|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * পুরাণ ঢাকার চকবাজার রাজউক এর উচ্ছেদ অভিযান।   * ঢাকা মেডিকেল রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি মাসুদ সাধারণ সম্পাদক আমানত   * মিরপুর বিআরটিএ দালালমুক্ত করবে দ্বায়িত্বে থাকা আনসার কমান্ডার হাশেম   * বগুড়া-০৬ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিলেন সাংবাদিক নয়ন রায়   * এইচএসসিতে গোল্ডেন জিপিএ-৫ পেয়েছে রাফিউর রহমান অয়ন   * তুরস্কে জাতীয় সংবিধান দিবস-২০২৩ উদযাপন   * আগামীকাল বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যক্ষ আবু তাহের ভূইঁয়ার ১৫তম মৃত্যুবার্ষিকী   * বাবার অনুপ্রেরণায় ব্যারিস্টার হলেন শরিয়তপুর জেলার মোহাম্মদ শাহনেওয়াজ (জুয়েল)   * জামালপুর-৪ (সরিষাবাড়ী) আসনের মনোনয়ন প্রত্যাশী আলহাজ্ব ডা: মুরাদ হাসানের সমাবেশে জনতার ঢল।   * সরিষাবাড়ীতে কারখানা বাচাঁতে শ্রমিকদের মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ  

   জাতীয় -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
পুরাণ ঢাকার চকবাজার রাজউক এর উচ্ছেদ অভিযান।

সিনথিয়া আহাম্মেদ পপি।
চকবাজার  এলাকায় কয়েকটি ভবনের নির্মাণকাজ বন্ধ করে দিলো রাজধানী উন্নয়ন কৃতপক্ষ (রাজউক) ভবন গুলো নিয়ম না মেনে নির্মাণ হচ্ছিল বলে রাজউকের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে। এ সময় নকশা বহির্ভূত কয়েকটি ভবনের আংশিক অপসারণসহ জরিমানা করা হয়। অভিযানটি পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শারমিন আরা
রবিবার(১৮ ফেব্রুয়ারি) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক) জোন-৫/৩ উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করে।নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শারমিন আরা 
 রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ জোন- ৫/৩ আওতাধীন চকবাজার পোস্তা  এলাকায় রাজউক নকশা বহির্ভূত ভবন নির্মাণ করায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়। নকশা বহির্ভূত কয়েকটি বহুতল ভবনের আংশিক অপসারণসহ তাৎক্ষনিক ভাবে দুইটি ভবনে মোট তিন লাখ পঞ্চাশ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। বাকি অংশ নিজ উদ্যোগে ভেঙে অপসারণ করবেন বলে নন-জুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে মুচলেকা দেন ভবন মালিক।
 
উচ্ছেদ অভিযানে উপস্থিত ছিলেন রাজউক জোন-৫/৩ এর পক্ষে অথরাইজড অফিসার শেখ মোহাম্মদ এহসান ইমান, সহকারি অথরাইজড অফিসার ইসমাইল হোসেন,
প্রধান  ইমারত পরিদর্শক জাহিদুল ইসলাম ও সুজন আহামেদ,  ইমারত পরির্দশক শাহীন আরিফুর রহমান, ইমারাত পরিদর্শক আবু সায়েম,ইমারাত  পরিদর্শক, বিধান চন্দ্র কর্মকার, ইমারাত  মোঃ গোলাম কিবরিয়া, ইমারত পরিদর্শক আব্দুল আলিম সহ অনন্য ইমারত পরির্দশক, উচ্ছেদ অভিযানে উপস্থিত ছিলেন।
পুরাণ ঢাকার চকবাজার রাজউক এর উচ্ছেদ অভিযান।
                                  
সিনথিয়া আহাম্মেদ পপি।
চকবাজার  এলাকায় কয়েকটি ভবনের নির্মাণকাজ বন্ধ করে দিলো রাজধানী উন্নয়ন কৃতপক্ষ (রাজউক) ভবন গুলো নিয়ম না মেনে নির্মাণ হচ্ছিল বলে রাজউকের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে। এ সময় নকশা বহির্ভূত কয়েকটি ভবনের আংশিক অপসারণসহ জরিমানা করা হয়। অভিযানটি পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শারমিন আরা
রবিবার(১৮ ফেব্রুয়ারি) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক) জোন-৫/৩ উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করে।নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শারমিন আরা 
 রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ জোন- ৫/৩ আওতাধীন চকবাজার পোস্তা  এলাকায় রাজউক নকশা বহির্ভূত ভবন নির্মাণ করায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়। নকশা বহির্ভূত কয়েকটি বহুতল ভবনের আংশিক অপসারণসহ তাৎক্ষনিক ভাবে দুইটি ভবনে মোট তিন লাখ পঞ্চাশ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। বাকি অংশ নিজ উদ্যোগে ভেঙে অপসারণ করবেন বলে নন-জুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে মুচলেকা দেন ভবন মালিক।
 
উচ্ছেদ অভিযানে উপস্থিত ছিলেন রাজউক জোন-৫/৩ এর পক্ষে অথরাইজড অফিসার শেখ মোহাম্মদ এহসান ইমান, সহকারি অথরাইজড অফিসার ইসমাইল হোসেন,
প্রধান  ইমারত পরিদর্শক জাহিদুল ইসলাম ও সুজন আহামেদ,  ইমারত পরির্দশক শাহীন আরিফুর রহমান, ইমারাত পরিদর্শক আবু সায়েম,ইমারাত  পরিদর্শক, বিধান চন্দ্র কর্মকার, ইমারাত  মোঃ গোলাম কিবরিয়া, ইমারত পরিদর্শক আব্দুল আলিম সহ অনন্য ইমারত পরির্দশক, উচ্ছেদ অভিযানে উপস্থিত ছিলেন।
ভালো ফলাফলের জন্যে আত্মবিশ্বাস থাকা প্রয়োজন : লায়ন মোঃ গনি মিয়া বাবুল
                                  
নিজস্ব প্রতিবেদক
বঙ্গবন্ধু গবেষণা পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি লায়ন মোঃ গনি মিয়া বাবুল বলেছেন, পরীক্ষায় ভালো ফলাফল অর্জনের জন্যে শিক্ষার্থীদের আত্মবিশ্বাস থাকা প্রয়োজন। পরীক্ষার্থীকে বিশ্বাস করতে হবে যে ‘আমি পারবো’। পরীক্ষা চলাকালীন ও পূর্ববর্তী সময়ে পরীক্ষার্থীকে মানসিক ও শারীরিকভাবে সুস্থ থাকতে হবে। এই জন্যে পরীক্ষার্থীকে পরিমিত ও নিয়মিত সুষম খাদ্য গ্রহণ, নিয়মিত ঘুমসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। ভালো ফলাফল লাভের জন্যে শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও অভিভাবকদের ত্রিপক্ষীয় সমন্বিত প্রচেষ্টা প্রয়োজন। শিক্ষকদের নির্দেশনা অনুযায়ী নিয়মিত শিক্ষার্থীকে মনোযোগসহকারে লেখাপড়া করতে হবে। পরীক্ষা হলে ঠান্ডা মাথায় মনোযোগ সহকারে প্রতিটি প্রশ্নের উত্তর নির্দিষ্ট সময়ের পূর্বেই লেখে শেষ করতে হবে। উত্তর পত্রে প্রশ্নের ক্রমিক নং, রোল নম্বর,  রেজি নম্বর, অতিরিক্ত পৃষ্ঠার নম্বর যথাযথভাবে নির্দিষ্ট স্থানে লিখে নির্ধারিত বৃত্ত ভরাট করতে হবে, এগুলো কোনটি ভূল হলে পরীক্ষা হলের দায়িত্বরত শিক্ষককে জানাতে হবে।

গাজীপুর জেলার শ্রীপুরের কাছম আলী ন্যাশনাল আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজের ২০২৪ সালের এসএসসি পরীক্ষার্থীদের বিদায় সংবর্ধনা, দোয়া-মিলাদ ও আলোচনা সভা উপলক্ষে ১২ ফেব্রুয়ারি (সোমবার) স্কুল মাঠে আয়োজিত অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। বঙ্গবন্ধু গবেষণা পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি ও কাছম আলী ন্যাশনাল আইডিয়াল স্কুলের সভাপতি লায়ন মোঃ গনি মিয়া বাবুল আরো বলেন,  জাতীয় উন্নয়ন-অগ্রগতির জন্যে শিক্ষা অপরিহার্য। স্মার্ট বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা করতে তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক শিক্ষাক্রম পাঠ্যপুস্তকে আরো অধিক অন্তর্ভূক্ত করার জন্যে তিনি আহ্বান জানান। নতুন প্রজন্মকে সুনাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে মানবিক ও নৈতিক শিক্ষার পরিধি বাড়াতে হবে। তিনি যুগোপযোগী ও দক্ষ নাগরিক তৈরীর জন্যে সময়োপযোগী শিক্ষাক্রম প্রণয়ন ও বাস্তবায়নের আহ্বান জানান। তিনি আরো বলেন, শিক্ষার্থীদেরকে দক্ষ ও সুনাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টা প্রয়োজন।
অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, কাছম আলী ন্যাশনাল আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ আলহাজ¦ মোঃ রিপন মিয়া। আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন, তেলিহাটি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মোঃ আব্দুস সাত্তার আবুল, ঢাকার ইউনাইটেড হাসপাতালের সিনিয়র মেডিকেল অফিসার ডাঃ মোঃ মিজানুর রহমান, গাজীপুর জেলা কিন্ডারগার্টেন শিক্ষক পরিষদের আহ্বায়ক এস এম কাজল রানা, স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সদস্য মোঃ আব্দুল হেকিম প্রমুখ। অনুজশিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে একাধিক শিক্ষার্থী এস এস সি পরীক্ষার্থীদের বিদায় জানিয়ে বক্তব্য প্রদান করেন। এস এস সি পরীক্ষার্থীদের পক্ষ থেকেও একাধিক শিক্ষার্থী সকলের কাছে দোয়া চেয়ে বক্তব্য প্রদান করেন। আলোচনা শেষে শিক্ষার্থীদের সফলতা ও দেশ-জাতির সমৃদ্ধি কামনা করে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। দোয়া মাহফিল পরিচালনা করেন স্থানীয় মসজিদের ইমাম হাফেজ মাওলানা মোঃ আশরাফুল ইসলাম।

