চারটি মামলা করা হয়। এই চারটি মামলায় নিম্ন আদালতে জামিন চেয়ে ব্যর্থ হন তিনি। এরপর হাইকোর্টে জামিন চান।

এর মধ্যে অস্ত্র মামলায় গত ৬ ফেব্রুয়ারি বিচারপতি এ কে এম আসাদুজ্জামান ও বিচারপতি এস এম মজিবুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ শামীমকে ছয় মাসের জামিন দেয়। এ সংক্রান্ত আদেশে বলা হয়, আমরা নিম্ন আদালতের আদেশ ও জামিন আবেদন পর্যালোচনা করলাম। জামিন আবেদনকারীর আইনজীবীর বক্তব্যে সারবত্ত্বা থাকায় আবেদন মঞ্জুর করা হলো। ২৭ নভেম্বর ঢাকার বিশেষ ট্রাইব্যুনালের দেওয়া জামিন না মঞ্জুরের আদেশের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে জামিন চেয়েছিলেন তিনি।

এদিকে পাঁচ বোতল বিদেশি মদ পাওয়ার মামলায় ঢাকার মহানগর হাকিম আদালতের আদেশের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে জামিন চান শামীম। শুনানি নিয়ে বিচারপতি মো. রেজাউল হক ও বিচারপতি ভীষ্মদেব চক্রবর্তীর সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ ৪ ফেব্রুয়ারি তার এক বছরের জামিন মঞ্জুর করে।

তারেকসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা গ্রহনের দিন ধার্য
                                  

অনলাইন ডেস্কঃ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে কটূক্তির অভিযোগে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে করা মামলা গ্রহণে আদেশের জন্য আগামী ২২ মার্চ দিন ধার্য করেছেন আদালত। বৃহস্পতিবার মামলার গ্রহণের বিষয়ে আদেশের জন্য দিন ধার্য ছিল। ঢাকা মহানগর হাকিম ধীমান চন্দ্র মণ্ডল নথি পর্যালোচনা করে আদেশ দেবেন। এর আগে ১৮ ফেব্রুয়ারি ঢাকা মহানগর হাকিম ধীমান চন্দ্র মণ্ডলের আদালতে মামলাটি দায়ের করেন বাংলাদেশ জননেত্রী পরিষদের সভাপতি এবি সিদ্দিকী।

তারেক ছাড়া মামলার অপর আসামিরা হলেন- জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক ও লন্ডনের আইন ছাত্র পরিষদের সভাপতি শাহিদুর রহমান, জামায়াত নেতা মো. আফজাল হোসেন, মো. মুজিবুর রহমান, মো. আবদুল করিম, হাফেজ মো. দিদারুল ইসলাম, মো. জাকির হোসেন, মো. আব্দুল হালীম, রফিকুল ইসলাম। এছাড়া মামলায় অজ্ঞাতনামা বিএনপির আরও তিনজনকে আসামি করা হয়েছে।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, গত ৬ ডিসেম্বর মিরপুরে বাদিকে আসামিরা আটকে রেখে শর্ত দেন, আমাদের মা বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানসহ নেতাকর্মীদের নামে যত মামলা করেছিস তা আগামী সাতদিনের মধ্যে প্রত্যাহার করতে হবে। তা না হলে আবার তোকে ও তোর প্রধানমন্ত্রীকে ২১ আগস্টের মতো গ্রেনেড মেরে খুন করব। এরপর বাদিকে জামায়াত-শিবির ও বিএনপির নেকাকর্মীরা খুন করার উদ্দেশে খুঁজতে থাকেন।

এছাড়া লন্ডন থেকে তারেক রহমানের নির্দেশে ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক ও লন্ডনের আইন ছাত্র পরিষদের সভাপতি শাহিদুর রহমান অশ্লীল ভাষায় ফেসবুকে, মেসেঞ্জারে বাদিকে হুমকিসহ প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে হেয়প্রতিপন্নমূলক (কটূক্তি) কথা লেখেন, যা প্রধানমন্ত্রীর এক হাজার কোটি টাকার মানহানি হয়েছে বলে মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়। - খবর বাসস

