|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * করোনায় দুইজনের মৃত্যু, শনাক্ত ৩১   * ২৩ মে জাতীয় নৌ-নিরাপত্তা দিবস দাবিতে নোঙর’র মানববন্ধন ও গণস্বাক্ষর অভিযান   * আত্মসমর্পণের পর কারাগারে প্রদীপের স্ত্রী চুমকি   * মাংকিপক্স: সতর্ক রয়েছে বিমানবন্দরগুলো   * আঞ্চলিক সংকট মোকাবেলায় অর্থনৈতিক সহযোগিতা জোরদারে প্রধানমন্ত্রীর পাঁচ প্রস্তাব   * মাঠেই নষ্ট হচ্ছে ধান, হাজার টাকায়ও মিলছে না শ্রমিক   * ২০২৩ সালের জুনেই ঢাকা থেকে ট্রেন যাবে কক্সবাজার   * দাম থাকলেও টমেটো চাষে লোকসানের আশঙ্কা   * দীর্ঘস্থায়ী বন্যার শঙ্কায় দেশ   * করোনায় মৃত্যু নেই, শনাক্ত ২৯  

   আর্ন্তজাতিক -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগ

অবশেষে পদত্যাগ করলেন শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসে। এর আগে এক বিবৃতিতে তিনি বলেছিলেন, দেশের জন্য যে কোনো আত্মত্যাগ করতে প্রস্তুত রয়েছেন। শ্রীলঙ্কান গণমাধ্যম ডেইলি মিরর অনলাইনের এক প্রতিবেদনে তার পদত্যাগের বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়।
এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে যে, কিছু সময় আগেই তিনি পদত্যাগ করেছেন। দেশজুড়ে চলমান বিক্ষোভের কারণে ফের কারফিউ জারি করা হয়েছে। এর মধ্যেই তার পদত্যাগের খবর সামনে এলো। রাজধানী কলম্বো এবং দেশের অন্যান্য শহরে সরকারপন্থি লোকজনের সঙ্গে সরকারবিরোধীদের সংঘর্ষ চলছে। সরকারবিরোধী এই বিক্ষোভ দিন দিন আরও জোরালো হওয়ায় গোতাবায়া রাজাপাকসে সরকারের শীর্ষ নেতাদের পদত্যাগের চাপ বাড়তে শুরু করে।
এর আগে গত শুক্রবার দেশটির প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপাকসে জানিয়েছিলেন যে, তার ভাই অর্থাৎ দেশটির প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসে প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে সরে দাঁড়াতে সম্মতি জানিয়েছেন।
অর্থনৈতিক সংকটসহ নানা সংকটে জর্জরিত দেশটিতে অনেকদিন ধরেই বিক্ষোভ চলছে। এই পরিস্থিতি থেকে বেরিয়ে আসতে প্রধানমন্ত্রীকে পদত্যাগের অনুরোধ করেছিলেন প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপাকসে। তবে প্রেসিডেন্ট নিজেও পদত্যাগের চাপে রয়েছেন। কারণ শুরু থেকেই প্রেসিডেন্টকে তার পদ থেকে সরে দাঁড়ানোর দাবি জানিয়ে বিক্ষোভ করছে সাধারণ মানুষ।

প্রেসিডেন্টের অনুরোধে ইতিবাচক সাড়া দেন প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসে। কলম্বো পেজের এক প্রতিবেদন অনুযায়ী, গোতাবায়া রাজাপাকসের নেতৃত্বে প্রেসিডেন্ট হাউজে মন্ত্রিসভার বিশেষ বৈঠকে মাহিন্দা রাজাপাকসে শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে পদত্যাগ করতে রাজি হন।
শ্রীলঙ্কায় সর্বশেষ প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় ২০১৯ সালে। নির্বাচনকে সামনে রেখে শুল্ক কমানোর প্রস্তাব করেন গোতাবায়া রাজাপাকসে। এটাকে তখনকার সরকার নির্বাচনী কৌশল হিসেবেই ধরে নিয়েছিল।
সে সময়ে অর্থমন্ত্রী মঙ্গলা সামারাবিরা মূল্য সংযোজন কর ১৫ শতাংশ থেকে কমিয়ে ৮ শতাংশ করা ও অন্যান্য শুল্ক বাতিল করার বিপজ্জনক প্রতিশ্রুতির বিষয়ে একটি ব্রিফিংয়ের আয়োজন করেছিলেন।
অর্থনৈতিক সংকটে এখন ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে রাজাপাকসের পরিবার। হিমশিম খাচ্ছেন মানুষের প্রয়োজনীয় জিনিসের চাহিদা মেটাতে। ঋণের জন্য শরণাপন্ন হচ্ছেন আইএমএফ, বিশ্বব্যাংক, চীন ও ভারতসহ অন্যান্য দাতাদের কাছে। এরই মধ্যে ঋণ খেলাপিতে পরিণত হয়েছে দেশটি। যা ১৯৪৮ সালে ব্রিটিশদের কাছ থেকে স্বাধীনতা লাভের পর প্রথম ঘটনা। দেশের শেয়ারবাজারও শোচনীয় অবস্থায় রয়েছে।
গত ২০ বছরের মধ্যে ১২ বছরই শ্রীলঙ্কার সরকারের গুরুত্বপূর্ণ পদে থেকেছেন রাজাপাকসে পরিবারের সদস্যরা। এসময় তারা স্বৈরতন্ত্রের তকমা পেয়েছেন। এর আগে তার ভাই মাহিন্দা রাজাপাকসে দুই মেয়াদে প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালন করেন। তাছাড়া তার অন্য দুই ভাই দেশটির বন্দর ও কৃষি ব্যবস্থা নিয়ন্ত্রণ করছেন। এভাবে পাকসে পরিবারের কয়েক ডজন সদস্য সরকারের সর্বোচ্চ পদে দায়িত্ব পালন করছেন।

শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগ
                                  

অবশেষে পদত্যাগ করলেন শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসে। এর আগে এক বিবৃতিতে তিনি বলেছিলেন, দেশের জন্য যে কোনো আত্মত্যাগ করতে প্রস্তুত রয়েছেন। শ্রীলঙ্কান গণমাধ্যম ডেইলি মিরর অনলাইনের এক প্রতিবেদনে তার পদত্যাগের বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়।
এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে যে, কিছু সময় আগেই তিনি পদত্যাগ করেছেন। দেশজুড়ে চলমান বিক্ষোভের কারণে ফের কারফিউ জারি করা হয়েছে। এর মধ্যেই তার পদত্যাগের খবর সামনে এলো। রাজধানী কলম্বো এবং দেশের অন্যান্য শহরে সরকারপন্থি লোকজনের সঙ্গে সরকারবিরোধীদের সংঘর্ষ চলছে। সরকারবিরোধী এই বিক্ষোভ দিন দিন আরও জোরালো হওয়ায় গোতাবায়া রাজাপাকসে সরকারের শীর্ষ নেতাদের পদত্যাগের চাপ বাড়তে শুরু করে।
এর আগে গত শুক্রবার দেশটির প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপাকসে জানিয়েছিলেন যে, তার ভাই অর্থাৎ দেশটির প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসে প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে সরে দাঁড়াতে সম্মতি জানিয়েছেন।
অর্থনৈতিক সংকটসহ নানা সংকটে জর্জরিত দেশটিতে অনেকদিন ধরেই বিক্ষোভ চলছে। এই পরিস্থিতি থেকে বেরিয়ে আসতে প্রধানমন্ত্রীকে পদত্যাগের অনুরোধ করেছিলেন প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপাকসে। তবে প্রেসিডেন্ট নিজেও পদত্যাগের চাপে রয়েছেন। কারণ শুরু থেকেই প্রেসিডেন্টকে তার পদ থেকে সরে দাঁড়ানোর দাবি জানিয়ে বিক্ষোভ করছে সাধারণ মানুষ।