ঢাকা মেডিকেল রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি মাসুদ সাধারণ সম্পাদক আমানত
                                  
ঢামেক প্রতিবেদক: ঢাকা মেডিকেল রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিএমআরইউ)সভাপতি ইনডিপেনডেন্ট টিভির মাসুদ রানা ও সাধারণ সম্পাদক যমুনা টিভির সৈয়দ আমানত আলী নির্বাচিত হয়েছেন।
সোমবার(৫ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে ঢাকা মেডিকেল রিপোর্টার্স ইউনিটির কার্যালয়ে ১৯ সদস্যের কমিটি ঘোষণা করা হয়।
অন্যান্য নির্বাচিত হলেন- সহ-সভাপতি হয়েছেন এন টিভির কাজী শফিউল ইসলাম(আল আমিন), যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এশিয়ান টিভির হাফেজ মহিউদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক দৈনিক সংবাদের মোহাম্মদ আলী, কল্যাণ সম্পাদক ঢাকা নিউজের জহিরুল ইসলাম সানি, দপ্তর সম্পাদক কালের নিউজ২৪ ডটকমের জীবন মিয়া, অর্থ সম্পাদক দৈনিক আমার বার্তার জাহাঙ্গীর আলম শাহীন, নারী সম্পাদক দৈনিক ঢাকা টাইমসের আহমেদ মুন্নি, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক দৈনিক অগ্রসরের ওমর ফারুক, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক জিয়াসমিন আক্তার রোদেলা।কার্যকরী সদস্যরা হলেন- নয়া দিগন্তের শামীম হাওলাদার, আতিকুল ইসলাম, খন্দকার বেনজির আহমেদ, আব্দুল্লাহ আল মামুন, মুরাদ হোসেন,সিরাজাম মনিরা,নাজমুল হোসাইন সাগর ও সোনিয়া আক্তার কারিবা
এই কমিটি আগামী এক বছর দায়িত্ব পালন করবেন।উক্ত কমিটি ঘোষণা করেন ঢাকা জেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি মোঃ শামীম হাওলাদার।
দক্ষিণ সিটির আওতাধীন এলাকার সকল নির্বাচনী কেন্দ্রে বিশেষ মশক নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রম পরিচালিত
                                  

বিশেষ প্রতিনিধি, আবুল মনসুর আহমেদ:

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষ্যে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ঢাদসিক) আওতাধীন এলাকায় অবস্থিত সকল নির্বাচনী কেন্দ্রে বিশেষ মশক নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়েছে। 

 

আজ শনিবার (৬ জানুয়ারি) ঢাদসিক`র আওতাধীন ৭৪২টি স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা, বিশ্ববিদ্যালয়ে এই বিশেষ মশক নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়। 

অঞ্চল-১ এ ৪৮টি, অঞ্চল-২ এ ২৫০টি, অঞ্চল-৩ এ ১০৮টি, অঞ্চল-৪ এ ৯৯, অঞ্চল-৫ এ ৯৭টি, অঞ্চল-৬ এ ১৯টি, অঞ্চল-৭ এ ১৬টি, অঞ্চল-৮ এ ২৫টি, অঞ্চল-৯ এ ২২টি এবং অঞ্চল-১০ এ ৫৮টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এই বিশেষ মশক নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়েছে।

 

বিশেষ মশক নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রমে আওতায় যে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নির্বাচনী কেন্দ্র রয়েছে সে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সকালে লার্ভিসাইডিং ও বিকালে এডাল্টিসাইডিং করা হয়েছে। এছাড়াও প্রয়োজন অনুযায়ী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে ব্লিচিং পাউডারও ছিটানো হয়েছে। 

মিরপুর বিআরটিএ দালালমুক্ত করবে দ্বায়িত্বে থাকা আনসার কমান্ডার হাশেম
                                  
মাহমুদুল হাসান 
 
মিরপুর বিআরটিএ নানা রকম দালাল ও প্রতারক চক্রের দেখা মেলে। এতে সাধারন জনগনের চরম ভোগান্তি পরতে হয় গাড়ি সংক্রান্ত কোন কাজে গেলে, দরবেশ বাবাদের সাথে দেখা না করলে কোন ভাবেই বিআরটিএর কাজ সম্পর্ন হয়না। চরম এই দূর্ভোগ চলে আসছে বহু দিন ধরে। তাই নিরাপত্তা বাহিনীর সদ্য আনসার কমান্ডার হাশেম অল্প কিছু দিন হলো মিরপুর বিআরটিএ এর নিরাপত্তার দ্বায়িত্ব পালন করছে। 
তার আগে ২৭/১২/২৩ ইং তারিখে কে বা কারা কমান্ডার হাশেমের বিরুদ্ধে মিথ্যা এবং ভূয়া অভিযোগ করে। যেখানে বলা হয়েছে রাজধানীর মিরপুর এলাকার বিআরটিএ বর্তমান আনসার কমান্ডার মাত্র ১৫ দিনে কর্মরত অবস্থায় এমন কোন দুর্নীতি নেই যে তিনি করছেন না। মিরপুর বিআরটিএ কেহ ড্রাইভিং লাইসেন্স,গাড়ির কাগজ সহ বিভিন্ন কার্যক্রম করতে গেলে আনসার কমান্ডার হাশেমের সাথে যোগাযোগ করে সেবা নিতে হয়। কমান্ডার হাশেমের সাথে যদি যোগাযোগ না করে তাহলে সেভাবে প্রত্যাশীদের ভোগান্তির শেষ নেই। উপ-পরিচালকের দুর্নীতির ও টাকা কালেকশনের একমাত্র এজেন্ট হিসেবে কাজ করছেন কমান্ডার হাশেম। অল্প কয়েক দিনের ভিতরে তার সকল দুর্নীতির কার্যক্রম সাজিয়ে গুছিয়ে নিয়ে হাতিয়ে নিচ্ছে লক্ষাধিক টাকা। উল্লেখ্য বিষয়ে গণমাধ্যম কর্মীরা তথ্য জানতে চাইলে তাদেরকে বলেন আপনারা যা পারেন লিখেন এতে আমার কিছু আসে যায় না। সেবা প্রত্যাশীদের অভিযোগ এই কমান্ডার হাশিমের সাথে যোগাযোগ না করলে কোন প্রকারে কোন সেবা পাচ্ছিনা আমরা তাই অনতিবিলম্বে তাকে এখান থেকে প্রত্যাহার করা সহ তার বিরুদ্ধে প্রযোজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার জন্য বিনীত অনুরোধ জানাচ্ছি উদ্বোধন কর্মকর্তার কাছে।
সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায় উপরের সকল কথা মিথ্যা ও বিভ্রান্তকর। তাই এমন মিথ্যা ও অবঞ্চিত লেখায় ও সংবাদকর্মীদের নাম ব্যবহার করে যারা অভিযোগ করেছেন তাদের দ্রুত আইনের আওতায় আনা হোক।
 
এ বিষয় নিয়ে আনসার কমান্ডার হাশেমের সাথে কথা বললে তিনি জানান আমি আমার উপর অর্পিত দ্বায়িত্ব সৎ ও নিষ্ঠার সাথে পালন করে আসছি এবং ভবিষ্যতেও করব। 
সাধারন জনগণের এসে যাতে নিজেদের কাজ নিজেরাই করে নিতে পারে সে ব্যাপারে আমরা প্রতিটা আনসার দায়িত্ব সহকারে কাজ করবো বলে সাংবাদিকদের আসস্ত করেন। 
তিনি আরো বলেন মিরপুর বিআরটিএ ভিতরে কোন রকম প্রতারক চক্রকে অফিস চলাকালীন সময়ে ডোকতে দেয়া হয়না,তারপরেও যদি কোন দালাল কে পাওয়া যায়, তাকে নির্বাহী বিচার আওতাধীন করে জেল ও জরিমানা করা হয়। আজ ২৯/১২/২০২৩ ইং রোজ বৃহস্পতিবার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তাসমীয়া জায়গীরদার আদালত ৯ এর নেতৃত্বে, মিরপুর বিআরটি এ অভিযান চালিয়ে ২ জন দালাল কে আটক করে। তাদের মধ্যে একজন নারী একজন পুরুষ। তাদেরকে এক মাসের সাজা দেয়া হয়। 
সাজাকৃত আসামী হলো:
মোসাঃ শাহাজাদি,স্বামীঃ হোসেন আলি (৪৮) মিঠুন,পিতাঃ আলমাছ আলী (২৩)। তিনি আরো জানান সাজা প্রাপ্ত দালালরা সাধারণ মানুষের কাজ থেকে কাজের কথা বলে মানুষকে হয়রানি ও টাকা -পয়সা নিয়ে গায়েব হয়ে যায়। এই অভিযানের সময় বিআরটিএ আনসার কমান্ডার হাশেমের নেতৃত্বে আনসার সদস্যরা সহযোগিতা করেন। 
এব্যাপারে আনসার কমান্ডার হাশেমকে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন ২ জনকে আটক করে এক মাসের মেয়াদে সাজা দিয়ে কাফরুল থানার পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়। আনসার বাহিনী জনগনের সেবক। জনগনকে সেবা দেয়াই তাদের মূল লক্ষ্য। 
এর বাহিরে যদি কোন আনসার দূর্নীতির সাথে জরিয়ে পরে আর তা যদি তদন্ত কালীন সময়ে আমার কাছে আসে আমি কঠিন ব্যবস্হা নিতে বাধ্য থাকিব।
বস্তিতে বসবাসকারী বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুদের জীবনমান উন্নয়নে সহযোগিতার আশ্বাস তুরস্কের
                                  