ডেমরার চাঞ্চল্যকর দুই শিশু ধর্ষণ ও হত্যা মামলায় ২ জনের মৃত্যুদণ্ডাদেশ
                                  

অনলাইন ডেস্কঃ

রাজধানীর ডেমরা এলাকার পাঁচ বছরের শিশু ফারিয়া আক্তার দোলা ও ৪ বছরের নুসরাত জাহানকে ধর্ষণ ও হত্যার দায়ে ঢাকার একটি আদালত আজ ২ জনকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়েছে। আজ মঙ্গলবার ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইব্যুনালের বিচারক জয়শ্রী সমদ্দার আসামিদের উপস্থিতিতে এ রায় ঘোষণা করেন। মৃত্যুদণ্ডাদেশপ্রাপ্তরা হলেন, গোলাম মোস্তফা ও আজিজুল বাওয়ানী। রায়ে মৃত্যুদণ্ডের পাশাপাশি প্রত্যেকের ৫০ হাজার টাকা জরিমানাও করা হয়। জরিমানার টাকা সমহারে দুই পরিবার পাবেন। আসামিদের আজ কারাগার থেকে আদালতে হাজির করা হয়। রায় ঘোষণার পর তাদেরকে আবারও কারাগারে পাঠানো হয়। আদালতের স্টোনোগ্রাফার গৌতম নন্দী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, ২০১৯ সালের ৭ জানুয়ারি দুপুরে ডেমরা থানার কোনাপাড়াস্থ শাহাজালাল রোডের নাবিলা ভিলার নিচতলায় দক্ষিণ-পশ্চিম কোনে রুমে পলাশ হাওলাদারের কন্যা ভিকটিম নুসরাত জাহান এবং প্রতিবেশী ফরিদুল ইসলামের কন্যা ফারিয়া আক্তারকে লিবিসটিক দিয়া সাজাইয়া দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে আসামিরা ডেকে নিয়ে যায়। এরপর রুমের দরজা বন্ধ করে মোবাইলের মাধ্যমে সাউন্ডবক্সে গান ছড়িয়ে আসামিরা শিশুদের পাশবিক নির্যাতন করে। পরে আসামি আজিজুল ভিকটিম নুসরাত জাহানকে গামছা দিয়ে শ্বাসরোধে হত্যা এবং গোলাম মোস্তফা ভিকটিম ফারিয়াকে গলা টিপে হত্যা করে।

এ ঘটনায় ডেমরা থানায় নুসরাত জাহানের বাবা পলাশ হাওলাদার বাদি হয়ে একটি মামলা করেন। ২০১৯ সালের ২২ জানুয়ারি ডেমরা থানার উপ-পরিদর্শক শাহ আলম দুই আসামির বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। একই বছর ২৩ মার্চ আসামিদের বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করেন। ১৫ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ ও আলামত বিশ্লেষণ শেষে আজ এ রায় ঘোষণা করা হয়। - খবর বাসস

আদালত অঙ্গন দালাল মুক্ত করার নির্দেশ হাইকোর্টের
                                  

অনলাইন ডেস্কঃ

দেশের সব আইনজীবী সমিতি ও আদালত অঙ্গন টাউট, দালাল,  ভূয়া আইনজীবী সহকারী মুক্ত করতে নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট। ৬০ দিনের মধ্যে এ আদেশ বাস্তবায়ন করে আদালতে প্রতিবেদন দিতে বাংলাদেশ বার কাউন্সিল সচিবকে নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

বিষয়টি নিয়ে রিটকারী এডভোকেট ফরহাদ উদ্দিন আহমেদ ভূইঁয়া আদালতের আদেশের কথা জানান। তিনি বলেন, বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমান সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের একটি ডিভিশন বেঞ্চ আজ সোমবার রিটটির প্রাথমিক শুনানি শেষে এ নির্দেশনা দেয়। আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি এটর্নি জেনারেল অমিত তালুকদার। - খবর বাসস