প্রেসিডেন্টের অনুরোধে ইতিবাচক সাড়া দেন প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসে। কলম্বো পেজের এক প্রতিবেদন অনুযায়ী, গোতাবায়া রাজাপাকসের নেতৃত্বে প্রেসিডেন্ট হাউজে মন্ত্রিসভার বিশেষ বৈঠকে মাহিন্দা রাজাপাকসে শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে পদত্যাগ করতে রাজি হন।
শ্রীলঙ্কায় সর্বশেষ প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় ২০১৯ সালে। নির্বাচনকে সামনে রেখে শুল্ক কমানোর প্রস্তাব করেন গোতাবায়া রাজাপাকসে। এটাকে তখনকার সরকার নির্বাচনী কৌশল হিসেবেই ধরে নিয়েছিল।
সে সময়ে অর্থমন্ত্রী মঙ্গলা সামারাবিরা মূল্য সংযোজন কর ১৫ শতাংশ থেকে কমিয়ে ৮ শতাংশ করা ও অন্যান্য শুল্ক বাতিল করার বিপজ্জনক প্রতিশ্রুতির বিষয়ে একটি ব্রিফিংয়ের আয়োজন করেছিলেন।
অর্থনৈতিক সংকটে এখন ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে রাজাপাকসের পরিবার। হিমশিম খাচ্ছেন মানুষের প্রয়োজনীয় জিনিসের চাহিদা মেটাতে। ঋণের জন্য শরণাপন্ন হচ্ছেন আইএমএফ, বিশ্বব্যাংক, চীন ও ভারতসহ অন্যান্য দাতাদের কাছে। এরই মধ্যে ঋণ খেলাপিতে পরিণত হয়েছে দেশটি। যা ১৯৪৮ সালে ব্রিটিশদের কাছ থেকে স্বাধীনতা লাভের পর প্রথম ঘটনা। দেশের শেয়ারবাজারও শোচনীয় অবস্থায় রয়েছে।
গত ২০ বছরের মধ্যে ১২ বছরই শ্রীলঙ্কার সরকারের গুরুত্বপূর্ণ পদে থেকেছেন রাজাপাকসে পরিবারের সদস্যরা। এসময় তারা স্বৈরতন্ত্রের তকমা পেয়েছেন। এর আগে তার ভাই মাহিন্দা রাজাপাকসে দুই মেয়াদে প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালন করেন। তাছাড়া তার অন্য দুই ভাই দেশটির বন্দর ও কৃষি ব্যবস্থা নিয়ন্ত্রণ করছেন। এভাবে পাকসে পরিবারের কয়েক ডজন সদস্য সরকারের সর্বোচ্চ পদে দায়িত্ব পালন করছেন।

এবার দুর্নীতি মামলায় সু চির ৫ বছর কারাদণ্ড
                                  

সামরিক অভ্যুত্থানে ক্ষমতাচ্যুত মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সু চিকে দুর্নীতির দায়ে দোষী সাব্যস্ত করে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।  সামরিক শাসিত মিয়ানমারের একটি আদালত এ সাজা দিয়েছেন।
বুধবার (২৭ এপ্রিল) এ খবর জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম রয়টার্স।
মিয়ানমারের নেত্রী সু চির বিরুদ্ধে দুর্নীতির যে ১১টি অভিযোগ এনেছে দেশটির সামরিক জান্তা, তার মধ্যে প্রথম মামলার সাজার রায় এল আজ।  আরও ১০টি মামলা এখনও বিচারাধীন আছে।
প্রসঙ্গত, ২০২১ সালের পহেলা ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারে নির্বাচিত সরকারকে উৎখাত করে ক্ষমতা দখল করে জান্তা সরকার। বন্দি করা হয় দেশটির নেত্রী অং সান সু চিসহ তার দলের শীর্ষ নেতাদের। এরপর শান্তিতে নোবেলজয়ী এ নেত্রীর বিরুদ্ধে একের পর এক অভিযোগ এনে সামরিক সরকার মামলা দায়ের করে।
দুর্নীতি, নির্বাচনী আইন ও রাষ্ট্রীয় গোপনীয়তা আইনের লঙ্ঘনসহ তার বিরুদ্ধে কমপক্ষে ১৮ টি অপরাধের অভিযোগ আনা হয়েছে, যা দোষী প্রমাণিত হলে সু চির প্রায় ১৯০ বছর কারাদণ্ড হতে পারে।

কিয়েভের আগে মস্কো সফরে গুতেরেস, মানতেই পারছেন না জেলেনস্কি
                                  

ফেব্রুয়ারির শেষ সপ্তাহে শুরু হওয়া ইউক্রেন যুদ্ধ গড়িয়েছে তৃতীয় মাসে। উভয়পক্ষের লড়াই কার্যত দুই মাস পার হয়ে গেলেও রুশ হামলার তীব্রতা এখনও বেশ জোরালো। এই পরিস্থিতিতে যুদ্ধ বন্ধ ও উত্তেজনা কমাতে আসরে নেমেছেন জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস।
চলতি সপ্তাহে রাশিয়া ও ইউক্রেন; উভয় দেশই সফর করবেন তিনি। তবে আন্তেনিও গুতেরেস কিয়েভের আগে মস্কো সফরের পরিকল্পনা করায় ক্ষেপেছেন ইউক্রেনীয় প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। এ নিয়ে জাতিসংঘের মহাসচিবের সমালোচনাও করেছেন তিনি। রোববার (২৪ এপ্রিল) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম বিবিসি ও আলজাজিরা।
কাতারভিত্তিক এই সংবাদমাধ্যমটি জানিয়েছে, আগামী মঙ্গলবার রাশিয়ার রাজধানী মস্কো সফরে যাচ্ছেন জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস। সেখান থেকে আগামী বৃহস্পতিবার যাবেন কিয়েভে। আর এরপরই কিয়েভ যাওয়ার আগে আন্তোনিও গুতেরেসের মস্কো সফরের সিদ্ধান্তের সমালোচনা করেছেন ভলোদিমির জেলেনস্কি।
ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভে শনিবার (২৩ এপ্রিল) সাংবাদিকদের সাথে কথা বলার সময় প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি বলেন, ‘প্রথমে রাশিয়া এবং তারপর ইউক্রেনে আসার সিদ্ধান্ত নেওয়াটা ভুল। (জাতিসংঘের মহাসচিবের) এই কাজে কোনো ন্যায়বিচার এবং যুক্তি নেই।’
ইউক্রেনীয় প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘এই যুদ্ধ চলছে ইউক্রেনে, মস্কোর রাস্তায় কোনো মরদেহ পড়ে নেই। এখানকার (ইউক্রেনের) মানুষ ও দখলদারিত্বের পরিণতি দেখতে প্রথমে ইউক্রেনে সফর করা যৌক্তিক হবে।’
এছাড়া ‘যুদ্ধ শেষ করার’ প্রচেষ্টায় রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সাথে আবারও বৈঠকের আহ্বান জানিয়েছেন জানিয়েছেন জেলেনস্কি।
এদিকে মস্কো ও কিয়েভ সফর করার আগে তুরস্ক সফরে যাবেন জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস। জাতিসংঘ থেকে দেওয়া এক বিবৃতিতে এই তথ্য জানানো হয়েছে।
বিবৃতিতে বলা হয়েছে, আন্তোনিও গুতেরেস সোমবার তুরস্কের রাজধানী আঙ্কারা যাবেন। সেখানে তিনি তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ানের সঙ্গে বৈঠক করবেন।
পরে মঙ্গলবার আঙ্কারা থেকে মস্কো যাবেন গুতেরেস। সেখানে তিনি রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সাথে বৈঠক করবেন এবং পরে রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভের সাথে ‘ওয়ার্কিং লাঞ্চ’ করবেন।
এরপর বৃহস্পতিবার গুতেরেস যাবেন ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভে। সেখানে তিনি ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী দিমিত্র কুলেবার সাথে বৈঠক করবেন।


পাকিস্তানের পার্লামেন্ট ভেঙে দিলেন প্রেসিডেন্ট
                                  

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের আহ্বানে দেশটির পার্লামেন্ট ভেঙে দিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ড. আরিফ আলভি। এর আগে ইমরান খানের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব খারিজ করেন দেশটির ডেপুটি স্পিকার কাসিম খান সুরি।
রোববার প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেন, তিনি প্রেসিডেন্টকে পার্লামেন্ট ভেঙে দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। দেশটির সংবিধানের ৫ম অনুচ্ছেদের সঙ্গে সাংঘর্ষিক হওয়ায় তার বিরুদ্ধে বিরোধী দলগুলোর আনা অনাস্থা প্রস্তাব খারিজ করে দেওয়া হয়।
অন্যদিকে নির্বাচনের জন্য দেশবাসীকে প্রস্তুত হওয়ার আহ্বান জানান ইমরান খান। অনাস্থা প্রস্তাবে ভোট শুরু হওয়ার আগে বিক্ষোভ, জমায়েত বন্ধ করতে পাকিস্তানের ইসলামাবাদে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়। কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা রাখা হয়েছে দেশটির ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলির বাইরেও।
ইমরান খানের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাবে ভোট রোববার (৩ এপ্রিল) অনুষ্ঠিত হবে বলে আগেই জানিয়েছিলেন দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ রাশিদ আহমেদ।
এদিকে অনাস্থা প্রস্তাব খারিজ হওয়ার পর জাতির উদ্দেশ্যে দেওয়া এক ভাষণে ইমরান খান বলেন, বিদেশি ষড়যন্ত্র প্রত্যাখ্যান করেছেন ডেপুটি স্পিকার। একটি সূত্র বলছে, আগামী ৯০ দিনের মধ্যেই হয়তো আগাম নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে পারে।