বিশেষ প্রতিবেদক, আবুল মনসুর আহমেদঃ

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলামের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন ঢাকায় নিযুক্ত তুরস্কের রাষ্ট্রদূত রামিস সেন।বৃহস্পতিবার (২১ ডিসেম্বর ২০২৩) দুপুরে রাজধানীর গুলশানে ডিএনসিসির প্রধান কার্যালয় নগর ভবনে মেয়রের কার্যালয়ে এই সাক্ষাৎ করেন তিনি।সাক্ষাৎকালে তুরস্কের রাষ্ট্রদূত গত ফেব্রুয়ারি মাসে শক্তিশালী ভূমিকম্পে বিপর্যস্ত তুরস্কে মানবিক সহায়তা দিয়ে পাশে দাঁড়ানোর জন্য ডিএনসিসি মেয়রকে ধন্যবাদ জানান।এসময় রাষ্ট্রদূত ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের আওতাধীন এলাকার বস্তিতে বসবাসকারী বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন শিশুদের জীবনমান উন্নয়নে কাজ করার আগ্রহ প্রকাশ করেন।

ডিএনসিসি মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলাম বলেন, `জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে প্রতিদিন অসংখ্য জলবায়ু উদ্বাস্তু ঢাকায় প্রবেশ করে। বস্তিবাসীরা প্রতিনিয়ত নানা চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হচ্ছে। ডিএনসিসির আওতাধীন বস্তিগুলোতে বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুদের জীবনমান উন্নয়নে সহযোগিতা প্রয়োজন। সহযোগিতা প্রদান করা হলে এই শিশুরা নিজের পায়ে দাঁড়াতে পারবে।`

আলাপকালে বস্তিতে বসবাসকারী বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন শিশুদের দক্ষতা বৃদ্ধি, শিক্ষা সহায়তা, প্রশিক্ষণ প্রদান, প্রয়োজনীয় সামগ্রী প্রদানসহ ছোট ছোট খেলার মাঠ নির্মাণে যৌথভাবে কাজ করা বিষয় একমত পোষণ করেন ডিএনসিসি মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলাম ও রাষ্ট্রদূত রামিস সেন।এসময় ডিএনসিসি মেয়র এই ধরনের উদ্যোগের ফলে দুই দেশের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক আরও জোরদার হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।


ডিএনসিসি মেয়র আরও বলেন, `বাংলাদেশ ও তুরস্কের মধ্যে অত্যন্ত সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক বিদ্যমান। তুরস্কের রাজধানী আঙ্কারায় আমাদের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আবক্ষ ভাস্কর্য ও তার নামে একটি পার্ক করা হয়েছে। আবার তুরস্কের জাতির পিতা কামাল আতাতুর্কের নামে ঢাকার বনানীতে একটি সড়ক রয়েছে। এছাড়াও বনানীর সড়কটির সংলগ্ন একটি পার্কও কামাল আতাতুর্কের নামে নামকরণ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। দুই দেশের মধ্যে অনেক গভীর সম্পর্ক রয়েছে। জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে ক্ষতিগ্রস্তদের সহযোগিতায় ঢাকা ও আঙ্কারা যৌথভাবে কাজ করার মাধ্যমে দুই দেশের সম্পর্ক আরও জোরদার হবে।`

জর্জিয়ার অনাবাসিক রাষ্ট্রদূত হিসাবে মোঃ আমানুল হক-এর পরিচয় পত্র পেশ
                                  

বিশেষ প্রতিবেদক, আবুল মনসুর আহমেদঃ

আজ জর্জিয়ার প্রেসিডেন্ট সেলোমে জুরাবিচভিলি-এর নিকট মোঃ আমানুল হক এক আড়ম্বরপূর্ন আয়োজনের মাধ্যমে তাঁর পরিচয় পত্র পেশ করেন। এসময় রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে তাঁর সহধর্মিনী রুনা মাহজাবিন আহমেদ অংশগ্রহন করনে।
পরিচয় পত্র পেশ অনুষ্ঠান শেষে রাষ্ট্রদূত জর্জিয়ার প্রেসিডেন্ট-এর সঙ্গে এক সৌজন্য স্বাক্ষাতে মিলিত হন। রাষ্ট্রদূত প্রেসিডেন্ট-এর কাছে বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা জানান এবং প্রেসিডেন্টও বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানান। বাংলাদেশ ও জর্জিয়ার মধ্যে চলমান দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ককে আরো গতিশীল ও উচ্চতর পর্যায়ে উন্নীত করণে দৃঢ় আশাবাদ ব্যক্ত করেন। এছাড়া, রাষ্ট্রদূত জনাব হক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দক্ষ এবং দূরদর্শী নেতৃত্বে বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক ক্ষেত্রে চলমান উন্নয়ন কার্যক্রমের বিষয়ে জর্জিয়ার রাষ্ট্রপতিকে অবহিত করেন। রাষ্ট্রপতি জর্জিয়ার জনগণ ও সরকারের পক্ষ থেকে রাষ্ট্রদূত মোঃ আমানুল হক-কে জার্জিয়ায় স্বাগত জানান এবং ভবিষ্যতে ভ্রাতৃপ্রতীম বাংলাদেশের সরকার ও জনগণের কল্যানে সব ধরণের সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে মর্মে আশ্বাস প্রদান করেন। এর আগে সকালে রাষ্ট্রদূত জর্জিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রী জনাব ইলিয়া দারচিয়াসভিলির সাথে সৌজন্য স্বাক্ষাত করেন।
আজ রাষ্ট্রদূত হকের জন্মদিন উপলক্ষ্যে জর্জিয়ার প্রেসিডেন্ট সেলোমে জুরাবিচভিলি তাঁকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানান। ইতিপূর্বে জর্জিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী এবং পররাষ্ট্র উপ-মন্ত্রীও রাষ্ট্রদূতকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানান। অপরাহ্নে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তত্বাবধানে রাষ্ট্রদূত মোঃ আমানুল হক তিবলিসি শহর পরিভ্রমন করেন এবং রাতে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর আমন্ত্রণে এক নৈশ ভোজে অংশগ্রহন করেন।
গত ১৯ ডিসেম্বর ২০২৩ তারিখে রাষ্ট্রদূত মোঃ আমানুল হক জর্জিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী জনাব আলেকজান্ডার খুতিসিয়াসভিলি-এর সঙ্গে বৈঠকে মিলিত হয়ে তাঁর পরিচয় পত্রের কপি প্রদান করেন । অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আংকারস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের দূতালয় প্রধান মোঃ রফিকুল ইসলাম এবং জর্জিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পরিচালক (এশিয়া-প্যাসিফিক) রাষ্ট্রদূত আলেকজান্ডার নালবান্দব ও দপ্তর প্রধান জনাব ডেভিড পিপিনাসভেলি । বৈঠকে উভয় দেশের দ্বিপাক্ষিক স্বার্থ-সংশ্লিষ্ট বিষয়ে আলোচনা হয়। বিকালে তিবলিসির “পাবলিক সার্ভিস হল” পরিদর্শন করেন। যেখানে জর্জিয়ার জনসাধারনের জন্য ৪০০-এরও বেশী প্রকারের জনসেবামূলক কর্মকান্ড পরিচালিত হয়।  

বীর মুক্তিযোদ্ধা এবং প্রখ্যাত শিল্পী, সাহিত্যিক ও সংস্কৃতকর্মীদের নামে ডিএনসিসির বিভিন্ন সড়কের নামকরণ করা হবে: মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলাম
                                  

বিশেষ প্রতিবেদক, আবুল মনসুর আহমেদঃ

`বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মহান আত্মত্যাগের বিনিময়ে আমরা স্বাধীন বাংলাদেশ পেয়েছি। তাদের প্রতি সম্মান জানানো আমাদের সকলের দায়িত্ব। ভবিষ্যৎ প্রজন্ম যেন বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সম্পর্কে জানতে পারে, তাদের যেন যথাযথ শ্রদ্ধা জানাতে পারে এই পদক্ষেপগুলো আমাদের নিতে হবে। মহান মুক্তিযুদ্ধসহ একটি সুস্থ দেশ ও জাতি গঠনে শিল্পী, সাহিত্যিক ও সংস্কৃতকর্মীরা অবদান রেখেছেন। তাই আমরা ডিএনসিসির বিভিন্ন সড়কগুলো বীর মুক্তিযোদ্ধা এবং প্রখ্যাত শিল্পী, সাহিত্যিক ও সংস্কৃতকর্মীদের নামে নামকরণ করা হবে।`বুধবার (২০ ডিসেম্বর) দুপুরে রাজধানীর গুলশান-২ নগর ভবনের হলরুমে ২য় পরিষদের ২৪তম কর্পোরেশন সভায় সভাপতির বক্তব্যে মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলাম এসব কথা বলেন।সভায় বীর মুক্তিযোদ্ধা সালেক মোল্লা সড়ক, কবি মাহাবুব উল আলম চৌধুরী সড়ক, কবি আলাউদ্দিন আল আজাদ সড়ক, শিল্পী আব্দুস শাকুর শাহ সড়ক, শিল্পী হাশেম খান সড়ক, শিল্পী বাবুল আকতার সড়ক, শিল্পী রফিকুন্নবী সড়ক, শিল্পী কাইয়ুম চৌধুরী সড়ক, আক্কাস আলী মোল্লা সড়ক, শিরিন রুখসানা কমিশনার সড়ক, হাজী অলি মিয়া সড়ক, স্থপতি রবিউল হুসাইন সড়ক, শিল্পী কামরুল ইসলাম সড়ক নামকরণের প্রস্তাব সর্বসম্মতিক্রমে পাশ হয়।