বঙ্গবন্ধু ও আওয়ামী লীগকে কটূক্তি মামলার খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগের শূনানি ৫ এপ্রিল
                                  

অনলাইন ডেস্কঃ

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগকে নিয়ে কটূক্তির মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে করা মামলার অভিযোগ গঠন শুনানির জন্য আগামী ৫ এপ্রিল দিন ধার্য করেছে আদালত। আজ রবিবার ঢাকার মহানগর হাকিম শহিদুল ইসলাম এ দিন ধার্য করেন। রবিবার মামলার অভিযোগ গঠন শুনানির জন্য দিন ধার্য ছিল। খালেদা জিয়ার আইনজীবী এদিন অভিযোগ গঠন শুনানি পেছানোর জন্য সময়ের আবেদন করেন। আদালত সময়ের আবেদন মঞ্জুর করে ৪ এপ্রিল অভিযোগ গঠন শুনানির জন্য নতুন দিন ধার্য করেন।

২০১৭ সালের ২৫ জানুয়ারি ঢাকা মহানগর হাকিম আব্দুল্লাহ আল মাসুদের আদালতে জননেত্রী পরিষদের সভাপতি এ বি সিদ্দিকী বাদী হয়ে মামলাটি করেন। আদালত বাদীর জবানবন্দি গ্রহণ করে শাহবাগ থানার তদন্তকারী কর্মকর্তাকে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন।

২০১৮ সালের ৩০ জুন দুই মামলায় খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন তদন্ত কর্মকর্তা ও শাহবাগ থানার ওসি (তদন্ত) জাফর আলী বিশ্বাস। এরপর মামলার বাদী খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির আবেদন করেন।

২০১৯ সালের ২০ মার্চ ঢাকা মহানগর হাকিম জিয়াউর রহমান প্রতিবেদন আমলে নিয়ে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন। এরপর উচ্চ আদালত থেকে খালেদা জিয়া জামিন নেন।

বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রজ্ঞাপনের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট
                                  

অনলাইন ডেস্কঃ

ক্রেডিট কার্ড ছাড়া অন্য ক্ষেত্রে ব্যাংক ঋণের সুদহার ৯ শতাংশ নির্ধারণ করে বাংলাদেশ ব্যাংকের জারি করা প্রজ্ঞাপনের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়েছে। বিচারপতি তারিক উল হাকিম ও বিচারপতি মো. ইকবাল কবিরের সমন্বয়ে গঠিত একটি হাইকোর্ট ডিভিশন বেঞ্চে রবিবার রিটটি উপস্থাপন করা হলে আদালত এ বিষয়ে শুনানির জন্য কাল সোমবার দিন ধার্য করেছেন।

মাহফুজুর রহমান নামের একজন আইনের ছাত্র আবেদনকারী হয়ে হাইকোর্টে রিটটি দায়ের করেন। এই রিটের পক্ষে শুনানি করবেন ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন। রিটে অর্থ সচিব, বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নরসহ তিনজনকে বিবাদী (রেসপনডেন্ট) করা হয়েছে।

ব্যারিস্টার সুমন সাংবাদিকদের বলেন, গত ২৪ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ ব্যাংক একটি সার্কুলার দিয়ে বলেছে, ব্যাংকিং প্রতিষ্ঠানগুলো লোনের ক্ষেত্রে ৯ শতাংশের বেশি ইন্টারেস্ট (সুদ) নিতে পারবে না। তবে এর আগে মৌখিকভাবে বলা হয়েছিল যে, ব্যাংকগুলো ৯ শতাংশের বেশি সুদ নিতে পারবে না এবং আমানতকারীদের ৬ শতাংশের বেশি সুদ দেয়া হবে না। কিন্তু বাংলাদেশ ব্যাংকের সার্কুলারে আমানতকারীদের বিষয়ে এখন কিছুই বলা নাই। অন্যদিকে আমানতে সুদের হার ৬ শতাংশের কারণে ২ কোটি মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হবে। আর একটি বিষয় হচ্ছে ওই সার্কুলারে শুধু ব্যাংকিং প্রতিষ্ঠানের কথা আছে। অন্য আর্থিক প্রতিষ্ঠানের কথা বলা নাই। তাই আর্থিক প্রতিষ্ঠান চাইলে যা ইচ্ছা ইন্টারেস্ট নিতে পারবে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের জারি করা ৯ শতাংশ সুদের সার্কুলারের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে এবং ওই সার্কুলারটি স্থগিত চেয়ে রিটটি করা হয়েছে। আগামীকাল এই রিটের ওপর শুনানি হবে।