বিধ্বস্ত হওয়ার আগে শব্দের গতিতে চলছিল চীনের সেই বিমান
                                  

১৩২ আরোহী নিয়ে দুর্ঘটনার শিকার চায়না ইস্টার্ন এয়ারলাইন্সের বিমানটি বিধ্বস্ত হওয়ার আগে শব্দের গতির কাছাকাছি গতিতে চলছিল। এরপরই একপর্যায়ে সেটি চীনের দক্ষিণাঞ্চলের গুয়াংশি অঞ্চলের দুর্গম পাহাড়ে আছড়ে পড়ে। ফ্লাইট-ট্র্যাক ডেটা পর্যালোচনা করে বুধবার (২৩ মার্চ) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে মার্কিন সংবাদমাধ্যম ব্লুমবার্গ নিউজ।
চায়না ইস্টার্ন এয়ারলাইন্সের বোয়িং ৭৩৭-৮০০ মডেলের এই বিমানটিতে ১৩২ জন আরোহী ছিলেন এবং দুর্ঘটনার পর তাদের কেউই বেঁচে নেই বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।
ব্লুমবার্গ বলছে, বিধ্বস্ত হওয়ার আগে কোনো ফ্লাইটের শব্দের গতিতে ভ্রমণকে (দুর্ঘটনার পর) তদন্তকারীদের কাজকে বেশ জটিল করে তুলতে পারে। কারণ এটি (শব্দের গতিতে চলাচল) প্রমাণ মুছে ফেলতে পারে এবং বিরল হলেও এটি বিমানের ডেটা ও ভয়েস রেকর্ডারগুলোকে ক্ষতিগ্রস্ত করতে পারে। যদিও এসব সরঞ্জাম বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই দুর্ঘটনা সহনীয় হিসেবেই ডিজাইন করা হয়েছে।
আকাশপথে ভ্রমণরত ফ্লাইট ট্র্যাকিং ওয়েবসাইট ‘ফ্লাইটরাডার২৪’ এর তথ্য অনুযায়ী, গত সোমবার চীনের দক্ষিণাঞ্চলীয় গুয়াংশি অঞ্চলের দুর্গম পাহাড়ে বিধ্বস্ত হওয়া চায়না ইস্টার্ন এয়ারলাইন্সের বোয়িং ৭৩৭-৮০০ মডেলের এই বিমানটি প্রতি ঘণ্টায় ৬৪০ মাইলেরও (৯৬৬ কিলোমিটার) বেশি বেগে বাতাসের মধ্যে ছুটে চলছিল। এমনকি কখনো কখনো বিমানটির গতি ঘণ্টায় ৭০০ মাইল অতিক্রম করেছিল বলেও জানিয়েছে ওয়েবসাইটটি।
যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজির অ্যাস্ট্রোনটিক্স এবং অ্যারোনটিক্সের অধ্যাপক জন হ্যানসম্যান চীনা বিমানের গতি সম্পর্কে ব্লুমবার্গের হিসাবটি পর্যালোচনা করেছেন। তিনি বলেছেন, ‘প্রাথমিকভাবে যে তথ্য পাওয়া যাচ্ছে, তাতে বিধ্বস্ত হওয়ার আগে বিমানটি শব্দের গতির কাছাকাছি গতিতে ভ্রমণ করছিল বলে ইঙ্গিত পাওয়া গেছে। এটি খাড়াভাবে নিচের দিকে নেমে আসছিল।’
ব্লুমবার্গ বলছে, সমুদ্রপৃষ্ঠে শব্দের প্রতি ঘণ্টায় ৭৬১ মাইল হলেও উচ্চতা বৃদ্ধির সাথে সাথে বাতাসের তাপমাত্রা কমে যাওয়ায় শব্দের গতি ধীর হয়ে যায়। আর তাই ৩৫ হাজার ফুট (১০ হাজার ৬৬৮ মিটার) উচ্চতায় শব্দের গতি প্রতি ঘণ্টায় প্রায় ৬৬৩ মাইল।
এর আগে ইস্টার্ন এয়ারলাইন্সের বোয়িং ৭৩৭-৮০০ বিমানটির বিধ্বস্তের ভয়ঙ্কর একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়। ভিডিওতে দেখা যায়, বিমানটি গুয়াংশির উঝৌ এলাকার আকাশে ৩ হাজার ২২৫ ফুট উচ্চতায় চলার সময় আচমকা পাহাড়ে আছড়ে পড়ছে।
এ সময় বিমানটি একেবারে খাড়াভাবে অর্থাৎ বিমানের সামনের অংশ নিম্নমুখী ও পেছনের অংশ আকাশের দিকে থাকা অবস্থায় নিচে পড়ে যায় এবং অত্যন্ত দ্রুতগতিতে বিধ্বস্ত হয়।
চীনের বেসামরিক বিমান পরিবহন প্রশাসন (সিএএসি) জানায়, এমইউ৫৭৩৫ ফ্লাইটটি চীনের কুনমিং শহর থেকে গুয়াংঝুতে যাচ্ছিল। গুয়াংশি অঞ্চলের উঝৌ এলাকার আকাশে থাকাকালীন বিমানটির সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।
বিমানটিতে ১২৩ জন যাত্রী এবং ৯ জন ক্রু ছিলেন। যদিও চীনের সরকারি গণমাধ্যমের খবরে বিধ্বস্ত বিমানে ১৩৩ জন ছিলেন বলে জানানো হয়েছে।

পশ্চিমবঙ্গে ভয়াবহ রাজনৈতিক সহিংসতা, আগুনে ঝলসে ১০ জনের প্রাণহানি
                                  

ভারতের পশ্চিমবঙ্গ প্রদেশের বীরভূম জেলায় তৃণমূল কংগ্রেসের এক নেতা খুন হওয়ার পর রাজনৈতিক উত্তাপের আগুনে পুড়েছে কয়েকটি বাড়ি। পুড়ে যাওয়া সেসব বাড়ি থেকে এখন পর্যন্ত ১০ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করেছে স্থানীয় পুলিশ ও দমকল বাহিনী।
সোমবার রামপুরহাট পৌরসভার বগটুই গ্রামে রাজনৈতিক ভয়াবহ সহিংসতার এই ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র বলছে, ওইদিন সন্ধ্যায় বগটুই গ্রামে রামপুরহাট এক নম্বর ব্লকের বড়শাল গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান ও তৃণমূল নেতা ভাদু শেখ খুন হওয়ার কিছুক্ষণ পরই গ্রামের কয়েকটি বাড়িতে আগুন দেওয়া হয়। এই ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের এখনও শনাক্ত করা যায়নি বলে জানিয়েছে পুলিশ।
বীরভূম জেলার পুলিশ সুপার নগেন্দ্র ত্রিপাঠী পশ্চিমবঙ্গের সংবাদমাধ্যমকে বলেন, নিহত ভাদু শেখের বাড়ি বগটুই গ্রামে। সোমবার সন্ধ্যার দিকে গ্রামের স্থানীয় একটি চায়ের দোকানে তিনি বসেছিলেন। সেসময় একদল দুষ্কৃতিকারী ওই চায়ের দোকানে তাকে লক্ষ্য করে বোমা নিক্ষেপ করে বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন।
বোমার আঘাতে রক্তাক্ত অবস্থায় ভাদু শেখকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।  এই ঘটনার পর বগটুই গ্রামে চরম উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। অগ্নিসংযোগের ঘটনাও সে সময়ই ঘটেছে বলে ধারণা করছে পুলিশ।
পুলিশের বক্তব্য
সাংবাদিকদের নগেন্দ্র ত্রিপাঠী জানান, বগটুই গ্রামে পর পর বাড়িতে আগুন লাগানো হয়। তার মধ্যে মঙ্গলবার সকালে একটি বাড়ি থেকে সাতজনের অগ্নিদগ্ধ মৃতদেহ উদ্ধার হয়েছে৷
তিনি বলেন, ‘সোমবার রাতেই একটি বাড়ি থেকে তিনজনের অগ্নিদগ্ধ মৃতদেহ উদ্ধার করেছিল দমকল বাহিনী। সব মিলিয়ে এখন পর্যন্ত ১০ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।’
তবে স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, পুড়ে যাওয়া বাড়িগুলো থেকে আরো কয়েকটি মৃতদেহ উদ্ধার হয়েছে৷ সব মিলিয়ে ১৫ জনের মৃত্যুর কথা বলা হচ্ছে৷ তবে পুলিশ বা প্রশাসন এ বিষয়ে এখনো কোনো তথ্য দেয়নি৷
স্থানীয় সূত্রের বরাত দিয়ে পশ্চিমবঙ্গের দৈনিক আনন্দবাজারের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আগুনে আহত ৪ জনকে রামপুরহাট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতদের মধ্যে একজন শিশু। বাকিদের মধ্যে ১ জন যুবক এবং ২ জন নারী। তাদের আঘাত গুরুতর হলেও বর্তমানে অবস্থা স্থীতিশীল বলে জানিয়েছে হাসপাতাল।
তৃণমূলের দাবি
ঘটনার পর থেকে পশ্চিমবঙ্গের রাজনৈতিক অঙ্গণে তীব্র বিতর্ক শুরু হয়েছে৷ তৃণমূলের নেতা অনুব্রত মন্ডল আনন্দবাজারকে বলেন, ‘তিন চারটি বাড়িতে আগুন লেগেছিল। টিভি ফেটে আগুন লাগে। দমকল, পুলিশ গিয়েছিল। পুলিশ তদন্ত করে দেখুক, তার পর বলব।
তবে ভাদু শেখেরে খুনের সঙ্গে এর যোগ থাকতে পারে বলে মনে করছেন অনুব্রত। তিনি বলেন, ‘গতকালের ঘটনার সঙ্গে এর যোগ থাকতে পারে। পুলিশ তদন্ত করে দেখুক। আমি তো ওখানে ছিলাম না। আমি সকালে খবর পেয়েছি। আমি যতদূর খবর পেয়েছি, একটি বাড়িতেই সাত জনের মৃতদেহ উদ্ধার হয়েছে।’
অগ্নিসংযোগের সঙ্গে ‍সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে এখনো পর্যন্ত ১৫ জনকে আটক করা হয়েছে বলেও তিনি জানিয়েছেন অনুব্রত।
মঙ্গলবার দুপুরে কলকাতা থেকে ঘটনাস্থলে রওনা হন বীরভূমের দায়িত্বপ্রাপ্ত তৃণমূলের নেতা তথা রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম৷ হেলিকপ্টারে বীরভূমে পৌঁছান তিনি৷ বেলার দিকে রামপুরহাট রওনা হন অনুব্রত মন্ডলও৷ প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে স্থানীয় থানার ওসিকে ক্লোজ করা হয়েছে৷ বদলি করা হয়েছে বীরভূমের সাব ডিভিশনাল পুলিশ কর্মকর্তাকেও।
সিপিএমের বক্তব্য
ঘটনার প্রতিবাদে মঙ্গলবার সাংবাদিক সম্মেলন করেছেন পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সিপিএমের সম্পাদক মহম্মদ সেলিম। ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্তের দাবি তুলেছেন তিনি। সিপিএমের প্রতিনিধিদল এলাকায় যাবে বলেও উল্লেখ করেছেন তিনি।
এদিকে, এ ঘটনা ঘিরে উত্তাল হয়ে উঠেছে পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা। মঙ্গলবার মুখ্যমন্ত্রীর জবাব চেয়ে বিধানসভায় বিক্ষোভ করেছেন বিরোধী বিধায়কেরা। সব মিলিয়ে রামপুরহাটের ঘটনা কার্যত রাজ্যজুড়েই উত্তাপ ছড়িয়েছে।