ডিএনসিসি মেয়র কাউন্সিলরদের উদ্দেশ্যে আরও বলেন, `জনগণের ভোগান্তি দূর করে দ্রুত জন্ম নিবন্ধন সরবরাহ করার জন্য ওয়ার্ড পর্যায়ে দেওয়া হয়েছে। সবাইকে আন্তরিকতার সেবা প্রদান করতে হবে। স্থানীয় সরকার মন্ত্রী মহোদয়ের নির্দেশে জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধকের কার্যালয় সার্ভারের উন্নয়নে কাজ করছে। নতুন ১৮টি ওয়ার্ডে দ্রুত সময়ের মধ্যে ওয়ার্ড সচিব নিয়োগ দেওয়ার বিষয়ে কার্যক্রম চলমান রয়েছে।`

কর্পোরেশন সভার শুরুতে মহান বিজয়ের মাস উপলক্ষ্যে মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের রুহের মাগফিরাত কামনা করে মোনাজাত করা হয়।সভায় আলোচনা শেষে ডিএনসিসির প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রিগে. জেনা. এ.কে.এম শফিকুর রহমান এবং উপ-প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা লে: কর্ণেল মোঃ গোলাম মোস্তফা সারওয়ারকে বদলি জনিত বিদায় সংবর্ধনা দেওয়া হয় এবং নবযোগদানকৃত প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রিগে. জেনা. ইমরুল কায়েস চৌধুরী, উপ-প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা লে: কর্ণেল রুবাইয়াত ইসমত অভীক, মহাব্যবস্থাপক (পরিবহন) সালমা আক্তার খুকী এবং চারজন আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা নাছিমা খানম, কামরুজ্জামান, মোহাম্মদ জালাল উদ্দিন ও নাহিদ উল মোস্তাক-কে অভ্যর্থনা জানানো হয়।

সভায় ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সেলিম রেজা`র সঞ্চালনায় অন্যান্যের সঙ্গে আরও উপস্থিত ছিলেন ডিএনসিসির সচিব মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিক, প্রধান প্রকৌশলী ব্রিগে. জেনা. মুহঃ আমিরুল ইসলাম, প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা কমডোর এস এম শরিফ-উল ইসলাম, ডিএনসিসির সকল বিভাগীয় প্রধান ও ডিএনসিসির কাউন্সিলরবৃন্দ এবং অন্যান্য উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

জনবহুল স্থানে প্রয়োজনীয়তা অনুসারে প্রতিটি ওয়ার্ডেই গণশৌচাগার নির্মাণ করা হবেঃ ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস
                                  

বিশেষ প্রতিবেদক, আবুল মনসুর আহমেদঃ

জনবহুল স্থানে প্রয়োজনীয়তা নির্ণয় করে প্রতিটি ওয়ার্ডেই গণশৌচাগার নির্মাণ করা হবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ঢাদসিক) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস। আজ বুধবার (২০ ডিসেম্বর) সকালে বংশালের নয়াবাজার এলাকায় `নয়াবাজার গণশৌচাগার` এর উদ্বোধন শেষে গণমাধ্যমের সাথে মতবিনিময়কালে ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস এ কথা বলেন।

ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস বলেন, "ঢাকায় এক কোটির ঊর্ধ্বে জনগণের বসবাস। সেই প্রেক্ষিতে সাধারণ মানুষের দৈনন্দিন জীবনে বিশেষত কর্মজীবী নারীদের জন্য গণশৌচাগার অত্যন্ত প্রয়োজনীয় একটি বিষয়। বংশাল একটি ঐতিহ্যবাহী ও অত্যন্ত জনবহুল একটি এলাকা। যারা এই এলাকায় দূর-দূরান্ত হতে ব্যবসায়িক কাজে এবং কর্মনির্বাহ করার জন্য আসেন, এটি তাদের জন্য অত্যন্ত সুবিধাজনক হবে। আমরা প্রত্যেকটি ওয়ার্ডে জনগণের চাহিদা ও প্রয়োজনীয়তা নির্ণয় করছি। সেই জায়গাগুলোতে আমরা নতুন করে গণশৌচাগার নির্মাণ করে চলেছি। যে জায়গাগুলোতে জনসমাগম রয়েছে, সে সকল জায়গায় প্রয়োজনীয়তা অনুসারে প্রতিটি ওয়ার্ডেই আমরা গণশৌচাগার নির্মাণ করব।"

এ পর্যন্ত নতুন ৬টি ওয়ার্ডে গণশৌচাগার নির্মাণ করা হয়েছে এবং ৫টি ওয়ার্ডে নতুন গণশৌচাগার নির্মাণ কাজ চলমান রয়েছে জানিয়ে ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস বলেন, "আজকে বংশালের এই গণশৌচাগারসহ আমরা ইতোমধ্যে নতুন করে ৬টি ওয়ার্ডে নতুন গণশৌচাগার উদ্বোধন করেছি। আরও ৫টি ওয়ার্ডে গণশৌচাগার নির্মাণ কার্যক্রম চলমান রয়েছে। এছাড়াও দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার না হওয়ায় অনেকগুলো গণশৌচাগার বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। অনেকগুলো দখল অবস্থায় ছিল। আমরা সেগুলো দখলমুক্ত ও সংস্কার করে চালু করেছি। আমাদের প্রাথমিক লক্ষ্য হলো, প্রতিটি ওয়ার্ডেই অন্তত ১টি করে গণশৌচাগার নির্মাণ করা। পরবর্তীতে প্রয়োজনীয়তা অনুযায়ী আমরা সেটা বৃদ্ধি করব।"

এ সময় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাব বলেন ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস বলেন, ওয়াসার কাছ থেকে হস্তান্তরের পর বাৎসরিক সূচি অনুযায়ী জানুয়ারি মাস হতে আমরা খাল এবং নর্দমা হতে বর্জ্য ও পলি অপসারণ করে চলেছি। যাতে করে বর্ষা মৌসুমের আগেই সেগুলো পরিষ্কার হয় এবং জলাবদ্ধতা সৃষ্টি না হয়। এছাড়াও জিরানি, মান্ডা, শ্যামপুর ও কালুনগর খাল নিয়ে প্রধানমন্ত্রী আমাদের যে প্রকল্প পাস করে দিয়েছেন, সে প্রকল্পের কাজ শুরু হয়েছে। জিরানি খালের ত্রিমোহনী হতে আমাদের কাজ শুরু হয়েছে। আমরা এখন পূর্ণরূপে খনন, বর্জ্য অপসারণ এবং সীমানা চিহ্নিতকরণ করছি। সীমানা নিশ্চিত করে আমরা সেখানে বেষ্টনী দিবো। এ নিয়ে আমাদের পরামর্শকরা কাজ করেছেন। সেখানে হাঁটার পথ, সাইকেল চালানোর পথ, গণপরিসর সৃষ্টি, সবুজায়ন করা হবে। যাতে করে এলাকার জনগণ একটি উপভোগ্য নান্দনিক পরিবেশ পায়। আগামী ২ বছর মেয়াদে এই প্রকল্পের শেষ হবে। আমরা আশাবাদী, এতে করে স্থায়ীভাবে খালগুলো দখলমুক্ত হবে।"

পরে ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস হাজারিবাগ এলাকার ১৪ ও ২২ নম্বর ওয়ার্ডে গরীব-দুস্থ জনগোষ্ঠীর মাঝে কম্বল বিতরণ করেন।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মিজানুর রহমান, সচিব আকরামুজ্জামান, প্রধান প্রকৌশলী আশিকুর রহমান, ৪ নম্বর অঞ্চলের আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আতাহার মিয়া এবং কাউন্সিলর মধ্যে ৩২ নম্বর ওয়ার্ডের মো. আব্দুল মান্নান, ১৪ নম্বর ওয়ার্ডের ইলিয়াছুর রহমান, ২২ নম্বর ওয়ার্ডের আয়শা মোকাররমসহ করপোরেশনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ এবং ঢাকা মহানগর দক্ষিণ, থানা ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

ডিএনসিসিতে যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান বিজয় দিবস উদযাপিত
                                  

বিশেষ প্রতিবেদক, আবুল মনসুর আহমেদঃ

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনে (ডিএনসিসি) ৫৩ তম মহান বিজয় দিবস যথাযোগ্য মর্যাদায় উদযাপিত হয়েছে। শনিবার (১৬ ডিসেম্বর ২০২৩) দুপুরে রাজধানীর গুলশান-২ এ অবস্থিত নগরভবনের সম্মেলনকক্ষে ৫৩ তম মহান বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে ডিএনসিসি মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।আলোচনা সভা শুরুর আগে মহান বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলাম নগর ভবনের মূলফটকের সামনে স্থাপিত বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন ডিএনসিসির কর্মকর্তা-কর্মচারী ও কাউন্সিলরবৃন্দ।আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে ডিএনসিসি মেয়র বলেন, `অনেক ত্যাগের বিনিময়ে আমাদের স্বাধীনতা অর্জিত হয়েছে৷ একাত্তরে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে সাড়া দিয়ে সমগ্র বাঙালি পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে যুদ্ধে ঝাপিয়ে পড়েছিল। ৩০লক্ষ শহীদের রক্তের বিনিময়ে আমরা পেয়েছি লাল সবুজের পতাকা। দেশটাকে ভালোবেসে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে হবে।`