‍উল্লেখ্য, ‍গত ২৪ ফেব্রুয়ারি কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগ থেকে এবিষয়ে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করে সকল তফসিলি ব্যাংকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাদের কাছে পাঠানো হয়েছে। সে অনুযায়ী চলতি বছরের ১ এপ্রিল থেকে নির্ধারিত সুদে ঋণ বিতরণ শুরু হবে। ওই প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, অশ্রেণিকৃত ঋণ-বিনিয়োগের ওপর সুদ-মুনাফা হার সর্বোচ্চ ৯ শতাংশ নির্ধারণ করা হলো। - খবর বাসস


   Page 1 of 13
     আদালত
মুক্তি পাচ্ছেন বেগম খালেদা জিয়া
.............................................................................................
কোর্ট বন্ধের বিষয়ে সকল বিচারপতি সিদ্ধান্ত নেবেন
.............................................................................................
ফাহাদ হত্যা মামলার নথি দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে
.............................................................................................
‍আসামি মজনুর বিরুদ্ধে ডিবির চার্জশিট
.............................................................................................
মানহানির মামলায় স্থায়ী জামিন পেলেন খালেদা
.............................................................................................
জয় বাংলা - কে জাতীয় স্লোগান ঘোষণা হাইকোর্টের
.............................................................................................
বৈধ সন্তান নিরূপণ সংক্রান্ত ধারা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টের রিট
.............................................................................................
মাস্কের দাম অস্বভবিক বৃদ্ধি - ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার পরামর্শ হাইকোর্টের
.............................................................................................
শিশু সায়মা হত্যার আসামি হারুনের মৃত্যুদণ্ড
.............................................................................................
শিশু সায়মা হত্যা মামলার রায় আগামীকাল
.............................................................................................
জি কে শামীমের জামিন বাতিল
.............................................................................................
তারেকসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা গ্রহনের দিন ধার্য
.............................................................................................
ডেমরার চাঞ্চল্যকর দুই শিশু ধর্ষণ ও হত্যা মামলায় ২ জনের মৃত্যুদণ্ডাদেশ
.............................................................................................
আদালত অঙ্গন দালাল মুক্ত করার নির্দেশ হাইকোর্টের
.............................................................................................
বঙ্গবন্ধু ও আওয়ামী লীগকে কটূক্তি মামলার খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগের শূনানি ৫ এপ্রিল
.............................................................................................
বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রজ্ঞাপনের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট
.............................................................................................
খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন খারিজ হাইকোর্টের
.............................................................................................
পিকে হালদারসহ ২০ জনের ব্যাংক হিসাব ও পাসপোর্ট জব্দের আদেশ বহাল
.............................................................................................
নানীর বাণী বইটি প্রকাশনা ও বিক্রি নিষিদ্ধ করল হাইকোর্ট
.............................................................................................
ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ধারার বৈধতা নিয়ে হাইকোর্টের রুল
.............................................................................................
ব্যবসা করতে হলে দেশের সকল নিয়ম কানুন মেনেই করতে হবে- প্রধান বিচারপতি
.............................................................................................
জোরদার করা হচ্ছে হাইকোর্ট ‍এলাকার নিরাপত্তা
.............................................................................................
সোমবারের মধ্যে গ্রামীনফোনকে টাকা পরিশোধের নির্দেশ ‍আদালতের
.............................................................................................
ব্রেস্ট ফিডিং কর্নার স্থাপনে দুই মাস সময় দিলো হাইকোর্ট
.............................................................................................
আবরার হত্যা মামলার অভিযোগ গঠনের শুনানি ১৮ মার্চ
.............................................................................................