পুতিনের সাথে বৈঠকের প্রয়োজনীয়তার ওপর জোর জেলেনস্কির
                                  

 ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি যুদ্ধ বন্ধে রুশ প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিনের সাথে যে কোন ধরনের বৈঠকের প্রয়োজনীয়তার ওপর জোর দিয়েছেন।
ইউক্রেনের আঞ্চলিক সংবাদ মাধ্যম সাসপিলনে’র সাথে সোমবার এক সাক্ষাতকারে জেলেনস্কি এ বিষয়ে জোর দেন।
তিনি আরো বলেন, আমি মনে করি যুদ্ধ বন্ধে তাদের কি প্রস্তুতি এ ধরনের বৈঠক ছাড়া তা বুঝা অসম্ভব।
জেলেনস্কি এর আগেও যুদ্ধ বন্ধে বৈঠকের ওপর জোর দিয়েছেন। তবে সোমবার তিনি আরো জোরালোভাবে এ বিষয়টি তুলে ধরেন।
উল্লেখ্য, ইউক্রেনে রুশ হামলার পর উভয়পক্ষের মধ্যে কয়েক দফা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। তবে এসব বৈঠক থেকে তেমন কোন ফলাফল পাওয়া যায়নি।

ইউক্রেনে প্রথমবার হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালালো রাশিয়া
                                  

ইউক্রেনে প্রথমবারের মতো হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে রাশিয়া। গতকাল ইউক্রেনের পশ্চিমাঞ্চলের একটি অস্ত্রাগারে এ হামলা চালানো হয়। রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় হামলার তথ্য নিশ্চিত করেছে। বিবিসির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।
রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ইগর কোনাশেনকভ বলেন, মস্কো হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র হামলার মাধ্যমে পশ্চিম ইউক্রেনের একটি ভূগর্ভস্থ অস্ত্রের গুদাম ধ্বংস করে দিয়েছে। গুদামটিতে ইউক্রেনের সেনাদের বিভিন্ন ধরনের অস্ত্র রাখা ছিল বলেও জানান তিনি।
যুদ্ধে এ ধরনের অস্ত্র ব্যবহারের কথা আগে কখনোই স্বীকার করেনি রাশিয়া। দেশটির একটি রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম জানায়, ইউক্রেনে হামলা শুরুর পর এই প্রথম কিনজাল নামের হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রের ব্যবহার করা হলো।
জানা গেছে, রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন কিনজাল হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রকে একটি যথাযথ বা প্রকৃত অস্ত্র হিসেবে অভিহিতি করেছেন। যা যেকোনো দেশের আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থাকে এড়িয়ে শব্দের চেয়ে পাঁচ গুণ বেশিতে ছুটতে পারে।
প্রেসিডেন্ট পুতিনের নির্দেশে গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেন আক্রমণ করে রুশ বাহিনী। গত ২০ দিনে তাদের হামলায় ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে ইউক্রেনের বিভিন্ন শহর। প্রাণ হারিয়েছেন কয়েকশ বেসামরিক নাগরিক। জাতিসংঘ জানিয়েছে, রুশ আক্রমণের মুখে এরই মধ্যে ৩০ লাখের বেশি মানুষ ইউক্রেন ছেড়ে পালিয়েছেন।

যে ৬ দফা মানলেই ‘থেমে যাবে’ ইউক্রেন যুদ্ধ!
                                  

যে ৬ দফা মানলেই ‘থেমে যাবে’ ইউক্রেন যুদ্ধ!  রুশ গোলাবর্ষণে ধ্বংসস্তূপের পাশে এক ইউক্রেন সেনা
ইউক্রেনে সামরিক অভিযান বন্ধ করতে দেশটির প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কিকে ছয় দফা প্রস্তাব দিয়েছে রাশিয়ার পার্লামেন্ট দুমা।
পার্স টুডের প্রতিবেদনে বলা হয়, রোববার (১৩ মার্চ) দুমার ডেপুটি স্পিকার মিখাইল শিরিমিত এ তথ্য জানিয়েছেন।
ক্রিমিয়া উপত্যকা সফরে গিয়ে তিনি বলেন, জেলেনস্কি যদি সত্যিই এখনো ইউক্রেনের ভবিষ্যত নিয়ে উদ্বিগ্ন থাকেন, তাহলে তাকে ছয়টি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় মেনে নিতে হবে।
দুমার ডেপুটি স্পিকার বলেন, নব্য নাৎসিবাদীদের নিরস্ত্র করতে হবে, ইউক্রেনকে অস্ত্র সমর্পণ করতে হবে, দেশটির সংবিধানে নিরপেক্ষ নীতি গ্রহণ করতে হবে যাতে কোনো আন্তর্জাতিক ব্লকে যোগ দেওয়া না যায়, ইউক্রেনের বেশিরভাগ মানুষের মাতৃভাষা অর্থাৎ রুশ ভাষাকে রাষ্ট্রভাষা হিসেবে স্বীকৃতি দিতে হবে, ক্রিমিয়া উপত্যকাকে রাশিয়ার অংশ হিসেবে এবং লুহানস্ক ও দোনেৎস্ক অঞ্চলের স্বাধীনতা মেনে নিতে হবে।
মিখাইল শিরিমিত জানান, ইউক্রেনকে রাশিয়া ও তাদের নাগরিকদের নিরাপত্তা বিপন্নকারী দেশে পরিণতি হতে দেবে না মস্কো।
‘শান্তি আলোচনায়’ ইউক্রেন-রাশিয়া
সামরিক অভিযান শুরুর পর রাশিয়ার সঙ্গে চতুর্থ দফা ‘শান্তি আলোচনায়’ বসেছে ইউক্রেনের প্রতিনিধিদল। সোমবার (১৪ মার্চ) যুদ্ধের ১৯তম দিনে ভিডিও কলের মাধ্যমে চলছে এই বৈঠক।  বিবিসি ও আল-জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়, ইউক্রেন প্রেসিডেন্টের উপদেষ্টা মিখাইলো পোদোলাক বৈঠকের একটি ছবি টুইটারে প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেন, আলোচনায় উভয় পক্ষই তাদের অবস্থান তুলে ধরছে। ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে সামরিক আগ্রাসন শুরু করে রাশিয়া। অভিযানের পঞ্চম দিনে ২৮ ফেব্রুয়ারি দুই দেশের প্রতিনিধিদল যুদ্ধের অবসানের লক্ষ্যে প্রথম শান্তি আলোচনায় বসে। ইউক্রেন-বেলারুশ সীমান্তে বেলারুশের গোমেল এলাকায় হয় ওই বৈঠক।  
ওই বৈঠকে আশানুরূপ ফল না পেয়ে যুদ্ধের অষ্টম দিন ৩ মার্চ যুদ্ধবিরতির পথ খুঁজতে দ্বিতীয় দফায় আলোচনায় বসে ইউক্রেন ও রুশ প্রতিনিধিদল। ওই আলোচনায়ও তেমন ফল পায়নি কিয়েভ। পরে যুদ্ধের ১২তম দিনে ৭ মার্চ তৃতীয় দফায় বৈঠকে বসে দেশ দুটি। কিন্তু বৈঠকেও যুদ্ধবিরতির বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্তের আসতে পারেনি রাশিয়া-ইউক্রেন।
ইউক্রেনে রুশ আগ্রাসন শুরুর পর সোমবার (১৪ মার্চ) যুদ্ধ গড়িয়েছে ১৯তম দিনে। এই যুদ্ধে বহু হতাহত হয়েছে। ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে পুরো ইউক্রেন। প্রাণে বাঁচতে পাশের দেশে শরণার্থী হয়েছে অন্তত ২৭ লাখ মানুষ। দেশটির অনেক অঞ্চলে খাদ্য ও পানির জন্য হাহাকার করছে হাজার হাজার পরিবার।   