ডিএনসিসি মেয়র বলেন, `একাত্তরে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী আমাদের স্বাধীনতাকে বাধাগ্রস্ত করতে পারেনি। বর্তমানেও কোন অপশক্তি বাংলাদেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রাকে বাধাগ্রস্ত করতে পারবে না। তবে দেশের বিরুদ্ধে, উন্নয়নের অগ্রযাত্রাকে বাধাগ্রস্ত করতে এখনো ষড়যন্ত্র চলছে। সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে। সবাইকে যার যার কর্মদায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করার মাধ্যমে দেশের সেবা করতে হবে। ডিএনসিসির সকল কাউন্সিলর ও কর্মকর্তাদের মহান বিজয় দিবসে এই প্রতিজ্ঞা করতে হবে।`

আলোচনা সভায় অন্যান্যের সঙ্গে আরও উপস্থিত ছিলেন ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সেলিম রেজা, সচিব মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিক, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রিগেঃ জেনাঃ এস এম শফিকুর রহমান, প্রধান প্রকৌশলী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মুহঃ আমিরুল ইসলাম, প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা কমডোর এস এম শরিফ-উল ইসলাম, ডিএনসিসির কাউন্সিলরবৃন্দ এবং কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

নির্বাচন অনুকূল-প্রতিকূল পরিবেশের ওপর নয়, জনগণের রায়ের ওপর নির্ভর করেঃ ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস
                                  

বিশেষ প্রতিবেদক, আবুল মনসুর আহমেদঃ 

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলাম বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে অর্জিত স্বাধীনতার সুফল সবার কাছে পৌঁছে দিতে সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে। দেশের অর্থনৈতিক উন্নতির সাথে সাথে মানবিক ও বৈষম্যহীন সমাজ গঠনেও সবাইকে চেষ্টা করতে হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ যখন সে লক্ষ্য পূরণে এগিয়ে যাচ্ছে তখন আন্দোলনের নামে দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করার অপচেষ্টা নেওয়া হচ্ছে। ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধে বাঙালি যে রকম বিজয় ছিনিয়ে এনেছিল এরকম একই ভাবে সকল অপশক্তির বিরুদ্ধে বাঙালি জয় লাভ করবে।

আজ শনিবার (১৬ ডিসেম্বর) দুপুরে নগর ভবনের সম্মুখ প্লাজায় মহান বিজয় দিবস-২০২৩ উপলক্ষ্যে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন আয়োজিত `আলোচনা সভা ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান` এ প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম এ কথা বলেন।

স্থানীয় সরকার মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলাম বলেন, "আজকের এই দিনটি অর্জিত হয়েছে এক সাগর রক্তের বিনিময়ে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাঙালি জাতিকে ঐক্যবদ্ধভাবে স্বাধীনতা সংগ্রামের জন্য প্রস্তুত করেছিলেন এবং স্বাধীনতা পরবর্তীতে যুদ্ধবিধ্বস্ত বাংলাদেশকে গড়ার জন্য কাজ করে যাচ্ছিলেন কিন্তু ষড়যন্ত্রকারীরা বাংলাদেশের উন্নয়নকে থমকে দেওয়ার জন্য জাতির পিতাকে ১৯৭৫ সালে সপরিবারে হত্যা করে। স্বাধীনতা বিরোধী শক্তির সেই অপচেষ্টা সফল হয়নি। বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ এগিয়ে চলেছে।"

স্থানীয় সরকার মন্ত্রী বলেন, "শেখ হাসিনা ২০৩০ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশ এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন নিয়ে অবিরাম কাজ করে যাচ্ছেন। তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশ যখন দরিদ্র বাংলাদেশ ছিল তখন কেউ আমাদের গণতন্ত্র ও মানবাধিকার শেখাতে আসেনি কিন্তু যখন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আজকে বাংলাদেশ নিম্ন মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হয়েছে তখন আমাদেরকে নানা রকমের নীতিকথা শুনতে হচ্ছে। প্রতিবেশী অনেক দেশের তুলনায় অর্থনৈতিক ও সামাজিক সূচকে বাংলাদেশ যখন এগিয়ে আছে, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যখন দেশকে মধ্যম আয়ের দেশের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন তখনই স্বাধীনতা বিরোধী শক্তি আন্দোলনের নামে দেশকে অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করছে।"

অনুকূল-প্রতিকূল পরিবেশের ওপর নয়, জনগণের আস্থা-সমর্থন থাকলে জনরায়ের মাধ্যমে চরম প্রতিকূল পরিবেশেও নির্বাচনে জয়লাভ করা সম্ভব বলে মন্তব্য করেছেন অনুষ্ঠানের সভাপতি ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ঢাদসিক) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস।

ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস বলেন, "আজকে যারা বিভিন্ন অযুহাতে নির্বাচন বানচাল করতে চায় তাদেরকে একটু স্মরণ করিয়ে দেই। তারা বলেন, নির্বাচনের অনুকূল পরিবেশ নেই সেজন্য আমরা নির্বাচনে আসব না। বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে ১৯৫৪ সালে প্রথম যে নির্বাচন, আওয়ামী লীগ শেরে বাংলা এ কে ফজলুল হক, মাওলানা ভাসানী ও শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে যুক্তফ্রন্ট গঠন করে নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করে। সে সময় মুসলিম লীগ ছিল সবচেয়ে প্রভাবশালী সংগঠন। প্রতিকূল পরিবেশে সেদিন নৌকা প্রতীক নিরঙ্কুশ বিজয় লাভ করে। ৭০ এর নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ছাড়া বাংলাদেশের অন্যান্য সকল রাজনৈতিক সংগঠন বলেছিল -- নির্বাচনে যাওয়া মানে আত্মহত্যার শামিল। এমনও স্লোগান উঠেছিল, ভোটের বাক্সে লাথি মারো বাংলাদেশ স্বাধীন করো। সে বারও নির্বাচনের অনুকূল পরিবেশ ছিল না। সবকিছুই ছিল পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর অধীনস্ত। প্রশাসন ছিলো পাকিস্তানের। সবকিছুই যখন পাকিস্তানি প্রশাসনের অধীন তখনও বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন, আমি নির্বাচনে যাবো। সেই প্রতিকূল পরিবেশেও আওয়মী লীগ ১৬৯ আসনের মধ্যে ১৬৭ আসনে নিরঙ্কুশ বিজয় লাভ করে। বঙ্গবন্ধু জনগণের সেই রায় নিয়ে স্বাধীনতার পথে এগিয়ে গেছেন। সর্বশেষ ২০১৮ সালের নির্বাচনও আওয়ামী লীগের জন্য অনুকূল পরিবেশ ছিল না। রাষ্ট্রপতি ছিলেন ইয়াজউদ্দিন আহমেদ, সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রধান ছিলেন ফখরুদ্দিন আহমেদ আর সেনাপ্রধান ছিলেন মঈন ইউ আহমেদ। তারা সবাই বিএনপি কর্তৃক নিযুক্ত। পুরো প্রশাসন ছিল বিএনপি-জামাতের পক্ষে। কিন্তু জননেত্রী শেখ হাসিনা কারাগার থেকে মুক্ত হয়ে চরম প্রতিকূল পরিবেশে দিন বদলের সনদ ঘোষণা করেন এবং আওয়ামী লীগ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে। সেই সত্তরের মতোই আওয়ামী লীগ ৩০০ আসনের মধ্যে ২৩৩ টি আসন নিয়ে এককভাবে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করে। সুতরাং নির্বাচন কোনো অনুকূল পরিবেশ, প্রতিকূল পরিবেশের ওপর নির্ভর করে না। যদি জনগণের ওপর আস্থা থাকে, জনগণের সমর্থন থাকে তাহলে চরম প্রতিকূল পরিবেশেও নির্বাচনে জয়লাভ করা সম্ভব।"

সাংবিধানিক ধারাবাহিকতা রক্ষার মাধ্যমে গণতন্ত্রকে সুসংগত করতেই আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন যথানিয়মে অনুষ্ঠিত হবে জানিয়ে ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস বলেন, "আসল কথা হলো, বিএনপি-জামাতের জনগণের ওপর আস্থা নাই এবং এটা প্রমাণিত হয়েছে, তাদের কোনো জনসমর্থন নাই। তারা যদি মনে করতো যে, জনগণের রায় নিয়ে সরকার গঠন করার কিছুটা হলেও সুযোগ আছে তাহলে তারা নির্বাচনে আসতো। কিন্তু তারা জানে, জনগণ তাদেরকে প্রত্যাখ্যান করেছে। সেটা প্রমাণিত হয়েছে ২০০৮ সালের নির্বাচনে। তারা মাত্র ২৯টি আসন পেয়েছিল। ২০১৮ সালে মাত্র ৮টি আসন পেয়েছে। সুতরাং তারা জানে যে, নির্বাচনে আসলে তাদেরকে সর্বোচ্চ ২৯/৩০টি আসনের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকতে হবে। তাদের সরকার গঠন করার কোনো সুযোগ নেই। এজন্যই ছলে-বলে-কৌশলে তারা নির্বাচনকে বানচাল করতে চায়। কিন্তু বাংলার জনগণ তো থেমে থাকবে না। একটি রাষ্ট্র তো থেমে থাকতে পারে না। রাষ্ট্র পরিচালিত হয় সংবিধানের অধীনে। সাংবিধানিক ধারাবাহিকতা বজায় রাখলেই গণতন্ত্র প্রাতিষ্ঠানিক রূপ পাবে। এর ব্যত্যয় করার কোনো সুযোগ নাই। তাই এই বিজয়কে ধরে রাখার জন্য, এই বিজয়কে নতুন প্রজন্মের বিজয় হিসেবে নিশ্চিত করার জন্য জাতীয় নির্বাচনের ব্যত্যয়ের কোনো সুযোগ নেই। জাতীয় নির্বাচনে ব্যত্যয় মানেই হলো গণতন্ত্র ও সংবিধানকে ভুলুঠিত করা এবং সেই অসাংবিধানিক শক্তির কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করা। তাই আগামী নির্বাচনে আমাদেরকে অংশগ্রহণ করতে হবে। কোন রাজনৈতিক সংগঠন নির্বাচনে অংশগ্রহণ করলো না করলো সেজন্য নির্বাচন থেমে থাকতে পারে না।"