বড়পুকুরিয়া দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন আগামী ২৯ মার্চ
.............................................................................................
জাতীয় দিবসে ইংরেজির পাশাপাশি বাংলা তারিখ ব্যবহারে হাইকোর্টের রুল
.............................................................................................
প্রসিকিউটর পদ থেকে অব্যাহতি চান ব্যারিস্টার সুমন
.............................................................................................
ফিটনেস বিহিন সব ধরনের গাড়ি নিষিদ্ধ করল হাইকোর্ট
.............................................................................................
শরিয়ত বয়াতিকে কেন জামিন দেয়া হবে না - জানতে চেয়ে হাইকোর্টের রুল
.............................................................................................
রাজধানীসহ দেশের সব ক্লাবে জুয়া খেলা নিষিদ্ধ
.............................................................................................
ডিআইজি ও দুদকের পরিচালকের বিরুদ্ধে আদালতের চার্জশিট গ্রহণ
.............................................................................................
সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী ফোরামের আংশিক প্যানেল ঘোষণা
.............................................................................................
গর্ভজাত শিশুর লিঙ্গ শনাক্ত রোধে নীতিমালা তৈরি করতে রুল হাইকোর্টের
.............................................................................................
কারাগারে ১১৭ জন চিকিৎসক নিয়োগের নির্দেশ হাইকোর্টের
.............................................................................................
ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণের তদন্ত প্রতিবেদন আগামী ২৩ ফেব্রুয়ারি
.............................................................................................
ডেসটিনির এমডি রফিকুল আমিনকে ৩ বছরের কারাদণ্ড
.............................................................................................
জাহালমের ক্ষতিপূরণের মামলা চলবে
.............................................................................................
মান্নাকে তিন মাসের জন্য পাসপোর্ট ফেরত দিতে নির্দেশ
.............................................................................................
দুদকের তলবে যেতেই হবে রুহুল আমিন হাওলাদারকে: আপিল বিভাগ
.............................................................................................
২ মে খালেদার বড়পুকুরিয়া কয়লাখনি দুর্নীতি মামলার শুনানি
.............................................................................................
নাইকো দুর্নীতি মামলায় অভিযোগ গঠনের শুনানি আজ
.............................................................................................
কাগজপত্র না পাওয়ায় অভিযোগ গঠনের শুনানি পেছাল
.............................................................................................
কুমিল্লার হত্যা মামলায় হাইকোর্টে খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন
.............................................................................................
জামিনে মুক্ত ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন
.............................................................................................
নতুন এমপিদের শপথের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা রিটের শুনানি ৩১ জানুয়ারি
.............................................................................................
ঢাকা উত্তর সিটির মেয়র পদে নির্বাচনে বাধা নেই
.............................................................................................
মির্জা আব্বাস ও আফরোজা আব্বাসের আগাম জামিন
.............................................................................................
ডেমরায় দুই শিশু হত্যার ঘটনায় গ্রেফতার ২
.............................................................................................
ফারুকী হত্যাকাণ্ড; মামলার তদন্ত প্রতিবেদন ৭ ফেব্রুয়ারি
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
সম্পাদক ও প্রকাশক : মো : মাহবুবুর রহমান ।
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মো: হাবিবুর রহমান । সম্পাদক কর্তৃক বিএস প্রিন্টিং প্রেস ৫২/২ টয়েনবি সার্কুলার রোড, সুত্রাপুর ঢাকা খেকে মুদ্রিত
ও ৬০/ই/১ পুরানা পল্টন (৭ম তলা) থেকে প্রকাশিত বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৫১,৫১/ এ রিসোর্সফুল পল্টন সিটি (৪র্থ তলা), পুরানা পল্টন, ঢাকা -১০০০।
ফোনঃ-০২-৯৫৫০৮৭২ , ০১৭১১১৩৬২২৬

Web: www.bhorersomoy.com E-mail : dbsomoy2010@gmail.com
   All Right Reserved By www.bhorersomoy.com Developed By: Dynamic Solution IT & Dynamic Scale BD