ইউক্রেনের প্রায় সর্বত্র বিমান হামলার সতর্ক সংকেত, কিয়েভ ঘিরে রেখেছে রুশ বাহিনী
                                  

ইউক্রেনের প্রায় সর্বত্র শনিবার বিমান হামলার সতর্কসংকেত বাজানো হয়েছে।
স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, ইউক্রেনের প্রায় প্রতিটি অঞ্চলে বিমান হামলার সতর্কসংকেত বাজার মধ্যেই গোলাবর্ষণের খবর এসেছে।
এদিকে রাজধানী কিয়েভ ঘিরে রেখেছে রুশ সেনাবাহিনী। ইউক্রেনের বিভিন্ন শহরের বেসামরিক স্থাপনায় রুশ বাহিনী হামলা চালিয়েছে।
খারকিভ, চেহেরনিভ, সুমি ও মারিওপোলের মতো শহরগুলো ঘিরে রেখেছে রুশ বাহিনী। তারা শহরগুলোতে ব্যাপক বোমা হামলা চালাচ্ছে।
ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভের উপকণ্ঠে দুই পক্ষের মধ্যে ব্যাপক লড়াই চলছে। কিয়েভে রাশিয়ার সর্বাত্মক হামলার আশঙ্কা করা হচ্ছে।
এর মধ্যে বন্দর নগরী মারিওপোলসহ অন্যান্য শহরে জরুরি ত্রাণ সহায়তা সরবরাহে নতুন উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।
রুশ বাহিনীর অব্যাহত হামলায় দেশটিতে মানবিক সংকট তীব্র রূপ নিয়েছে। ইউক্রেনীয় ও রুশ উভয় দেশের কর্মকর্তারাই শনিবার স্বীকার করেছেন, দ্রুত অবনতিশীল মানবিক পরিস্থিতি ভয়ংকর রূপ নিয়েছে।
এদিকে,  কিয়েভের দক্ষিণাঞ্চলে ভাসিলকিভ শহরের কাছে রাশিয়ার রকেট হামলায় ইউক্রেনের একটি বিমানঘাঁটি ধ্বংস হয়ে গেছে। এ ছাড়া ইউক্রেনের সেনাবাহিনীর গোলাবারুদ মজুত করে রাখার একটি স্থাপনায় (ডিপো) রুশ হামলা হয়েছে। শহরটির মেয়রকে উদ্ধৃত করে রুশ সংবাদ সংস্থা ইন্টারফ্যাক্সের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।
মস্কোয় দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলছে, রুশ স্থলবাহিনী একদিনে ১২ কিলোটিার পথ পাড়ি দিয়ে অনেকদূর অগ্রসর হয়েছে। তবে তাদের অবস্থান ঠিক কোথায় সে সম্পর্কে সুনির্র্দিষ্টভাবে কিছু বলা হয়নি।
এছাড়া রুশ পন্থী বিচ্ছিন্নতাবাদীরাও  সেভোরোডোনেটস্ক শহরের প্রান্তে পৌঁছে গেলে বলে মন্ত্রণালয় জানিয়েছে।
এদিকে উপগ্রহ থেকে তোলা ছবিতে রাজধানী কিয়েভ থেকে প্রায় ৯ কিলোমিটার উত্তরের শহর মশচুনের বাড়িঘর গোলার আগুনে জ্বলতে দেখা গেছে।
কিয়েভের উপকণ্ঠে রাশিয়ার গোলাবর্ষণের পর আবাসিক ভবন থেকে ধোঁয়া উড়তে দেখা গেছে।
কিয়েভে রাশিয়ার সর্বাত্মক হামলার আশংকার প্রেক্ষিতে শহরটির মেয়র ভিটালি ক্লিসকো বলেন, অবরুদ্ধ শহরটিতে প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা জোরদার এবং খাদ্য ও ঔষধ মজুদ করা হয়েছে।
এক ভিডিও বার্তায় তিনি বলেন, আমরা হাল ছাড়ব না।
ইউক্রেনের জাতীয় জরুরি সেবা বিভাগ বলছে, লুহানস্ক অঞ্চলের সেভোরোডোনেটস্ক ও রুবিজন শহরে রাশিয়ার গোলায় কয়েক ডজন আবাসিক ভবন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। শহর দুটিতে গোলাবর্ষণে বড় ধরনের অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে।
জাতীয় জরুরি সেবা বিভাগের তথ্যমতে, রুশ সেনারা রাতভর গোলাবর্ষণ করেছে। এতে শহর দুটির প্রায় ৬০টি ব্যক্তি মালিকানাধীন বাড়ি ও আবাসিক ভবন ক্ষতিগ্রস্ত হয়।
এদিকে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদমির জেলেনস্কি এক ভিডিও বার্তায় দেশবাসীর প্রতি লড়াই চালিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। একইসঙ্গে তিনি তার দেশের মিত্রদের প্রতি আরো কিছু করার অনুরোধ জানান।

ইউক্রেনে সাময়িক যুদ্ধবিরতি - রাশিয়ার
                                  

ইউক্রেনের দুটি শহর মারিওপোল ও ভলনোভাখায় সাময়িক যুদ্ধবিরতি ঘোষণা করেছে রাশিয়া। বেসামরিক লোকজন যেন নিরাপদে সরে যেতে পারে সেজন্যই এ ঘোষণা।
শনিবার (০৫ মার্চ) বিষয়টি ‘মানবিক করিডোর’ হিসেবে বর্ণনা করে সাড়ে পাঁচ ঘণ্টার যুদ্ধবিরতির কথা জানায় রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। এছাড়াও এ বিষয়ে ইউক্রেনের কর্তৃপক্ষের সঙ্গে রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের সমঝোতা হয়েছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।
বিবৃতিতে বলা হয়, শনিবার, মস্কোর স্থানীয় সময় সকাল ১০টা থেকে (বাংলাদেশ সময় দুপুর ১টা) এই বিরতি কার্যকর হবে। তবে এ বিষয়ে এখনো ইউক্রেনের দিক থেকে কোনো প্রতিক্রিয়া জানানো হয়নি।
এর আগে শহর অবরুদ্ধ করে রাখার পরিপ্রেক্ষিতে মারিওপোল মেয়র ভিডিয়াম বোইচেঙ্কো একটি ‘মানবিক করিডোর’ ঘোষণা করার আহ্বান জানিয়েছিলেন।
এ নিয়ে যুদ্ধের দশম দিনে এসে সাময়িক বিরতি ঘোষণা করা হল রাশিয়ার পক্ষ থেকে। চলতি সপ্তাহে বেলারুশে দ্বিতীয় দফার শান্তি বৈঠকের পরে রাজধানী কিয়েভসহ ইউক্রেনের বিভিন্ন শহরের বেসামরিক বাসিন্দাদের নিরাপদে সরে যাওয়ার সুযোগ দিতে একমত হয়েছিল মস্কো। তারই ভিত্তিতে এই ঘোষণা বলে মনে করা হচ্ছে।