এ সময় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচন প্রক্রিয়া উল্লেখ করে ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস বলেন,
"মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে চার বছর মেয়াদে রাষ্ট্রপতি নির্বাচন হয় এবং সেজন্য ৪ নভেম্বর দিনটি নির্দিষ্টভাবে নির্ধারিত। এর কোন ব্যত্যয় কোনভাবেই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে সম্ভব না। কোনো রাজনৈতিক সংগঠন অংশগ্রহণ করুক বা না করুক, কোনো প্রার্থী নির্বাচনে আসুক বা না আসুক, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ৪ নভেম্বর নির্বাচন হবে। তেমনি সকল দেশের যে সংবিধান আছে সেই সংবিধান অনুযায়ী নির্দিষ্ট মেয়াদের মধ্যই নির্বাচন করাটা অত্যাবশকীয়। তাই ২০২৪ সালে আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের জন্য ৭ জানুয়ারি যে তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে সে দিনেই আমাদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়াতে সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা রয়েছে।"

আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মিজানুর রহমান স্বাগত বক্তব্য এবং ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন।আলোচনা সভায় দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলরগণসহ করপোরেশনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন৷আলোচনা সভা শেষে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের সঙ্গীত শিক্ষাকেন্দ্রের শিক্ষক-শিক্ষার্থীবৃন্দ মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করেন।

তুরস্কের কোনিয়ায় বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল ফরেস্ট উদ্বোধন
                                  

বিশেষ প্রতিবেদক, আবুল মনসুর আহমেদঃ 

১৬ই ডিসেম্বর ২০২৩ মহান বিজয়ের ৫২তম বার্ষিকী যথাযথ ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে উদযাপন উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ দূতাবাস, আংকারা নানান অনুষ্ঠান আয়োজন করে। সকালে রাষ্ট্রদূত মোঃ আমানুল হক-এর নেতৃত্বে দূতাবাস প্রাঙ্গণে জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও বঙ্গবন্ধুর আবক্ষে পুষ্পস্তবক অর্পণ করার মধ্য দিয়ে দিবসটি পালনের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়। দিবসটি উপলক্ষ্যে মহামান্য রাষ্ট্রপতি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, মাননীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী এবং মাননীয় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কর্তৃক প্রদত্ত বাণী পাঠ করা হয়। এরপরে পবিত্র কোরআন থেকে তিলাওয়াত এবং মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত এবং দেশ ও জাতির মঙ্গল কামনায় বিশেষ মোনাজাত করা হয়। অতঃপর তুরস্কের কোনিয়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-এর নামে বঙ্গবন্ধু মোমোরিয়াল ফরেস্ট উদ্বোধন অনুষ্ঠানে যোগদানের জন্য দূতাবাসের সকল কর্মকর্তা/কর্মচারী এবং তাঁদের পরিবারবর্গ কোনিয়ার উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়।

দ্বিতীয়াংশে তুরস্কের কোনিয়ায় বাংলাদেশ দূতাবাস আংকারা এবং বাংলাদেশ অনারারি কনসুলেট কোনিয়া ও রিজিওনাল ডাইরেক্টোরেট অব ফরেস্ট্রি এর যৌথ আয়োজনে “বঙ্গবন্ধু মোমোরিয়াল ফরেস্ট-এ ১০০০০ (দশ হাজার) বৃক্ষরোপন কর্মসূচীর ফিতা কেটে উদ্বোধন করেন রাষ্ট্রদূত মোঃ আমানুল হক। কোনিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশের অনারারী কন্সাল মিজ ডেনিজ বুলকার এবং রিজিওনাল ডাইরেক্টোরেট অব ফরেস্ট্রির জনাব আবদুসেত্তার ইয়ারার। কোনিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের রেক্টর, ব্যবসায়ী এবং প্রবাসী বাংলাদেশী ও তুরস্কের গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

রাষ্ট্রদূত মোঃ আমানুল হক উদ্বোধনের প্রাক্কালে বলেন, বাঙ্গালী জাতির কল্যাণে ও তাদের অধিকার নিশ্চিতকল্পে বঙ্গবন্ধু আমৃত্যু নিরলস পরিশ্রম করে গেছেন এবং সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকার করেছেন। এছাড়া, বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক বিশ্বাস এবং দৃষ্টিভঙ্গির বিষয়ে তিনি উল্লেখ করেন যে, বঙ্গবন্ধু বাঙ্গালী জাতিকে পরাধীনতার গ্লানি থেকে মুক্ত করে শুধু বাংলাদেশের স্বাধীনতা এনে দেননি বরং স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণে এবং বাঙ্গালী জাতির মূল্যবোধ, আদর্শ ও লক্ষ্য প্রতিষ্ঠার জন্য আজীবন সংগ্রাম করে গেছেন। তিনি বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ার লক্ষ্যে প্রত্যেক বাংলাদেশীকে যার যার অবস্থানে থেকে কাজ করার আহবান জানান।

তিনি উল্লেখ করেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-এর নামে আংকারার কেচিওরানে বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল পার্ক ও চায়ওলুতে বঙ্গবন্ধুর আবক্ষ এবং কোনিয়ায় বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল ফরেস্ট স্থাপনের মাধ্যমে তুর্কি-বাংলাদেশের মধ্যে পারষ্পরিক সম্পর্ক আরো মজবুত ও সুদূর প্রসারী হবে এবং তুরস্কের জনসাধারণ বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক প্রজ্ঞা ও তাঁর জীবনাদর্শ সম্পর্কে আরো জানতে পারবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। তিনি আরো বলেন, আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বাংলাদেশ আজ একটি সম্মানজনক অবস্থান তৈরি করতে সক্ষম হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃঢ়চেতা নেতৃত্বের কারণে বাংলাদেশ উন্নয়নশীল বিশ্বের দেশগুলোর জন্য রোল মডেলে পরিণত হয়েছে। তিনি বঙ্গবন্ধুর আবক্ষ, বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল পার্ক এবং বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল ফরেস্ট স্থাপনে সহযোগীতার জন্য বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে তুরস্ক সরকারের কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ ও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষনা করেন।

তুরস্কস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস আংকারায় ‘ই-পাসপোর্ট কার্যক্রমের শুভউদ্বোধন
                                  

বিশেষ প্রতিনিধি, আবুল মনসুর আহমেদ

১১ ডিসেম্বর ২০২৩ তারিখ বাংলাদেশ দূতাবাস আংকারায় ‘ই-পাসপোর্ট কার্যক্রমের শুভ-উদ্বোধন করা হয়। উক্ত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন মান্যবর রাষ্ট্রদূত মোঃ আমানুলহক,  প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা-সেবা বিভাগের যুগ্ম-সচিব আলী রেজা সিদ্দিকী, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মহাপরিচালক মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান এবং ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক মিসেস সেলিনা বানু। এছাড়া উদ্বোধনী অনুষ্ঠানেই পাসপোর্ট কার্যক্রমের সাথে সম্পৃক্ত ঢাকা থেকে আগত কর্ম-কর্তাবৃন্দ ওই-পাসপোর্ট প্রকল্পের কারিগরীদল উপস্থিত ছিলেন। ব্যাপক উৎসাহ এবং উদ্দীপনার মাধ্যমে আগত প্রবাসী বাংলাদেশীদের অংশগ্রহণেই-পাসপোর্ট কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন করা হয়। ই-পাসপোর্ট ও স্বয়ংক্রিয় বর্ডার নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থাপনা বর্তমান সরকারের উন্নয়নমূলক কাজের ধারা-বাহিকতার আরেকটি মাইলফলক। বাংলাদেশ এবং বিদেশস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসসমূহেই পাসপোর্ট কার্যক্রমের অগ্রগতি সম্পর্কে প্রধান অতিথি ও আগত কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত বাংলাদেশীদের সম্যক ধারণা প্রদান করেন।

বর্তমান সরকারের উন্নয়ন কার্যক্রমসমূহ তুলে ধরে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের সভাপতি ও মান্যবর রাষ্ট্রদূত মোঃ আমানুল হক সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, বাংলাদেশের স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুরর হমানের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে বলেন যে,  আজ তুরস্কে বসবাসরত বাংলাদেশীদের জন্য একটি আনন্দের ও তাৎপর্যপূর্ণ দিন। তিনি বলেন যে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ডিজিটাল বাংলাদেশ থেকে স্মার্ট বাংলাদেশে রূপান্তরের যে ভবিষ্যৎ রূপরেখা প্রণয়ন করেন তার বাস্তবায়ন এবং উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় চালু হলো ই-পাসপোর্ট সেবা কার্যক্রম। জাতির পিতার নির্দেশিত পথে ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে একটা উন্নত রাষ্ট্রেপরিণত করার লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি ও নিরলস পরিশ্রমের ফলে সর্বাধুনিক প্রযুক্তি ও অন্যান্য বিশ্বমানের পরিসেবার প্রাপ্যতা বাংলাদেশীদের জন্য নিশ্চিত করা হচ্ছে। তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে প্রবাসী সকলকে যার যার অবস্থান থেকে কাজ করার আহবান জানান।

আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন শেষে সভাপতি/মান্যবররাষ্ট্রদূত এবং অতিথিবৃন্দ কয়েকজন আবেদনকারীকেই-পাসপোর্ট এনরোলমেন্ট স্লিপ হস্তান্তরকরেন। উল্লেখ্য, আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের ফলে তুরস্কে বসবাসরত সকল প্রবাসী বাংলাদেশী নাগরিকই-পাসপোর্টের জন্য আবেদন করতে পারবেন।

আন্তর্জাতিক মানবাধিকার দিবস উপলক্ষে পিএনপির উদ্যোগে র‌্যালি অনুষ্ঠিত
                                  

শাহানাজ শানু


গত রবিবার সকাল ১১ টায় আন্তর্জাতিক মানবাধিকার দিবস উপলক্ষে বিজয়নগর হোটেল একাত্তরের সম্মুখ থেকে প্রগতিশীল জাতীয়তাবাদী দল পিএনপির উদ্যোগে দলের চেয়ারম্যান ফিরোজ মোহাম্মদ লিটনের সভাপতিত্বে ও মহাসচিব আহমেদুর রহমানের সঞ্চালনায় এক র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়।উক্ত রেলিটি বিজয়নগর পল্টন হয়ে প্রেসক্লাব এসে মানববন্ধন এর মাধ্যমে অনুষ্ঠানটি সমাপ্তি হয়।
বক্তব্য রাখেন যুগ্ম মহাসচিব টি,এম,কামরুল হাসান হৃদয়,সাংগঠনিক সম্পাদক এম এ আরিফ, কেন্দ্রীয় নেতা মোঃ দেলোয়ার দুলাল হোসেন প্রমুখ
সভাপতির বক্তব্যে প্রগতিশীল জাতীয়তাবাদী দল পিএনপির চেয়ারম্যান ফিরোজ মোহাম্মদ লিটন বলেন আওয়ামী সরকারের কাছে মানবতা বন্দি ঘরে বাইরে কোথাও নিরাপত্তা নেই জনগণের, বাংলাদেশের মানুষ সরকারের দুঃশাসনের কাছে জিম্মি হয়ে আছে জনগণের জানমালের নিরাপত্তা নেই ভোটাধিকার নেই দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্ব গতিতে সাধারণ মানুষের না বিশ্বাস হয়ে দাঁড়িয়েছে দে-শ লুটেরাদের আগ্রায় পরিণত হয়েছে জুলুম নির্যাতন-নিপীড়ন বিরোধী দলের নেতা কর্মীদের মিথ্যে সাজানো মামলা দিয়ে বিচার বিভাগ কে আয়ত্তে নিয়ে অন্যায়ভাবে সাজা দিয়ে,নির্বাচন থেকে দূরে রাখার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে সরকার । যা মানবতাও গনতন্ত্র বিরোধী। আমরা অবিলম্বে সরকারকে হুশিয়ার করে বলতে চাই বিদেশি প্রভুদের খুশি করে,জনগণের স্বার্থ বিসর্জন দিয়ে, ক্ষমতা পাকাপোক্ত করার যে দিবা স্বপ্ন দেখছে সরকার,তা যে কোন মূল্য প্রতিহত করবে জনগন।
আমরা আমাদের দলের পক্ষ থেকে সকল রাজবন্দীদের নিঃশর্ত মুক্তির জোর দাবি করছি এবং পুণ্য তফসিল ঘোষণা করে সকল রাজনৈতিক দলের সাথে আলাপ আলোচনার মাধ্যমে একটি নির্বাচনকালীন সরকার গঠন করুন এবং সংলাপ আয়োজন করুন নির্বাচনকালীন সরকার গঠন করে চলমান সংকট নিরসনে পদক্ষেপ গ্রহণ করুন অন্যথায় সকল অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার জন্য বর্তমান সরকারকে দায় বহন করতে হবে।
পরিশেষে নেতৃবৃন্দ সকল দেশ প্রেমিক জাতীয়তাবাদী শক্তিকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার উধার্ত আহ্বান জানান।

এইচএসসিতে গোল্ডেন জিপিএ-৫ পেয়েছে রাফিউর রহমান অয়ন
                                  

মঞ্জুরুল ইসলাম ;


রবিবার (২৬ নভেম্বর) প্রকাশিত এইচএসসি পরীক্ষার ফলাফলে বিজ্ঞান বিভাগ থেকে গোল্ডেন জিপিএ-৫ পেয়েছে ঢাকা সিটি কলেজের মেধাবী শিক্ষার্থী রাফিউর রহমান অয়ন।

অয়ন ভোরের সময় পত্রিকার সম্পাদক হাবিবুর রহমান হাবিব ও প্রকাশক রিনা বেগমের বড় ছেলে। । তিনি ঢাকা সিটি কলেজ থেকে বাংলা ভার্সনে বিজ্ঞান বিভাগ থেকে এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে সবক’টি বিষয়েই এ প্লাস নাম্বর পেয়ে এ কৃতিত্বের স্বাক্ষর রাখে।

মেধাবী শিক্ষার্থী রাফিউর রহমান অয়ন’র পারিবারিক সূত্র জানায়, পঞ্চম শ্রেণীর পিএসসি ও অষ্টম শ্রেণীর জেএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ এবং এএসসি পরীক্ষায় গোল্ডেন জিপিএ-৫ পেয়ে শিক্ষা জীবনের প্রথম ধাপ থেকেই অয়ন সাফল্যের ধারা অব্যাহত রেখেছিলো। সে ৩নং আঠারো গাছিয়া ইউনিয়নের গেরাবুনিয়া গ্রামের হাবিবুর রহমান হাবিব ও রিনা বেগমের বড় ছেলে। বর্তমানে তিনি মুগদায় তাদের বাসায় মা বাবা ভাইবোনদের সাথে থেকে পড়া লেখা চালিয়ে যাচ্ছে।

মেধাবী শিক্ষার্থী রাফিউর রহমান অয়ন তার এ ভাল ফলাফলের জন্য নিজের অনুভূতি ব্যক্ত করে বলেন, অন্যান্য বারের মতো এবারও কাঙ্খিত ফল পেয়ে আমি অবশ্যই ভীষণ খুশি হয়েছি। ভবিষ্যতে আমি একজন খ্যাতনামা ইঞ্জিনিয়ার হয়ে দেশের
সেবায় নিজেকে সম্পৃক্ত করতে দেশবাসী সকলের কাছে দোয়া চাই।

এদিকে রাফিউর রহমান অয়ন’র ভাল ফলাফলের জন্য তার প্রতিষ্ঠানের সকল শিক্ষক-শিক্ষিকাগনকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন তার বাবা ও মা। আগামীতে ছেলের উচ্চ শিক্ষায় আরো অধিকতর সাফল্যের জন্য সকলের কাছে দোয়াও চেয়েছেন অয়ন’র মা-বাবা।

 

তুরস্কে জাতীয় সংবিধান দিবস-২০২৩ উদযাপন
                                  

বিশেষ প্রতিবেদক , আবুল মনসুর আহমেদ ঃ
তুরস্কের আংকারাস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসে “জাতীয় সংবিধান দিবস” উপলক্ষ্যে বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সকালে মান্যবর রাষ্ট্রদূত এম আমানুল হক-এর নেতৃত্বে দূতাবাসের সকল কর্মকর্তা ও কর্মকচারীদের নিয়ে দূতাবাস প্রাঙ্গণে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ-এর মধ্য দিয়ে দিবসটির আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়। দিবসটি উপলক্ষ্যে দূতাবাসের সভাকক্ষে একটি আলোচনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। আলোচনা অনুষ্ঠানের প্রারম্ভে দূতালয়ের দ্বিতীয় সচিব মোঃ শফিক উদ্দিন অনুষ্ঠানের সূচী ঘোষনা করেন। অত:পর সাম্প্রতিক বিষয়ের উপর একটি প্রামান্য চিত্র প্রদর্শন করা হয়। দিবসটি উপলক্ষ্যে মন্ত্রণালয় থেকে প্রাপ্ত মহামান্য রাষ্ট্রপতি ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বাণী পাঠ করা হয়।
আলোচনা পর্বের প্রথমেই বাংলাদেশের সংবিধান-এর উপর আলোচনায় অংশগ্রহন করেন প্রতিরক্ষা
উপদেষ্টা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ ইফতেকুর রহমান। এরপরে জাতীয় সংবিধান-এর প্রতিপাদ্য বিষয় “বঙ্গবন্ধুর ভাবনা সংবিধানের বর্ণনা”-এর উপর আলোচনা করেন রাষ্ট্রদূত এম আমানুল হক। তাঁর বক্তব্যে তিনি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন। তিনি জাতীয় সংবিধান দিবস-এর গুরুত্ব ও তাৎপর্যের উপর আলোকপাত এবং গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ ও আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় জাতীয় সংবিধানের মর্যাদা অক্ষুন্ন রাখতে দৃঢ় সংকল্পের কথা ব্যক্ত করেন এবং জাতীয় সংবিধান দিবসটি “ক”শ্রেনীভুক্ত করায় সরকারের নীতি-নির্ধারকদের ধন্যবাদ জানিয়ে আলোচনার সমাপ্তি টানেন।
পরিশেষে, পবিত্র কোরআন থেকে তিলাওয়াত এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তাঁর
পরিবারবর্গ এবং দেশের জন্য প্রাণ উৎর্সগকারী শহীদদের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনায় বিশেষ
মোনাজাত করা হয়।