ইউক্রেন সেনারা ৫ বাংলাদেশিকে জিম্মি করেছে
                                  

ঢাকায় রাশিয়া দূতাবাস তাদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করেছে, ইউক্রেনের সেনারা পাঁচ বাংলাদেশিকে জিম্মি করেছেন।  
শুক্রবার এমন একটি ভিডিও-তে দেখা যায়, জিম্মি ওই বাংলাদেশিরা তাদের উদ্ধারের জন্য আকুতি জানাচ্ছেন।
এদিকে জার্মান সংবাদমাধ্যম ডয়চে ভেলের বাংলা বিভাগও বলেছে, ইউক্রেনের কিভারতিসি শহরের একটি অভিবাসী শিবিরে আটকে আছেন পাঁচ বাংলাদেশিসহ শতাধিক বিদেশি।
ভিডিওতে রিয়াদুল মালিক নামের একজন বাংলাদেশি নিজের পরিচয় দিয়ে জানান, সেখানে আরো কয়েকজন বাংলাদেশি আছেন। একজন দরজায় পাহারা দিচ্ছেন। তাদের সবার মোবাইল ফোন কেড়ে নেওয়া হয়েছে। একটি মোবাইল তারা লুকিয়ে রাখতে পেরেছেন।
রিয়াদুল মালিক বলেন, ‘এই শিবিরকে ইউক্রেনের সেনারা ঘাঁটি বানিয়েছে। রাশিয়া সেনাঘাঁটি দেখে দেখে বোমা ফেলছে। আমরা অনেক ভয়ে আছি। আমাদের আটকে রেখেছে জিম্মির মতো করে। ১০০-র ওপর মানুষ আছে। রাত হলে বোমার শব্দ শুনতে পাই। গুলির শব্দ শুনতে পাই। লাইট বন্ধ করে দেই। আমরা যেখানে তিনজন মানুষ থাকি, সেখানে ১০ জন এনে রেখেছে। ’
শিবিরে থাকা ব্যক্তিদের মারধরের অভিযোগ করেন রিয়াদুল মালিক। তিনি বলেন, ‘আমাদের মারছে। ইউক্রেনের অন্য ক্যাম্পগুলোর সবই বোমা ফেলে উড়িয়ে দিয়েছে এরই মধ্যে। এই শিবিরটা শুধু আছে। আমরা জানি, না, আমাদের জীবনের নিশ্চয়তা কতটুকু আছে। আমি আকুল আবেদন জানাচ্ছি, আমাদের এখান থেকে উদ্ধার করার জন্য। ’
তিনি বলেন, ‘আমরা পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারছি না। আমরা বেলারুশ থেকে ৬০ কিলোমিটার দূরে আছি। যেকোনো সময় যেকোনো কিছু হতে পারে। ’
উদ্ধার করার জন্য আকুল আবেদন জানিয়ে রিয়াদুল বলেন, ‘আমাদের জীবন এখন অনিশ্চয়তার মধ্যে। আমরা অনেক আতঙ্কে আছি। এখানে অনেক দেশের ১০০ জনের ওপর মানুষ আছে। নারী ও শিশু আছে। ওরা কাউকে মুক্তি দিচ্ছে না। ’
ইউক্রেনে বাংলাদেশের দূতাবাস নেই। প্রতিবেশী পোল্যান্ডে বাংলাদেশ দূতাবাস ইউক্রেনে বাংলাদেশের স্বার্থ দেখভাল করে। কূটনৈতিক সূত্রগুলো বলছে, বর্তমান যুদ্ধ পরিস্থিতিতে বাইরে থেকে কেউ সেখানে গিয়ে কাউকে উদ্ধারের সুযোগ নেই।
ঢাকায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় গত ২৭ ফেব্রুয়ারি এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলেছিল, ইউক্রেনের কারাগারে বা বন্দিশিবিরে থাকা বাংলাদেশিদেরও উদ্ধার করে নিয়ে আসার লক্ষ্যে বাংলাদেশ দূতাবাস আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থার (আইওএম) মাধ্যমে কাজ করছে।  
ইউক্রেনে রাশিয়ার সামরিক অভিযান এখন দ্বিতীয় সপ্তাহে প্রবেশ করেছে এবং এ পর্যন্ত এক হাজারেরও বেশি লোক নিহত বা আহত হয়েছে।
জাতিসংঘ বলছে, গত বৃহস্পতিবার রাশিয়া আগ্রাসনের নির্দেশ দেওয়ার পর থেকে ১০ লাখেরও বেশি শরণার্থী ইউক্রেন থেকে পালিয়ে গেছে।

ইউক্রেন ইস্যু: যে পথে হামলা চালাতে পারে রাশিয়া
                                  

রাশিয়া বরাবরের মতোই জোর দিয়ে বলে আসছে, তারা ইউক্রেন আক্রমণ করার পরিকল্পনা করছে না। তবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ভাষ্য, রাশিয়া ‘যেকোনো সময়’ দেশটিতে হামলা চালাতে পারে।
মঙ্গলবার যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন বলেন, ইউক্রেনে হামলা চালানোর জন্য ব্যাপক প্রস্তুতির প্রয়োজন রয়েছে। প্রত্যেকে দেখতে পারে সম্ভাব্য রুটগুলো কী কী।
সামরিক বিশ্লেষকরা একমত যে ইউক্রেন সীমান্তের কাছে প্রায় এক লাখ ৯০ হাজার সৈন্য জড়ো করেছে রাশিয়া। একইসঙ্গে তাদের হাতে বেশ কয়েকটি বিকল্প রয়েছে।
রাশিয়া যদি ইউক্রেন সরকারের পতন নিশ্চিত করতে চায়, তবে উত্তরের বেলারুশ ধরে হামলা চালানোর সম্ভাবনাই জোরালো। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসিকে এমনটাই বলেছেন যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক গবেষণা সংস্থা সিএনএ-এর মুখপাত্র মাইকেল কফম্যান।
বেলারুশে এ মুহূর্তে ৩০ হাজার রুশ সেনা যৌথ সামরিক মহড়া চালাচ্ছে। তাদের সঙ্গে আছে স্বল্পপাল্লার ইস্কান্দার ক্ষেপণাস্ত্র এবং পর্যাপ্ত রকেট লঞ্চার। এছাড়াও আছে এসইউ-২৫ গ্রাউন্ড অ্যাটাক এয়ারক্রাফট ও এসইউ ফাইটার।
মাইকেল কফম্যান বলেন, পূর্বে রাশিয়ার সীমান্তজুড়েই আছে হামলার পূর্ণ প্রস্তুতি। সীমান্তের পুরোটা জুড়েই রাশিয়ার সেনা অপেক্ষা করছে। তবে কিয়েভের দিকে যাওয়ার ক্ষেত্রে চেরনোবিল রুশ সেনারা এড়িয়ে যেতে পারে।
অন্যদিকে সেন্টার ফর স্ট্র্যাটেজিক অ্যান্ড ইন্টারন্যাশনাল স্টাডিজের সেথ জোনসের মতে রাশিয়ার দিক থেকে হামলা চালানো হলে নভে ইউরকোভিচি বা ত্রোয়েবোর্তনো শহর থেকেই সেটা শুরু হবে।
ক্রিমিয়া
ইন্টারন্যাশনাল ইনস্টিটিউট ফর স্ট্র্যাটেজিক স্টাডিজের বেন বেরি বলেন, ক্রিমিয়া ধরে যদি কিয়েভের দিকে রুশ সেনারা এগোতে থাকে তবে ইউক্রেনের বিপুল পরিমাণ সেনা দেশটির নিপার নদীর পূর্ব পাশে আটকা পড়বে। সেক্ষেত্রে রুশ সেনারা পশ্চিম, পূর্ব ও উত্তর মিলিয়ে ইউক্রেনের যোদ্ধাদের ঘিরে ফেলতে পারবে।
আবার যুদ্ধ শুরুর পর পশ্চিম থেকে রুশ সেনাদের লক্ষ্য থাকবে খেরসন ও ওদেসা দখল করা। সেই সঙ্গে পূর্বের মেলিতোপোল এবং মারিওপোলও থাকবে দখলের তালিকায়।
এটা সম্ভব হলে ক্রিমিয়া ও অন্য রুশপন্থী বিচ্ছিন্নতাবাদীদের সঙ্গে এক ধরনের যোগাযোগ তৈরি হয়ে যাবে। ক্রিমিয়ার উপকূলে এরইমধ্যে রাশিয়ার যুদ্ধজাহাজ ঘোরাফেরা শুরু করেছে। আগ্রাসন শুরু হলে জাহাজ থেকে আর্মার্ড ভেহিক্যাল ও ট্যাংক নামাতে পারবে রাশিয়া।
পূর্বের দুই শহর
২০১৪ সাল থেকেই ‍পূর্বের লুহানস্ক ও ডোনেস্ক দখল করে আছে রুশপন্থী বিদ্রোহীরা। সেখানে রুশ সেনাদের সঙ্গে অন্তত ১৫ হাজার বিদ্রোহী যোগ দেবে। ইউক্রেন সরকারের মতে সংখ্যাটা আরও বেশি। পূর্বের রোস্তোভ এলাকায় রাশিয়ার অন্তত ১০ হাজার সেনা স্থায়ীভাবে মোতায়েন করা আছে। সম্প্রতি সেখানে আরও সেনার আনাগোনা বেড়েছে বলে জানা গেছে।
পশ্চিমাদের ধারণা, ইউক্রেনের পূর্বের অঞ্চলগুলোয় রুশভাষী জনগণকে ‘রক্ষা করার’ মিশন দিয়েই হামলার সূচনা হতে পারে।
বেন বেরি বলেন, যুদ্ধ যত ছোট আকারেই শুরু হোক না কেন, ইউক্রেনের এয়ার ডিফেন্স ও অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ সামরিক কমান্ড অবকাঠামোগুলোও আক্রান্ত হবে। বিশ্লেষকরা অবশ্য ভৌগলিক সীমার বাইরে সাইবার হামলার কথা বলছেন ।
কফম্যানের মতে, হামলা যেখানেই হোক সেটার পরিসর নির্ভর করবে রাশিয়ার রাজনৈতিক অভিসন্ধির ওপর, যা এখনও পরিষ্কার নয়।

ফোনালাপে পুতিনকে বাইডেন, হামলা করলে চড়া মূল্য দিতে হবে
                                  

যেকোনো সময় ইউক্রেনে হামলা চালাতে পারে রাশিয়া। এমন আশঙ্কার মধ্যে রাশিয়াকে হুঁশিয়ারি দিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।
শনিবার (১২ ফেব্রুয়ারি) রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনকে ফোনে সতর্ক করেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।
বাইডেন বলেন, ইউক্রেনে হামলা চালালে রাশিয়াকে চরম মূল্য দিতে হবে। হোয়াইট হাউসের এক বিবৃতির বরাত দিয়ে এ খবর প্রকাশ করেছে আল জাজিরা।  
খবরে বলা হয়েছে, শনিবার ভিডিওকলে কথা বলেন বাইডেন ও পুতিন। তাদের মধ্যে প্রায় ঘণ্টাখানেক কথা হয়। এতে বাইডেন বলেন, সামরিক আগ্রাসনের ফলে ইউক্রেনে বড় ধরনের মানবিক সংকট দেখা দিতে পারে। এতে রাশিয়ার গ্রহণযোগ্যতা প্রশ্নবিদ্ধ হতে পারে। আর হামলা চালালে যুক্তরাষ্ট্র ও এর মিত্র দেশগুলো এর কড়া জবাব দেবে। রাশিয়াকে এ জন্য চরম মূল্য দিতে হবে।
পুতিন ও বাইডেন ফোনালাপের প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে রাশিয়ার পররাষ্ট্রনীতিবিষয়ক জ্যেষ্ঠ উপদেষ্টা ইউরি উশাকভ সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘রাশিয়ার বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের অমূলক আশঙ্কা চূড়ায় পৌছেছে। অবাক করা বিষয়, রাশিয়া কবে ইউক্রেনে হামলা চালাতে পারে এমন দিন–তারিখ যুক্তরাষ্ট্র সংবাদমাধ্যমের কাছে বলে দিচ্ছে। আমরা আসলে জানি না, এমন মিথ্যা তথ্য যুক্তরাষ্ট্রের প্রশাসনিক কর্মকর্তারা কোথায় পেয়েছেন।
এ সময় উশাকভ আরও বলেন, ‘পুতিন ও বাইডেনের মধ্যকার ফোনালাপ বেশ ভারসাম্যপূর্ণ ছিল। এই সংকটে সকল স্তরে যোগাযোগ অব্যাহত রাখার বিষয়ে দুনেতা একমত হয়েছেন। ’
এর আগে, গত শুক্রবার ওয়াশিংটন জানায়, যেকোনো সময় বড় ধরনের সামরিক অভিযান চালানোর জন্য যথেষ্ট সেনা ইউক্রেন সীমান্তে মোতায়েন করেছে রাশিয়া। সম্ভাব্য রুশ সামরিক অভিযানের আশঙ্কা থেকে নিজেদের নাগরিকদের ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ইউক্রেন ছাড়তে বলা হয়েছে।
এর পরপরই হোয়াইট হাউসের একজন কর্মকর্তা সংবাদমাধ্যমকে জানান, বাইডেন ও পুতিন ফোনে কথা বলবেন। তিনি বলেন, ‘রাশিয়া আগামী সোমবার এ ফোনালাপের প্রস্তাব দিয়েছিল। কিন্তু আমরা শনিবারের প্রস্তাব দিই। আমাদের প্রস্তাবে পরে তারা রাজি হয়। ’
এদিকে বাইডেনের সঙ্গে ফোনালাপের আগে পুতিন শনিবার ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল মাখোঁর সঙ্গেও ফোনে কথা বলেছেন। ফরাসি প্রেসিডেন্টের দপ্তর জানায়, চলমান উত্তেজনা দ্রুত নিরসন না হলে কূটনৈতিক পদক্ষেপ ফলপ্রসু হবে না বলে পুতিনকে জানিয়েছেন মাখোঁ।

ওমিক্রন ঠেকাতে অনেক টিকাই ব্যর্থ!
                                  

করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ‘ওমিক্রন’ এর সংক্রমণ ঠেকাতে করোনার বেশিরভাগ টিকাই তেমন কাজে দেবে না বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।  সম্প্রতি এক গবেষণার প্রাথমিক ফলাফল এটি।এই তথ্য তুলে ধরে সোমবার নিউইয়র্ক টাইমসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কেবল যুক্তরাষ্ট্রের তৈরি ফাইজার এবং মডার্নার টিকার বুস্টার বা তৃতীয় ডোজেই সংক্রমণ ঠেকাতে প্রাথমিক সফলতা দেখাতে পেরেছে। যদিও বিশ্বের বেশির ভাগ দেশে এই টিকা পাওয়া যায় না।  অবশ্য সংক্রমণ ঠেকাতে না পারলেও ‘ওমিক্রন’ আক্রান্তদের গুরুতর অসুস্থতা থেকে সুরক্ষা দিতে এখনকার টিকাগুলো উল্লেখযোগ্য মাত্রায় কার্যকর বলে দেখা গেছে গবেষণায়। নিউইয়র্ক টাইমস লিখেছে, অ্যাস্ট্রাজেনেকা, জনসন অ্যান্ড জনসন এবং চীন বা রাশিয়ায় তৈরি অন্য টিকাগুলো ‘ওমিক্রন’ এর সংক্রমণ ঠেকাতে বিশেষ কোনো কাজ করে না বলে প্রাথমিক গবেষণার ফলে দেখা গেছে। বিশ্বের বেশির ভাগ দেশ যেহেতু প্রচলিত এসব ডোজ দিয়েই তাদের টিকাদান কর্মসূচি চালিয়েছে, তাই মহামারির সময়ে এর একটি বড় ধরনের প্রভাব পড়তে পারে বলেও গবেষকরা মনে করছেন। অবশ্য এর বেশির ভাগ গবেষণাই হয়েছে পরীক্ষাগারে, যেখানে শরীরের পূর্ণ রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা এবং বিশ্বের জনসংখ্যার ওপর এর প্রভাব যাচাই করা সম্ভব হয়নি।সারা বিশ্বে সরবরাহ করা কভিড টিকার অর্ধেকই চীনা কোম্পানি সিনোফার্ম এবং সিনোভ্যাকের হলেও এসব টিকা ‘ওমিক্রন’ এর বিরুদ্ধে প্রায় কোনো সুরক্ষাই দেয়নি বলে প্রতিবেদনে জানানো হয়। চীনের বেশির ভাগ মানুষই নিজ দেশের এ দুই কোম্পানির টিকা নিয়েছেন।  যুক্তরাজ্যে প্রাথমিক এক গবেষণায় দেখা গেছে, অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা নেওয়ার ছয় মাস পর ‘ওমিক্রন’ সংক্রমণ ঠেকাতে এর কোনো কার্যকারিতাই ছিল না।