   Page 1 of 36
     জাতীয়
পুরাণ ঢাকার চকবাজার রাজউক এর উচ্ছেদ অভিযান।
.............................................................................................
ভালো ফলাফলের জন্যে আত্মবিশ্বাস থাকা প্রয়োজন : লায়ন মোঃ গনি মিয়া বাবুল
.............................................................................................
ঢাকা মেডিকেল রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি মাসুদ সাধারণ সম্পাদক আমানত
.............................................................................................
দক্ষিণ সিটির আওতাধীন এলাকার সকল নির্বাচনী কেন্দ্রে বিশেষ মশক নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রম পরিচালিত
.............................................................................................
মিরপুর বিআরটিএ দালালমুক্ত করবে দ্বায়িত্বে থাকা আনসার কমান্ডার হাশেম
.............................................................................................
বস্তিতে বসবাসকারী বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুদের জীবনমান উন্নয়নে সহযোগিতার আশ্বাস তুরস্কের
.............................................................................................
জর্জিয়ার অনাবাসিক রাষ্ট্রদূত হিসাবে মোঃ আমানুল হক-এর পরিচয় পত্র পেশ
.............................................................................................
বীর মুক্তিযোদ্ধা এবং প্রখ্যাত শিল্পী, সাহিত্যিক ও সংস্কৃতকর্মীদের নামে ডিএনসিসির বিভিন্ন সড়কের নামকরণ করা হবে: মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলাম
.............................................................................................
জনবহুল স্থানে প্রয়োজনীয়তা অনুসারে প্রতিটি ওয়ার্ডেই গণশৌচাগার নির্মাণ করা হবেঃ ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস
.............................................................................................
ডিএনসিসিতে যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান বিজয় দিবস উদযাপিত
.............................................................................................
নির্বাচন অনুকূল-প্রতিকূল পরিবেশের ওপর নয়, জনগণের রায়ের ওপর নির্ভর করেঃ ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস
.............................................................................................
তুরস্কের কোনিয়ায় বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল ফরেস্ট উদ্বোধন
.............................................................................................
তুরস্কস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস আংকারায় ‘ই-পাসপোর্ট কার্যক্রমের শুভউদ্বোধন
.............................................................................................
আন্তর্জাতিক মানবাধিকার দিবস উপলক্ষে পিএনপির উদ্যোগে র‌্যালি অনুষ্ঠিত
.............................................................................................
এইচএসসিতে গোল্ডেন জিপিএ-৫ পেয়েছে রাফিউর রহমান অয়ন
.............................................................................................
তুরস্কে জাতীয় সংবিধান দিবস-২০২৩ উদযাপন
.............................................................................................
বিআরটিএ`র মিরপুর কার্যালয়ে অভিযান; ০৭ দালালের সাজা
.............................................................................................
নয়াপল্টনে যুব সমাবেশে জড়ো হচ্ছেন নেতাকর্মীরা
.............................................................................................
মেয়েদের জরায়ুমুখ ক্যান্সার প্রতিরোধে ১৫ অক্টোবর থেকে দক্ষিণ সিটিতে বিনামূল্যে এইচপিভি টিকাদান কর্মসূচি শুরু
.............................................................................................
তুর্কমেনিস্থানের অনাবাসিক রাষ্ট্রদূত হিসাবে মোঃ আমানুল হক-এর পরিচয় পত্র পেশ
.............................................................................................
স্বচ্ছতা-জবাবদিহিতা বজায় রেখে নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই দোকান বরাদ্দ দেওয়া হচ্ছেঃ ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস
.............................................................................................
নিরাপদ ও টেকসই পয়ঃবর্জ্য ব্যবস্থাপনায় ডিএনসিসি ও ঢাকা ওয়াসার মধ্যে সমঝোতা স্মারক সাক্ষর
.............................................................................................
জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধন কার্যক্রমে `অসাধারণ অবদানের` জন্য দক্ষিণ সিটিকে স্বীকৃতি
.............................................................................................
সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে জনগণের মধ্যে সচেতনতা ছড়ানোর আহবান ডিএনসিসি মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলামের
.............................................................................................
মন্ত্রী ও মেয়রের উপস্থিতিতে ডিএনসিসির মশক বিরোধী ঝটিকা অভিযান
.............................................................................................
রক্তদান করতে গিয়ে এক্সিডেন্ট
.............................................................................................
স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
.............................................................................................
জলাধার ভরাট করে স্থাপনা নির্মাণকারীদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর আহবান ডিএনসিসি মেয়রের
.............................................................................................
জাতিসংঘের স্থানীয় ও আঞ্চলিক সরকারের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য মনোনীত হয়েছেন ডিএনসিসি মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলাম
.............................................................................................
ঈমানের ভিত্তি মজবুত করতে প্রিয় নবীকে অন্তর থেকে ধারণ করতে হবেঃ ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস
.............................................................................................
ঈমানের ভিত্তি মজবুত করতে প্রিয় নবীকে অন্তর থেকে ধারণ করতে হবেঃ ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস
.............................................................................................
আমিন মোহাম্মদ গ্রুপের গ্রীন মডেল টাউনের পুরাতন সাইট অফিসে মশার লার্ভা পাওয়ায় ২ লক্ষ টাকা জরিমানা
.............................................................................................
দক্ষিণ সিটিতে ডেঙ্গু রোগী সংখ্যা দৈনিক ৫০-৫৪ জনে সীমাবদ্ধ রয়েছেঃ ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস
.............................................................................................
ডিএনসিসি`র ৭০০ জন পরিচ্ছন্নতাকর্মীর হেপাটাইটিস-বি সংক্রমণ পরীক্ষা সম্পন্ন
.............................................................................................
তথ্য দিন, ১৫ মিনিটের মধ্যে মশককর্মী পৌঁছে এডিসের প্রজননস্থল নির্মূল করবেঃ ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস
.............................................................................................
গেণ্ডারিয়ার ডিআইটি প্লটের পুকুর পারের অবৈধ স্থাপনা উদ্ধার রাজউকের
.............................................................................................
ডিএনসিসির মশক নিধন অভিযান: ০৬ টি ভবনে এডিসের লার্ভা পাওয়ায় ০৪ লাখ ৬০ হাজার টাকা জরিমানা
.............................................................................................
নিষিদ্ধ ঘোষিত পলিথিন শপিং ব্যাগের বিরুদ্ধে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেছে জেলা প্রশাসন, গাজীপুর এবং পরিবেশ অধিদপ্তর
.............................................................................................
প্রতিটি বাড়িতে অন্তত ২টি গাছ লাগানোর আহবান ডিএনসিসি মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলামের
.............................................................................................
ডিএনসিসি`র খালগুলোতে নৌপথ চালু করা হবে: মেয়র আতিকুল ইসলাম
.............................................................................................
প্রতিক্রিয়াশীল জঙ্গীবাদী শক্তি যেন মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে না পারে সেজন্য সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবেঃ ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস
.............................................................................................
প্রতিক্রিয়াশীল জঙ্গীবাদী শক্তি যেন মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে না পারে সেজন্য সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবেঃ ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস
.............................................................................................
ডিএনসিসির মশক নিধন অভিযান: এডিসের লার্ভা পাওয়ায় ০৬ মামলায় মোট জরিমানা ০২ লাখ ২৮ হাজার টাকা
.............................................................................................
ডিএনসিসির মশক নিধন অভিযান: ০৩ টি নির্মাণাধীন ভবনে এডিসের লার্ভা পাওয়ায় ৬ লাখ ৯০ হাজার টাকা জরিমানা
.............................................................................................
রাজউকের উচ্ছেদ অভিযান ঝিগাতলায়
.............................................................................................
আদি বুড়িগঙ্গা চ্যানেলকে হাতিরঝিলের চাইতেও বেশি নান্দনিক করা হবেঃ ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস আদি বুড়িগঙ্গা চ্যানেলকে হাতিরঝিলের চাইতেও বেশি নান্দনিক করে গড়ে তোলার পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ঢাদসিক) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস।
.............................................................................................
দোকানের মধ্যে দোকান করবেন নাঃ ঢাদসিক মেয়র ব্যারিস্টার শেখ তাপস দোকানের মধ্যে দোকান, দোকানের বাইরে দোকান এবং নকশাবহির্ভূত কোনো অবকাঠামো না করতে বরাদ্দপ্রাপ্ত দোকানিদের সতর্ক করেছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ঢাদসিক) মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস।
.............................................................................................
এডিসের লার্ভা পাওয়ায় দক্ষিণ সিটির ৯ ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে ১০ স্থাপনাকে জরিমানা
.............................................................................................
ডিএনসিসির মশক নিধন অভিযান: এডিসের লার্ভা পাওয়ায় ০৭ মামলায় মোট জরিমানা ০১ লাখ ৯৫ হাজার টাকা
.............................................................................................
উদ্ভিদ সংরক্ষণ উইং এবং আইইডিসিআর এর ল্যাব টেস্টে বিটিআই সঠিক ও কার্যকর: মেয়র মোঃ আতিকুল ইসলাম
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
প্রকাশক: রিনা বেগম
প্রধান সম্পাদক : মো: হাবিবুর রহমান
প্রকাশক কতৃক ৫১/৫১ এ পুরানা পল্টন থেকে প্রকাশিত । সোনালী প্রিন্টিং প্রেস ২/১/এ ইডেন ভবন ১৬৭ ইনার সার্কুলার রোড মতিঝিল, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত । বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয় : ৫১/৫১ এ পুরানা পল্টন (৪র্থ তলা) , ঢাকা - ১০০০।
ফোন: ০২২২৩৩৮০৮৭২ , মোবাইল: ০১৭১১১৩৬২২৬

Web: www.bhorersomoy.com E-mail : dbsomoy2010@gmail.com
   All Right Reserved By www.bhorersomoy.com    
Dynamic SOlution IT Dynamic POS | Super Shop | Dealer Ship | Show Room Software | Trading Software | Inventory Management Software Computer | Mobile | Electronics Item Software Accounts,HR & Payroll Software Hospital | Clinic Management Software Dynamic Scale BD Digital Truck Scale | Platform Scale | Weighing Bridge Scale Digital Load Cell Digital Indicator Digital Score Board Junction Box | Chequer Plate | Girder Digital Scale | Digital Floor Scale