জীবন হারানোর চেয়ে ছুটি বাতিল করা ভালো: ডব্লিউএইচও
                                  

করোনাভাইরাসের ওমিক্রন ধরন বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়ায় জনস্বাস্থ্য রক্ষার জন্য সবাইকে কিছু ছুটির পরিকল্পনা বাতিল করার আহ্বান জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান তেদরোস আধানোম গেব্রেয়াসুস  বলেছেন, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে সুরক্ষা পেতে আমাদের কঠিন সিদ্ধান্ত নিতে হবে। কিছু ক্ষেত্রে আমাদের ছুটিতে বেড়ানোর পরিকল্পনা বাতিল করতে হবে। অথবা পিছিয়ে দিতে হবে।করোনার ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের চেয়েও দ্রুত ছড়াচ্ছে ওমিক্রন। এরই মধ্যে যারা টিকা নিয়েছেন এটি তাদেরও আক্রান্ত করছে। বাদ পড়ছেন না এর আগে করোনা থেকে সুস্থ হওয়া ব্যক্তিরাও।জেনেভায় সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান বলেছেন, ওমিক্রন ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের তুলনায় দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে। এর ধারাবাহিক প্রমাণ রয়েছে।যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ ড. অ্যান্থনি ফাউসি শঙ্কা প্রকাশ করে বলেছেন, আসন্ন বড়দিনকে ঘিরে ভ্রমণের ফলে ওমিক্রন সংক্রমণ আরও বাড়বে।তিনি মনে করেন, দুই ডোজ টিকা গ্রহণকারীদের মধ্যেও সংক্রমণ বাড়বে। ওমিক্রনের সংক্রমিত করার ব্যাপক সক্ষমতা রয়েছে। এটা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই।


   Page 1 of 73
     আর্ন্তজাতিক
শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগ
.............................................................................................
এবার দুর্নীতি মামলায় সু চির ৫ বছর কারাদণ্ড
.............................................................................................
কিয়েভের আগে মস্কো সফরে গুতেরেস, মানতেই পারছেন না জেলেনস্কি
.............................................................................................
পাকিস্তানের পার্লামেন্ট ভেঙে দিলেন প্রেসিডেন্ট
.............................................................................................
বিধ্বস্ত হওয়ার আগে শব্দের গতিতে চলছিল চীনের সেই বিমান
.............................................................................................
পশ্চিমবঙ্গে ভয়াবহ রাজনৈতিক সহিংসতা, আগুনে ঝলসে ১০ জনের প্রাণহানি
.............................................................................................
পুতিনের সাথে বৈঠকের প্রয়োজনীয়তার ওপর জোর জেলেনস্কির
.............................................................................................
ইউক্রেনে প্রথমবার হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালালো রাশিয়া
.............................................................................................
যে ৬ দফা মানলেই ‘থেমে যাবে’ ইউক্রেন যুদ্ধ!
.............................................................................................
ইউক্রেনের প্রায় সর্বত্র বিমান হামলার সতর্ক সংকেত, কিয়েভ ঘিরে রেখেছে রুশ বাহিনী
.............................................................................................
ইউক্রেনে সাময়িক যুদ্ধবিরতি - রাশিয়ার
.............................................................................................
ইউক্রেন সেনারা ৫ বাংলাদেশিকে জিম্মি করেছে
.............................................................................................
ইউক্রেন ইস্যু: যে পথে হামলা চালাতে পারে রাশিয়া
.............................................................................................
ফোনালাপে পুতিনকে বাইডেন, হামলা করলে চড়া মূল্য দিতে হবে
.............................................................................................
ওমিক্রন ঠেকাতে অনেক টিকাই ব্যর্থ!
.............................................................................................
জীবন হারানোর চেয়ে ছুটি বাতিল করা ভালো: ডব্লিউএইচও
.............................................................................................
হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় মারা গেলেন ভারতের প্রতিরক্ষা বাহিনীর - প্রধানও
.............................................................................................
ওমিক্রনে আক্রান্ত ইংল্যান্ডে আরো ৭৫ জন ,বৃটেনে মোট ১৩৪
.............................................................................................
প্রথম করোনার ওমিক্রন ধরন শনাক্ত-কানাডায়
.............................................................................................
জার্মানিতে মসজিদে আগুন দেওয়ার চেষ্টা এক দুর্বৃত্তের
.............................................................................................
বাংলা ভাষায় উত্তর দেবে চলন্ত রোবট কাবা প্রাঙ্গণে
.............................................................................................
গ্লাসগো ফেরত ৩০০! করোনা পজিটিভ
.............................................................................................
বিচ্ছুর কামড়ে ৩ জনের মৃত্যু- মিশরে
.............................................................................................
পেট্রল-ডিজেলের পর কমলো ভোজ্যতেলের দামও : ভারতে স্বস্তি
.............................................................................................
স্বামীর সঙ্গে পার্টনারের ছবি, ৫ সন্তানকে হত্যা করল মা!
.............................................................................................
ইয়েমেনে মসজিদে হুথিদের ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় বহু হতাহত
.............................................................................................
কাঁচা পেঁয়াজ থেকে যুক্তরাষ্ট্রে নতুন রোগের প্রাদুর্ভাব
.............................................................................................
নায়কের ছোড়া গুলিতে ক্যামেরাপারসনের মৃত্যু, পরিচালক আহত
.............................................................................................
লিবিয়ায় নারী-শিশুসহ ৪ হাজার অভিবাসী আটক
.............................................................................................
ভোটে এগিয়ে মমতা ভবানীপুরে
.............................................................................................
বিয়ে করলেন যুবক! রাইস কুকারকে
.............................................................................................
দুই মাস লকডাউনের পরেও মেলবোর্নে করোনা সংক্রমণের রেকর্ড
.............................................................................................
‘ব্লুটুথ স্যান্ডেল’ শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষায় নকল করতে
.............................................................................................
গোপনে ৬ বিয়ে, শ্বশুরবাড়ি যাওয়ার পথে ধরা পড়ে গণপিটুনি খেলেন জামাই
.............................................................................................
ওয়াশিংটনে মোদি-বাইডেন বৈঠক শুক্রবার
.............................................................................................
এক মাস পর কেমন চলছে আফগান জনজীবন?
.............................................................................................
আগামী সপ্তাহে ৩ দেশের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে মার্কিন প্রেসিডেন্টের বৈঠক
.............................................................................................
তালেবানে দ্বন্দ্ব: কাবুল ছাড়লেন মোল্লা বারাদার!
.............................................................................................
বিশেষজ্ঞদের ধারণা : চীনে করোনার সর্বশেষ প্রাদুর্ভাব প্রাইমারি স্কুল থেকে:
.............................................................................................
২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৬৮০৭, বিশ্বে আবারও বেড়েছে সংক্রমণ
.............................................................................................
পরীক্ষা চালালো উত্তর কোরিয়া দূরপাল্লার ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্রের
.............................................................................................
ভারতে বাংলাদেশি গ্রেফতার তৃতীয় স্ত্রীকে হত্যার অভিযোগে
.............................................................................................
স্বীকৃতি দেয়নি ফ্রান্স আফগান সরকারকে
.............................................................................................
৪ ফিলিস্তিনিকে আটক করেছে ইসরায়েল ,কারাগার থেকে পালানো
.............................................................................................
শীর্ষে উত্তর প্রদেশ , ভারতে নারী নির্যাতন বেড়েছে ৪৬ শতাংশ
.............................................................................................
করোনায় গাফিলতি: তদন্তের মুখে সাবেক ফরাসি স্বাস্থ্যমন্ত্রী
.............................................................................................
পালানোর জন্য ক্ষমা চাইলেন সাবেক আফগান প্রেসিডেন্ট
.............................................................................................
গভীর রাতের প্যারেডে কিম জং উন
.............................................................................................
শরিয়া আইন নিয়ে নতুন সরকারকে যে নির্দেশ দিলেন তালেবানের শীর্ষ নেতা
.............................................................................................
তালেবানের নতুন সরকার নিয়ে উদ্বিগ্ন যুক্তরাষ্ট্র
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
সম্পাদক ও প্রকাশক : মো : মাহবুবুর রহমান ।
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মো: হাবিবুর রহমান । সম্পাদক কর্তৃক বিএস প্রিন্টিং প্রেস ৫২/২ টয়েনবি সার্কুলার রোড, সুত্রাপুর ঢাকা খেকে মুদ্রিত
ও ৬০/ই/১ পুরানা পল্টন (৭ম তলা) থেকে প্রকাশিত বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : ৫১,৫১/ এ রিসোর্সফুল পল্টন সিটি (৪র্থ তলা), পুরানা পল্টন, ঢাকা -১০০০।
ফোনঃ-০২-৯৫৫০৮৭২ , ০১৭১১১৩৬২২৬

Web: www.bhorersomoy.com E-mail : dbsomoy2010@gmail.com
   All Right Reserved By www.bhorersomoy.com    
Dynamic SOlution IT Dynamic POS | Super Shop | Dealer Ship | Show Room Software | Trading Software | Inventory Management Software Computer | Mobile | Electronics Item Software Accounts,HR & Payroll Software Hospital | Clinic Management Software Dynamic Scale BD Digital Truck Scale | Platform Scale | Weighing Bridge Scale Digital Load Cell Digital Indicator Digital Score Board Junction Box | Chequer Plate | Girder Digital Scale | Digital Floor Scale